Bnanews24.com
Home » সাতকানিয়ায় আরও এক চেয়ারম্যান প্রার্থীর ওপর হামলা
বৃৃৃৃৃৃৃৃৃৃৃৃৃৃৃৃৃহত্তর চট্টগ্রাম সব খবর

সাতকানিয়ায় আরও এক চেয়ারম্যান প্রার্থীর ওপর হামলা

সাতকানিয়ায় আরও এক চেয়ারম্যান প্রার্থীর ওপর হামলা

বিএনএ, চট্টগ্রাম : সাতকানিয়ায় আরও এক স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মঈন উদ্দীন হাসানের ওপর হামলা করেছে দূর্বৃত্তরা। রোববার(১৬ জানুয়ারী)চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে সাতকানিয়া উপজেলার ৪নং কাঞ্চনা ইউপি প্রার্থী এ অভিযোগ করেছেন। এ ছাড়া তিনি সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবী করেন।

মঈন উদ্দীন হাসান তার লিখিত বক্তব্যে জানান, গত ১৩ জানুয়ারী দিবাগত রাত আনুমানিক ১২টা ২৫ মিনিটে আমার বাড়ি লক্ষ্য করে দূর্বৃত্তরা গুলি বর্ষণ করে। বাড়ীর সদর দরজায় আঘাত করে। সিসিটিভি ক্যামেরা কানেকশন গুলি করে বিচ্ছিন্ন করে দেয়। বিভিন্ন প্রকার অকথ্য ভাষায় (আমার মা, স্ত্রী এবং ছোট ভাইদের স্ত্রীদের শুনিয়ে) গালিগালাজ করে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াতে হুমকি দেয়।

তিনি আরও জানান, এরপর ১৫ জানুয়ারী মনোনয়ন বাছাইয়ের দিন আনুমানিক ১১ টায় উপজেলা কৃষি অফিসের সামনে রমজান আলী তার দলবল নিয়ে সশস্ত্র (লাঠি, হকষ্টিক, দেশীয় ধারালো অস্ত্র) সন্ত্রাসী হামলা ও মারধর করে। আমার প্রস্তাবকারীকে জোর পূর্বক তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে তুলে নিয়ে আমার বিরুদ্ধে স্বীকারোক্তি নেওয়ার চেষ্টা চালায় এবং মামলা দেওয়ার হুমকী দেয়। নির্বাচন থেকে সরে না দাঁড়ালে আবারও আমার ও আমার পরিবারের সদস্য, প্রস্তাবকারী এবং কর্মী সমর্থকদের ওপর হামলা হবে বলে হুঁশিয়ারী দেন।

স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মঈন উদ্দীন হাসান জানান, এ হামলার ঘটনায় আমি নিজে আহত হই। আমার ছোট দু ভাই এবং আমার বেশ কয়েকজন কর্মী সমর্থক আহত হয়। আমি থানা ইনচার্জ অফিসার এং রিটার্নিং অফিসার বরাবর একটি অভিযোগ দায়ের করি। দফায় দফায় এই হামলায় আমি আমার পরিবার, কর্মী সমর্থকরা আতংকের মধ্যে আছি। যে কোন সময় আবার হামলা হতে পারে।

স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী জানান, নির্বাচন থেকে সরে না দাঁড়ালে তাকে ও তার কর্মীদের প্রাণনাশের হুমকি দেওয়া হচ্ছে। প্রতিদিন এলাকায় শোডাউন করে এবং হাতী প্রতীকের নির্বাচনী ব্যানার, পোস্টার ছেঁড়াসহ সমর্থকদের ভয়ভীতি ও হুমকি অব্যাহত রেখেছে। এমতাবস্থায় অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য নির্বাচন কমিশনসহ প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করেন তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মঈন উদ্দীন হাসান’র ভাই মনিরুল ইসলাম, এম সাহেদ চৌধুরী ও জাহেদুল ইসলাম প্রমুখ।

উল্লেখ্য,শনিবার(১৫ জানুয়ারী) এক সংবাদ সম্মেলনে উপজেলার ৯নং পশ্চিম ঢেমশা ইউনিয়নের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী আবদুল মাবুদ সেন্টু তাকে হামলা ও মারধরের অভিযোগ করেন।

তিনি বলেন, একই ইউনিয়নের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আবু তাহের জিন্নাহর নির্দেশে তাঁর সন্ত্রাসী বাহিনীরা আজ  শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে উপজেলা নির্বাচন অফিসের ১০০ গজের মধ্যে এ হামলা চালায়।এ সময় মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই শেষে বৈধতা নিয়ে আমি  বাড়ি ফিরছিলেন  ।

বিএনএ/ ওজি

আরও পড়ুন:সাতকানিয়ায় স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী সেন্টু লাঞ্ছিত