Bnanews24.com
Home » ভাষা সৈনিক (২৫) বিচারপতি আবদুর রহমান চৌধুরী
টপ নিউজ ভাষা সৈনিক পরিচিতি সব খবর

ভাষা সৈনিক (২৫) বিচারপতি আবদুর রহমান চৌধুরী

ভাষা সৈনিক আবদুর রহমান চৌধুরী

ভাষাসৈনিক বিচারপতি আবদুর রহমান চৌধুরী ১৯২৬ সালের ২৫ নভেম্বর বরিশালের মেহেন্দীগঞ্জ থানার উলানিয়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতা খান বাহাদুর আবদুল লতিফ চৌধুরী ছিলেন বেঙ্গল লেজিসলেটিভ কাউন্সিলের অন্যতম সদস্য। তাঁর মাতার নাম- জাকিয়া দুরদানা। আবদুর রহমান চৌধুরী ১৯৪০ সালে বরিশাল জেলা স্কুল থেকে ম্যাট্রিক, ১৯৪২ সালে কলকাতা প্রেসিডেন্সি কলেজ থেকে আইএ এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এমএ, এলএলবি ডিগ্রি লাভ করেন।

১৯৫৫ সালে ঢাকা হাইকোর্টে আইনজীবী হিসেবে যোগদান করেন। ১৯৫৮ সাল থেকে ১৯৭৩ সাল পর্যন্ত তিনি সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ছিলেন। ১৯৬৬-৬৮ সালে তিনি তৎকালীন পূর্ব-পাকিস্তান হাইকোর্ট বার এসোসিয়েশনের সেক্রেটারি এবং ১৯৬৯ সালে ভাইস-প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন। ১৯৬৯ সালে ন্যাশনাল শিপিং কর্পোরেশনের পরিচালক নির্বাচিত হন।

১৯৭৩ সালে সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি হিসেবে শপথ গ্রহণ করেন এবং ১৯৮৩ সাল পর্যন্ত ঐ পদে অধিষ্ঠিত ছিলেন। বিচারপতি চৌধুরী ১৯৭৭-৭৮ সালে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেন। তিনি ইনস্টিটিউট অব হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড লিগ্যাল অ্যাফেয়ার্সের প্রতিষ্ঠাতা প্রেসিডেন্ট ছিলেন। তিনি বাংলাদেশ বসনিয়া সলিডারিটি ফ্রন্টের প্রথম চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। ১৯৯৩ সালে ফ্রান্সের প্যারিসে অবস্থিত ইন্টারন্যাশনাল কোর্ট অব আরব্রিটেশনে আরবিট্রেটর হিসেবে নিযুক্ত হন এবং আমৃত্যু ঐ পদে অধিষ্ঠিত ছিলেন।

বিচারপতি চৌধুরী বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানের সাথেও জড়িত ছিলেন এবং সমকালীন সময়ে জাতীয় জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে তিনি সাহসী ও সুস্পষ্ট বক্তব্য রেখে সকলের শ্রদ্ধাভাজন হয়ে ওঠেন। ভাষা-আন্দোলনের অগ্রসেনানীদের একজন হলেন বিচারপতি আবদুর রহমান চৌধুরী।

সূত্র: যারা অমর ভাষা সংগ্রামে, লেখক: এমআর মাহবুব

সম্পাদনায়: মনির ফয়সাল

পড়ুন আগের পর্ব: ভাষা সৈনিক (২৪) আব্দুল মুইজ্জ বাদশা