Bnanews24.com
Home » বগুড়ায় ইউএনওর বিরুদ্ধে নৈশ প্রহরীকে পেটানোর অভিযোগ
কভার রাজশাহী সব খবর

বগুড়ায় ইউএনওর বিরুদ্ধে নৈশ প্রহরীকে পেটানোর অভিযোগ

নৈশ প্রহরীকে পেটানোর অভিযোগ

বিএনএ ডেস্ক: বগুড়া সদর উপজেলা পরিষদের প্রকৌশল অধিদপ্তরের নৈশ প্রহরী আলমগীর হোসেনকে (৪৫) পেটানোর অভিযোগ উঠেছে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সমর কুমার পালের বিরুদ্ধে।

বৃহস্পতিবার (২২ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে উপজেলা পরিষদ কমপ্লেক্সের দ্বিতীয় তলায় এ ঘটনা ঘটে। আলমগীর হোসেনের গ্রামের বাড়ি সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলায়।

আলমগীরের জামাতা মাসুদ রানা জানান, আলমগীরকে নির্দয়ভাবে পেটানোর পর উপজেলা পরিষদ মাঠে অচেতন অবস্থায় ফেলে রাখা হয়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়।

ভুক্তভোগী আলমগীর হোসেন জানান, স্ত্রী তার সঙ্গে বগুড়ায় থাকতে চেয়েছিলেন। কিন্তু তিনি রাজি হইনি। তাই তিনি উপজেলা পরিষদের প্রকৌশলী ও ইউএনও স্যারের কাছে অভিযোগ করেন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উপজেলা পরিষদে গেলে ইউএনও আনসারদের নির্দেশ দেন আমাকে তার কাছে নিয়ে যেতে।’

‘তার নির্দেশে দুই আনসার আমার হাত ধরে দ্বিতীয় তলায় ইউএনও কার্যালয়ে নিয়ে যায়। সেখানে আরেকটি অন্ধকার ঘর ছিল। ওই ঘরে নিয়ে আমাকে বাঁশের লাঠি দিয়ে ইউএনও স্যার নির্দয়ভাবে পেটান।’

আলমগীর বলেন, ‘আমি তাকে না পেটাতে অনুরোধ করলেও, অচেতন না হওয়া পর্যন্ত তিনি আমাকে পেটাতে থাকেন।’

যোগাযোগ করা হলে ইউএনও সমর কুমার পাল অভিযোগ অস্বীকার করে স্থানীয় সাংবাদিকদের বলেন, ‘মারধরের কোনো ঘটনা ঘটেনি। বুধবার রাতে উপজেলা পরিষদ কমপ্লেক্সের সিঁড়ির নিচে বেঞ্চে আলমগীরের স্ত্রীকে শুয়ে থাকতে দেখি। আলমগীর তার স্ত্রীকে সেখানে রেখে চলে যায়। যখন জানতে পারি তার মেয়ের বাড়ি পাশের শাজাহানপুর উপজেলায়, তখন তার স্ত্রীকে সেখানে পাঠাই।’

‘পরে বৃহস্পতিবার বিকেলে আলমগীর উপজেলা কমপ্লেক্সে ফিরলে আমি তাকে চলে যেতে বলি এবং তার স্ত্রীর সঙ্গে সমস্যা মিটিয়ে দেই। তাকে মারধর করার কথা অস্বীকার করেন ইউএনও।

এ বিষয়ে বগুড়ার জেলা প্রশাসক মো. জিয়াউল হক বলেন, ‘ঘটনা তদন্তে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সালাউদ্দিন আহমেদকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। প্রতিবেদন পেলে সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বিএনএ/এ আর