Bnanews24.com
Home » মোস্ট ইনফ্লুয়েন্সিয়াল উইমেন এওয়ার্ড পেলেন বিশ্বপরিব্রাজক নাজমুন
এক নজরে চট্টগ্রাম সব খবর

মোস্ট ইনফ্লুয়েন্সিয়াল উইমেন এওয়ার্ড পেলেন বিশ্বপরিব্রাজক নাজমুন

বিএনএ, চট্টগ্রাম : মোস্ট ইনফ্লুয়েন্সিয়াল উইমেন এওয়ার্ড পেলেন বিশ্ব পরিব্রাজক নাজমুন নাহার। শুক্রবার ( ০১ জানুয়ারি) বছরের প্রথম দিনে ‘পতাকা কন্যা’ খ্যাত এ পরিব্রাজককে পদকে ভূষিত করে সাংস্কৃতিক সংগঠন স্বপ্নযাত্রী। চট্টগ্রাম জেলা শিল্পকলা একাডেমির গ্যালারি হলে এক জাঁকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে তাকে এ সম্মাননা জানানো হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জাতীয় কবি কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহীত উল আলম, বিশেষ অতিথি ছিলেন কবি সাংবাদিক এজাজ ইউসুফী, লক্ষ্মীপুর জেলা সমিতির সভাপতি সাবেক কাউন্সিলর মো. এম এ কাশেম, জেলা শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক নাট্যজন সাইফুল আলম বাবু। সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি আলী প্রয়াস।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. মোহীত উল আলম বলেন, নাজমুন একজন সংগ্রামী ও সাহসী নারী। তিনি তার স্বপ্নকে বাস্তবে রুপায়িত করছেন বিশ্ব জয়ের মাধ্যমে। তার এ জয় স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তির সাথে একিভূত হয়ে বিশ্বের বুকে বাংলাদেশের সম্মানকে আরও একধাপ বাড়িয়ে দিয়েছে।

অনুষ্ঠানে নাজমুন নাহার শুনালেন তার বিশ্বভ্রমণের অসাধারণ সব গল্প। যে গল্পে ওঠে এসেছে পৃথিবীর মানুষের কথা, ভিন্ন ভিন্ন দেশের ইতিহাস, ঐতিহ্য, সংস্কৃতির কথা।

সড়ক পথে ভ্রমণকারী নাজমুন তার বিশ্বজয়ের গল্পে আরও বলেন, বাংলাদেশের কোটি প্রাণের লাল-সবুজের পতাকাকে পৌঁছে দিয়েছি ১৪৪ টি দেশে। আমার শরীরে ১৪৪ দেশের খাবার, তাপমাত্রা এবং সেসব দেশের মানুষকে কাছে থেকে জানার অভিজ্ঞতা। পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের স্কুলে গেছি, সেখানে শিক্ষার্থীদের কাছে আমার দেশের সংস্কৃতি, ইতিহাস, ঐতিহ্য তুলে ধরেছি। দেশে দেশে যুদ্ধ নয়, শান্তির বাণী প্রচার করেছি।

মানুষের পরিচয়ে এক পৃথিবীর স্বপ্ন

স্বপ্নবাদী নাজমুন তারণ্যের স্বপ্নে মাঝেই আগামীর পৃথিবীটাকে দেখতে পান। তিনি বলেন, আমি পৃথিবীর সন্তান। পুরো পৃথিবীটাই আমার মা। আমরা সবাই একই ছায়ার নিচে বসবাস করছি। ধর্ম, বর্ণ জাতি নির্বিশেষে আমাদেরকে মানুষের পরিচয়ে এক পৃথিবীর স্বপ্ন দেখতে হবে। আগামী দিনের তরুণরাই হবে ভবিষ্যত পৃথিবীর নির্মাতা।

আবৃত্তিশিল্পী উমেসিং মারমার উপস্থাপনায়  অনুষ্ঠানে নাচ, গান ও নৃত্য পরিবেশন করেন রুমা, নাজিম উদ্দিন, জীবন বড়ুয়া, স্বিগ্ধা বড়ুয়া, মুনমুন ভৌমিক ও ইনান ইলহাম।

লক্ষীপুরে জন্ম

উল্লেখ্য, লক্ষীপুরে জন্মগ্রহণকারী নাজমুন নাহার রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা শেষে স্কলারশিপ নিয়ে সুইডেন ও জাপান থেকে উচ্চতর ডিগ্রি নেন। পাশাপাশি বিশ্বভ্রমণ করেন। তিনি বিশ্বভ্রমণের কারণে পেয়েছেন অসংখ্য পুরস্কার। তার মধ্যে অন্যতম হলো যুক্তরাষ্ট্রে পিস টর্চ বিয়ারার এওয়ার্ড, আর্থ কুইন এওয়ার্ড, জাম্বিয়া সরকারের গভর্নরের কাছ থেকে ফ্লাগ গার্ল উপাধি, জনটা ইন্টারন্যাশনাল দিয়েছে গেম চেঞ্জার অব বাংলাদেশ এওয়ার্ড, অতীশ দীপঙ্কর গোল্ড মেডেল এওয়ার্ড, অনন্যা শীর্ষ দশ এওয়ার্ড ইত্যাদি।

বিএনএনিউজ/আমিন