পালাতে ব্যর্থ দুই জঙ্গিসহ ১০ আসামি ১০ দিনের রিমান্ডে

বিএনএ ডেস্ক: ঢাকার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের ফটক থেকে দুই জঙ্গিকে ছিনিয়ে নেয়ার ঘটনায় দায়ের করা মামলায় ১০ জনের ১০ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

রোববার (২০ নভেম্ব) দুপুরে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালত এই আদেশ দেন। ঢাকা মহানগর পুলিশের অপরাধ ও তথ্য বিভাগের উপপরিদর্শক (এসআই) আশরাফ উদ্দিন এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, রিমান্ড মঞ্জুর হওয়া ১০ আসামি হলেন-শাহীন আলম ওরফে কামাল, শাহ আলম ওরফে সালাউদ্দিন, বি এম মজিবুর রহমান, সুমন হোসেন পাটোয়ারী, আরাফাত রহমান, খাইরুল ইসলাম, মোজাম্মেল হোসেন, শেখ আবদুল্লাহ, আবদুর সবুর ও রশিদ উন্নবী ভূঁইয়া।

আদালত সূত্র জানায়, মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দুই জঙ্গিকে ছিনিয়ে নেয়ার ঘটনায় কোতোয়ালি থানায় মামলা করে পুলিশ। তাতে পালিয়ে যাওয়া দুই জঙ্গি মইনুল হাসান শামীম ওরফে সিফাত সামির, মো. আবু ছিদ্দিক সোহেলসহ ১২ জনকে আসামি করা হয়। আসামিদের মধ্যে আরাফাত রহমান ও আবদুর সবুরও দুপুরে ওই দুজনের সঙ্গে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। তবে তাঁরা ব্যর্থ হয়।

আরাফাত ও সবুরসহ গ্রেপ্তার ১০ জনকে আদালতে হাজির করে ১০ দিন রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের আবেদন করে পুলিশ। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে আদালত প্রত্যেকের ১০ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

জঙ্গি ছিনিয়ে নেয়ার ঘটনায় তদন্ত কমিটি

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দুই জঙ্গিকে ছিনিয়ে নেয়ার ঘটনায় পাঁচ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশ। তিন দিনের মধ্যে তাদের প্রতিবেদন জমা দিতে নির্দেশ দিয়েছেন ডিএমপি কমিশনার খন্দকার গোলাম ফারুক।

মামলায় শুনানি শেষে আদালত থেকে হাজতখানায় নেয়ার পথে দুই জঙ্গির সহযোগীরা হাজতখানা পুলিশের চোখে স্প্রে ছিটিয়ে, কিলঘুষি মেরে মইনুল হাসান শামীম ও মো. আবু ছিদ্দিক সোহেলকে ছিনিয়ে নেন। এরপর তাঁরা দুটি মোটরসাইকেলে রায়সাহেব বাজার মোড়ের দিকে পালিয়ে যান।

এ ঘটনার পর দেশজুড়ে ‘রেড অ্যালার্ট’ জারি করার কথা জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। এছাড়া দুই জঙ্গিকে ধরিয়ে দিলে ২০ লাখ টাকা পুরস্কারের ঘোষণা করেছে পুলিশ।

বিএনএ/এ আর