Bnanews24.com
Home » শিশুকে মাথার উপর তুলে আছাড়
ময়মনসিংহ সব খবর সারাদেশ

শিশুকে মাথার উপর তুলে আছাড়

শিশুকে মাথার উপর তুলে আছাড়

বিএনএ, ময়মনসিংহ: ময়মনসিংহের নান্দাইলে খেলাধুলায় বিরক্ত হয়ে এক শিশুকে মাথার উপর আছাড় দিয়ে মারার অভিযোগ উঠেছে মো. শাওন মিয়া (১৮) নামে এক তরুণের বিরুদ্ধে। বুধবার (৭ সেপ্টেম্বর) রাতে নান্দাইল উপজেলা স্বাস্থ কমপ্নেক্সে ওই শিশুর মৃত্যু হয়।

নিহত ইমরান হোসেন উপজেলার রাজগাতি ইউনিয়নের বিলভাদেরা গ্রামের মো. সবুজ মিয়ার ছেলে। সে স্থানীয় দাসপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্র ছিল।

বৃহস্পতিবার (৮ সেপ্টেম্বর) ময়নাতদন্ত করার জন্য কিশোরগঞ্জের ২৫০ শয্যা হাসপাতাল মর্গে পাঠায় পুলিশ। নান্দাইল থানার পরিদর্শক মিজানুর রহমান আকন্দ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, গত ১ সেপ্টেম্বর দুপুরে বৃষ্টি হচ্ছিল। এলাকার বেশ কয়েকজন শিশু প্রতিবেশী শফিকুল ইসলামের বাড়ির সামনে খেলাধুলা করছিল। এ সময় শিশুরা খেলাধুলা ও হৈ-হুল্লোড়ে মেতে ছিল। এই আওয়াজে বিরক্ত হয়ে শফিকুলের ছেলে মো. শাওন মিয়া শিশুদের ধাওয়া দেন। অন্য শিশুরা দৌড়ে পালিয়ে যেতে পারলেও ইমরানকে ধরে মাথার ওপরে তুলে মাটিতে আছাড় মারেন শাওন। এতে শিশুটি জ্ঞান হারালে এই অবস্থায়ই ফের লাঠি দিয়ে উপর্যুপরি আঘাত করে চলে যান তিনি। এতে শিশুটি গুরুতর আহত হয়। পরে স্বজনরা বিভিন্ন স্থানে চিকিৎসা করালেও ইমরান পুরোপুরি সুস্থ হয়নি। এই ঘটনার ৭ দিন পর শিশুর শরীর, নাক, মুখ ফুলে যায়। পরে গত বুধবার রাতে ইমরান হোসেনকে স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন। পরে ওই শিশুকে হাসপাতাল থেকে বের করতেই মারা যায়।

এ বিষয়ে রাজগাতী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মমতাজ উদ্দিন বলেন, সাত দিন আগে ওই শিশু খেলাধুলা করছিল। এসময় স্থানীয় এক তরুণ শিশুটিকে মাথার উপর তুলে মাটিতে আছাড় মারে। এতেই শিশুটি মারা গেছে।

ওসি মিজানুর রহমান আকন্দ বলেন, নিহত শিশুর স্বজনরা মরদেহ বুধবার গভীর রাতে হাসপাতাল থেকে নান্দাইল মডেল থানায় নিয়ে আসে। সুরতহাল সম্পন্ন করার পর মরদেহটি ময়নাতদন্ত করার জন্য কিশোরগঞ্জের ২৫০ শয্যা হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এই ঘটনায় শিশুর পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা করবে বলেও জানান তিনি।

বিএনএ/হামিমুর, এমএফ