Bnanews24.com
Home » মায়ের মরদেহের খোঁজে ময়মনসিংহে মরিয়ম মান্নান
ময়মনসিংহ সব খবর সারাদেশ

মায়ের মরদেহের খোঁজে ময়মনসিংহে মরিয়ম মান্নান

মায়ের মরদেহের খোঁজে ময়মনসিংহে মরিয়ম মান্নান

বিএনএ, ময়মনসিংহ : মায়ের মরদেহের খোঁজে ময়মনসিংহে এসেছেন খুলনা থেকে নিখোঁজ রহিমা খাতুনের মেয়ে মরিয়ম মান্নান সহ দুই বোন মাহফুজা আক্তার ও আদুরী আক্তার।

শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর) সকালে ফুলপুর থানায় উপস্থিত হন তারা।

গত ২৭ আগস্ট রাতে খুলনা শহরের মহেষ্যপাশা গ্রাম থেকে নিখোঁজ হয় রহিমা বেগম নামে এক নারী। নিখোঁজের পর থেকেই আন্দোলনে নামেন নিখোঁজের মেয়ে মরিয়ম মান্নান ও তার বোনেরা। এই ঘটনা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সহ সারা দেশে ছড়িয়ে পড়ে।

চলতি মাসের ১০ তারিখ ফুলপুর উপজেলার বওলা পূর্বপাড়া গ্রাম থেকে বস্তাবন্দি অজ্ঞাত নারীর মরদেহ উদ্ধার করে ফুলপুর থানা পুলিশ।

সেই মরদেহ নিজের মায়ের বলে দাবী করেছেন নিখোঁজের মেয়ে মরিয়ম মান্নান।

মরিয়ম মান্নান বলেন, ‘২৭ দিন যাবৎ আমার মা নিখোঁজ। আমরা প্রতিনিয়ত আমাদের মাকে খুঁজছি। গত ১০ সেপ্টেম্বর ফুলপুর থানায় একটি অজ্ঞাত নারীর মরদেহ উদ্ধারের খবর পেয়ে এখানে ছুটে আসি। মরদেহের ছবি দেখে আমার মায়ের কপাল, হাত স্পষ্ট বোঝা গেছে। আমি মনে করি মায়ের শরীর চিনতে কোন প্রমাণ লাগে না। তারপরও আমরা অফিসিয়াল সিদ্ধান্তের উপর নির্ভর করবো।’

মরিয়ম মান্নান আরও বলেন, ‘আমি মাকে খুজতে এসেছি। ওনি যদি আমার মা না হয় তবে অন্য কোথাও মাকে খুঁজবো। আমরা শুধু আমাদের মা কে চাই।

নিখোঁজ হওয়ার ব্যাপরে মরিয়ম মান্নান বলেন, আমার মায়ের সাথে জমিজমা নিয়ে স্থানীয়, মহীউদ্দীন, জুয়েল, বিল্লাল হোসেন ও হেলালের সাথে বিরোধ ছিল। এরই জেরে ওরা আমার মায়ের উপর হামলাও করেছে।

পুলিশের সাথে মরদেহ শনাক্তে দফায় দফায় আলোচনা করেন মেয়েরা।

ফুলপুর থানার ওসি আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, খুলনা থেকে মরিয়ম মান্নান সহ কয়েকজন থানায় এসে আবেদন জানিয়েছেন উদ্ধারকৃত অজ্ঞাত নারীর মরদেহ তাদের মা। তাদের আবেদন গ্রহণ করে উর্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠানো হবে। পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও যাচাইয়ের পর মরদেহের পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যাবে।

বিএনএনিউজ/হামিমুর রহমান/এইচ.এম।