Bnanews24.com
জাতীয় টপ নিউজ সব খবর সাহিত্য-সংস্কৃতি

চারুকলায়  ‘পহেলা বৈশাখ’ উদযাপন  হবে সীমিত পরিসরে

চারুকলায়  ‘পহেলা বৈশাখ’ উদযাপন  হবে সীমিত পরিসরে

বিএনএ ঢাকা:করোনা ভাইরাসের কারণে গতবারের মতো এবারও ব্যাপকভাবে পহেলা বৈশাখ উদযাপন করা হবেনা। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) চারুকলা অনুষদে এবার সীমিত পরিসরে বাংলা নববর্ষ উদযাপন করা হবে। এ আয়োজনে চারুকলা অনুষদ চত্বরে যথাযথভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে মাত্র একশ জন অংশ নিতে পারবেন।

সংবাদ মাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক নিসার হোসেন।তিনি বলেন, করোনার কারণে এ বছর সব আয়োজনেই জনসমাগম নিষিদ্ধ করা হয়েছে। তবে যেহেতু এটি স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর বছর, সেহেতু কিছু করা না হয়,তাহলে  স্বাধীনতার বিপক্ষের শক্তি মাথা চাড়া দিয়ে উঠবে।তাই সীমিত পরিসরে হলেও মঙ্গল শোভাযাত্রার আয়োজন করবে কর্তৃপক্ষ। শোভাযাত্রাটি বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদ চত্বরেই সীমাবদ্ধ থাকবে, বাইরে বেরুবে না এবং প্রবেশ সংরক্ষিত থাকবে। এক্ষেত্রে যথাযথভাবে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে।

অধ্যাপক নিসার হোসেন বলেন,এবার মঙ্গল শোভাযাত্রার থিম নির্ধারণ করা হয়েছে, “কাল ভয়ঙ্করের বেশে এবার ঐ আসে সুন্দর”। এ খারাপ সময়কে পার করে ভালো কিছু হবে, নতুন বছর জাতিকে ভালো কিছুর বার্তা দেবে-এমনটাই প্রত্যাশা করেন তিনি।

এরআগে বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তর থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, করোনা ভাইরাস মহামারির বিরূপ পরিস্থিতির কারণে এবছর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে অত্যন্ত সীমিত পরিসরে বাংলা নববর্ষ ১৪২৮ উদযাপন করা হবে। এ উপলক্ষে চারুকলা অনুষদ চত্বরে একশ জনের একটি বর্ণাঢ্য মঙ্গল শোভাযাত্রা আয়োজন করা হবে। শোভাযাত্রাটি চারুকলা অনুষদ চত্বরেই সীমাবদ্ধ থাকবে। এক্ষেত্রে যথাযথভাবে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে বলে এতে জানানো হয়েছে।

১৯৮৯ সাল থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলার শিক্ষার্থীরা পহেলা বৈশাখের সকালে মঙ্গল শোভাযাত্রার আয়োজন করে আসছেন। এই শোভাযাত্রা এখন কেবল বর্ষবরণ উৎসবের অনুসঙ্গই নয়, এর মধ্য দিয়ে বাঙালি সংস্কৃতিকে মেলে ধরার পাশাপাশি সমাজে অবক্ষয় থেকে মুক্তি, পেছনের দিকে হাঁটা প্রতিরোধের আহ্বানও জানানো হয়।

সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের আবেদনে গতবছর ৩০ নভেম্বর বাংলাদেশের মঙ্গল শোভাযাত্রাকে তাদের ‘ইনট্যানজিবল কালচারাল হেরিটেজ অব হিউম্যানিটি’ তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করে জাতিসংঘের সংস্থা ইউনেস্কো ।

বিএনএনিউজ/আরকেসি