বাংলাদেশ কোনো দিন ঋণখেলাপি হয়নি: প্রধানমন্ত্রী

বিএনএ, ঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলছেন,কিছুদিন আগে শুনলাম আমাদের দেশের সবাই রিজার্ভ নিয়ে পারদর্শী হয়ে গেছেন। গ্রামে গ্রামে, পাড়া মহল্লায়ও এটা নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। তিন মেয়াদে আমরা ক্ষমতায় অন্তত এটুকু দাবি করতে পারি, এই ১৪ বছরে বাংলাদেশ ঘুরে দাঁড়িয়েছে। বাংলাদেশ কোনো দিন ঋণখেলাপি হয়নি।

আরো পড়ুন

ব্রাজিল ৪ গোলে এগিয়ে

নেইমার ফিরলেন দক্ষিণ কোরিয়ার বিপক্ষে

শুক্রবার (২৫ নভেম্বর) ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের (স্বাচিপ) পঞ্চম জাতীয় সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার সরকার রিজার্ভ যেখানে রেখে গেছে, তার চেয়ে বাড়িয়েছি। কিন্তু করোনায় পানির মতো টাকা খরচ করেছি, সেটা নানা কাজে খরচ করেছি, মানুষের প্রয়োজনে। এখন খাদ্য কিনতে হচ্ছে। মানুষের যেগুলো ভোগ্যপণ্য, সেগুলো নিয়ে যাতে সমস্যা পড়তে না হয়। যার জন্য রিজার্ভ কমেছে। শুধু আমাদের নয় অনেক দেশের রিজার্ভও কমেছে।

জনগণের কাছে প্রশ্ন রেখে শেখ হাসিনা বলেন, রিজার্ভ কেন রাখা হয়? দুর্যোগ দুর্বিপাকে যেন খাদ্য কেনা যায়। আমাদের এখন যে রিজার্ভ আছে তা দিয়ে তিন মাস নয়, পাঁচ মাস আমদানি করা যাবে, খাদ্য কেনা যাবে। তবে আমি বলবো, খাদ্যপণ্য যাতে আমদানি করতে না হয়, সেজন্য সবাইকে উৎপাদনমুখী হতে। চিকিৎসকদেরও আহ্বান জানাই- জমিজমা তো কিছু আছে। চাষ করেন। কিছু উৎপাদন করেন। যাতে আমরা নিজেদের চাহিদা মিটিয়ে অন্যদেরও দিতে পারি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, করোনা সারাবিশ্বকে অর্থনৈতিক মন্দায় ফেলে দিয়েছে। বাংলাদেশে আমরা আমাদের অর্থনীতির গতি ধরে রাখতে পেরেছি। ২০০৮ সালে বলেছিলাম রূপকল্প ২০২১ বাস্তবায়ন করবো। এরইমধ্যে সেটা বাস্তাবায়ন করে উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা পেয়েছি। আমাদের উন্নয়নের গতি-প্রবৃদ্ধি আমরা ৮ শতাংশে উন্নীত করেছি। করোনা এসে সেটাকে বাধাগ্রস্ত করে দেয়।

বিএনএ/ ওজি