Bnanews24.com
Home » শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম অর্থনৈতিক শক্তি-নেপালের সাবেক প্রধানমন্ত্রী
কভার ভিডিও সংবাদ সংগঠন সংবাদ সব খবর স্পন্সর নিউজ

শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম অর্থনৈতিক শক্তি-নেপালের সাবেক প্রধানমন্ত্রী

নেপালের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ঝালা নাথ খানাল

বিএনএ ডেস্ক :  নেপালের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ঝালা নাথ খানাল বলেছেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এখন দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম অর্থনৈতিক শক্তি।গত একদশকের বেশি বাংলাদেশ ব্যবসা-বাণিজ্য ও কূটনৈতিকভাবে ঈর্ষণীয় সফলতা অর্জন করেছে।

শনিবার( ১৬ জুলাই)  নেপালের কাঠমুন্ডেতে ইলেকশন মনিটরিং ফোরামের চেয়ারম্যান ও সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশন-এর মহাসচিব অধ্যাপক মোহাম্মদ আবেদ আলীর নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল নেপালের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ঝালা নাথ খানালের সাথে সৌজন্য সাক্ষাত কালে তিনি এ সব কথা বলেন।

নেপালের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ঝালা নাথ খানাল আরও বলেন, বাণিজ্যিক অগ্রগতি ও উন্নতির লক্ষ্যে বাংলাদেশের সাথে নেপাল, ভারত, ভূটান একযুগে কাজ করতে নানাবিধ যে পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে তা বাস্তবায়ন হলে সকলেই এর সুফল ভোগ করবে। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃঢ় নেতৃত্ব ও অসীম সাহসিকতা এ অগ্রগতির কারণ। নেপাল-বাংলাদেশের সম্পর্ক দীর্ঘদিনের। এ সম্পর্ক আরো উন্নয়নে বর্তমান বাংলাদেশ সরকার যথেষ্ট আন্তরিক।

সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশনের নেতৃবৃন্দের এক মতবিনিময় সভায়
সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশনের নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময় সভায় নেপালের সাবেক পিএম

সাবেক প্রধানমন্ত্রী ঝালা নাথ খানাল দুদেশের মধ্যে বাণিজ্যিক সম্পর্ক আরও জোরদার এবং এ ব্যাপারে তরুণ উদ্যেক্তোদের এগিয়ে যেতে আহবান জানান। 

এ সময় সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশন-এর মহাসচিব অধ্যাপক মোহাম্মদ আবেদ আলী দক্ষিণ এশিয়ার রাষ্ট্রসমূহের রাজনৈতিক অবস্থা, নির্বাচন প্রক্রিয়া এবং অর্থনৈতিক অবস্থান নিয়ে সংক্ষিপ্ত চিত্র তুলে ধরেন।

সাক্ষাৎকালে নেপাল সফরকারী দলের অন্যতম সদস্য ব্যবসায়ি নেতা, বাংলাদেশ বাঙ্কার সাপ্লায়ার্স এসোসিয়েশনের  সভাপতি এবং সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশনের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি মিজানুর রহমান মজুমদার বলেন, বাংলাদেশ শুধু অর্থনৈতিকভাবে এগিয়ে যায় নি-কৃষি,যোগাযোগ,শিক্ষা,বিদ্যুৎ, চিকিৎসা সেবা এবং নারীর ক্ষমতায়নে রোল মডেলে পরিণত হয়েছে। বিশ্বব্যাংকের বিরোধীতা সত্ত্বেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পদ্মা সেতু তৈরি করে বাংলাদেশকে বিশ্বের বিস্ময়ে পরিণত করেছেন।

জনাব মিজানুর রহমান মজুমদার বলেন, বাংলাদেশ সরকার তরুণ উদ্যেক্তাদের অগ্রাধিকার এবং চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের উপযোগি করে দেশকে গড়ে তোলার জন্য নানামুখি পদক্ষেপ নিয়েছে। ইতোমধ্যে দেশ ডিজিটাল বাংলাদেশ প্রকল্পের সুফল পেতে শুরু করেছে। শহরের সুযোগ সুবিধা গ্রামেও পৌঁছে দিচ্ছেন। তিনি বলেন, নেপালের তরুণ ব্যবসায়ীরা বাংলাদেশের পর্যটন, ফুড প্রসেসিং এবং তথ্য প্রযুক্তিখাতে বিনিয়োগ করলে উভয়দেশ লাভবান হবে।

সাক্ষাৎকালে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশন নেপালের সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য মো: নজির মিয়া, মুসলিম কমিশনের সদস্য এডভোকেট মাহামাদীন আলী, কেন্দ্রীয় পরিচালক বঙ্গবন্ধু গবেষক ড. মুহম্মদ মাসুম চৌধুরী ও আজীবন সদস্য ইফতেখার আবেদীন চৌধুরী।

সাবেক প্রধানমন্ত্রী ঝালা নাথ খানাল
সাবেক প্রধানমন্ত্রী ঝালা নাথ খানালকে একটি স্মারক উপহার দেন

সাক্ষাৎকালে মানবাধিকার নেতৃবৃন্দ আগামী ১০ ডিসেম্বর ঢাকায় অনুষ্ঠিতব্য আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সম্মেলনে যোগ দিতে নেপালের সাবেক প্রধানমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানান।

আরও পড়ুন :

 “বাংলাদেশের দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচন পর্যবেক্ষণের আগ্রহ নেপাল নির্বাচন কমিশনের”

“মুসলিম সংস্কৃতি বিনিময়ে নেপাল-বাংলাদেশের যৌথ উদ্যোগ প্রয়োজন”

বিএনএ/ ওজি, এসজিএন,ওয়াই এইচ