Bnanews24.com
Home » শ্বশুরবাড়ির কাঁঠাল গাছে ঝুলছিল জামাইয়ের মরদেহ, পলাতক স্ত্রী শ্বশুর শাশুড়ি
ময়মনসিংহ সব খবর

শ্বশুরবাড়ির কাঁঠাল গাছে ঝুলছিল জামাইয়ের মরদেহ, পলাতক স্ত্রী শ্বশুর শাশুড়ি

শ্বশুরবাড়ির কাঁঠাল গাছে ঝুলছিল জামাইয়ের মরদেহ, পলাতক স্ত্রী শ্বশুর শাশুড়ি

বিএনএ,ময়মনসিংহ : ময়মনসিংহের ফুলপুরে শ্বশুরবাড়ির কাঁঠাল গাছ থেকে শফিকুল ইসলাম (৩৭) নামে এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ঘটনার পর থেকে স্ত্রী শ্বশুর শাশুড়ি পলাতক বলে জানিয়েছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (২৮ জুলাই) সকালে উপজেলার রামভদ্রপুর ইউনিয়নের বাঘেধরা এলাকার একটি কাঁঠাল গাছ থেকে ঝুঁলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত শফিকুল ইসলাম শেরপুর জেলার নকলা উপজেলার হাসনখিলা গ্রামের আশরাফ আলীর ছেলে। ফুলপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মো. আব্দুল্লাহ আল মামুন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে তিনি বলেন, সকালের দিকে রামভদ্রপুর ইউনিয়নের বাঘেধরা গ্রামের একটি কাঁঠাল গাছে অজ্ঞাত যুবকের ঝুঁলন্ত মরদেহ দেখে স্থানীয়রা থানায় খবর দেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ঝুঁলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে। মরদেহ উদ্ধারের পর স্থানীয়রা ওই যুবককে চিনেন বলে জানায়। পরে মরদেহের সাথে থাকা মোবাইল নাম্বারে যোগাযোগ করে তার পরিচয় জানা যায়।

নিহত শফিকুল ইসলামের স্বজনদের বরাত দিয়ে ওসি মো. আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, বাঘেধরা গ্রামে শফিকুল ইসলামের শ্বশুরবাড়ি। নিহতের শ্বশুরের নাম আব্দুল খালেক, শ্বাশুরী নাছিমা বেগম ও তার স্ত্রীর নাম খাদিজা বেগম। যে বাড়ির পাশ থেকে মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে, ওইটাই তার শ্বশুরবাড়ি বলে দাবি করেন নিহতের পরিবার।

পরে তার শ্বশুর শ্বাশুরী ও স্ত্রী’র খোঁজ নিতে গেলে তাদের কাউকেই বাড়িতে পাওয়া যায়নি। দীর্ঘদিন যাবত শ্বশুর বাড়ির লোকজনের সাথে শফিকুল ইসলামের মনমালিন্য ছিল বলেও জানা গেছে। মরদেহ বর্তমানে থানায় রয়েছে। দেহে আঘাতের চিন্হ রয়েছে। নিহতের স্বজনদের থানায় আসার জন্য বলা হয়েছে। পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন আছে বলেও জানান ওসি মো. আব্দুল্লাহ আল মামুন।

বিএনএনিউজ২৪.কম/হামিমুর রহমান/এনএএম