Bnanews24.com
Home » ব্যারিস্টার মওদুদের হৃদযন্ত্রে পেসমেকার বসানো সম্পন্ন
টপ নিউজ রাজনীতি সব খবর

ব্যারিস্টার মওদুদের হৃদযন্ত্রে পেসমেকার বসানো সম্পন্ন

ঢাকায় পৌঁছেছে মওদুদের মরদেহ

বিএনএ,ঢাকা:প্রায় দুই ঘণ্টার সফল অস্ত্রোপচার করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদের হৃদযন্ত্রে পেসমেকার বসানো হয়েছে।বৃহস্পতিবার(৭ ডিসেম্বর) বিকেলে রাজধানীর এভার কেয়ার হাসপাতালে হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ শাহাবুদ্দিন তালুকদারের নেতৃত্বে গঠিত মেডিকেল বোর্ডের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এই পেসমেকার বসানো হয়।সংবাদ মাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন ব্যারিস্টার মওদুদের একান্ত সহকারি মোমিনুর রহমান সুজন।

মোমিনুর রহমান বলেন,বিকাল তিনটায় শুরু হয়ে প্রায় দুই ঘণ্টার এই অস্ত্রোপচার সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে। মওদুদ আহমদকে ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিট নেয়া হয়েছে।তিনি চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা বলেছেন।মওদুদ আহমদের জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন তার পরিবারের সদস্যরা।

গত ২৯ ডিসেম্বর এই বিএনপি নেতার রক্তে হিমোগ্লোবিন কমে গেলে তাকে এভার কেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।

১৯৪০ সালের ২৪ মে নোয়াখালী জেলার কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় জন্মগ্রহণ করেন মওদুদ আহমেদ।তার বাবা মমতাজ উদ্দিন আহমেদ এবং মা বেগম আম্বিয়া খাতুন।ছয় ভাইবোনের মধ্যে তিনি চতুর্থ।

১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন ব্যারিস্টার মওদুদ। ১৯৭১ সালে ইয়াহিয়া খান কর্তৃক আহুত গোলটেবিল বৈঠকে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন তিনি।

১৯৭৭ থেকে ৭৯ সালে জিয়াউর রহমানের সরকারের মন্ত্রী ও উপদেষ্টা ছিলেন ব্যারিস্টার মওদুদ।১৯৭৯ সালে প্রথমবারের মতো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন এবং তাকে উপ-প্রধানমন্ত্রী করা হয়।১৯৮১ চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজে সালে জিয়াউর রহমান নিহত হওয়ার এক বছরের মধ্যে এরশাদ রাষ্ট্রক্ষমতা গ্রহণ করেন এইচ এম এরশাদ।১৯৮৫ সালের নির্বাচনে মওদুদ আহমেদ আবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন এবং সরকারের তথ্য মন্ত্রীর দায়িত্ব পান।

এর এক বছর পর ১৯৮৬ সালে তাকে আবারও উপ-প্রধানমন্ত্রী করা হয়।১৯৮৮ সালে প্রধানমন্ত্রী হন তিনি।১৯৮৯ সালে তাকে শিল্প মন্ত্রনালয়ের দায়িত্ব দেয়া হয় এবং তাকে উপ-রাষ্ট্রপতি করেন এইচ এম এরশাদ।১৯৯০ সালের ডিসেম্বরে জনরোষের মুখে ক্ষমতা ছেড়ে দিতে বাধ্য হয় এরশাদ সরকার।এরপর জাতীয় পার্টি থেকে মনোনয়ন নিয়ে ১৯৯১ সালের আবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন মওদুদ আহমেদ।

১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসলে বিএনপিতে যোগ দেন মওদুদ আহমেদ।২০০১ সালে নির্বাচনে  বিএনপি থেকে মনোনয়ন নিয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন তিনি। পাঁচবারই নোয়াখালী জেলার কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা থেকে নির্বাচিত হন এই প্রবীণ রাজনীতিবিদ।

বিএনএনিউজ/আরকেসি