30 C
আবহাওয়া
৬:২১ অপরাহ্ণ - ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২৪
Bnanews24.com
Home » চট্টগ্রামে এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে উদ্বোধন মঙ্গলবার

চট্টগ্রামে এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে উদ্বোধন মঙ্গলবার

চট্টগ্রামে এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে উদ্বোধন মঙ্গলবার

বিএনএ, চট্টগ্রাম: বঙ্গবন্ধু টানেলের পর চট্টগ্রামে এবার আরেক মেগা প্রকল্প ‘এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে’ উদ্বোধন হতে যাচ্ছে মঙ্গলবার (১৪ নভেম্বর)। চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের প্রয়াত মেয়র এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর নামে ‘মহিউদ্দিন চৌধুরী এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে’ নামকরণ করা হয়েছে। মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রকল্পটির উদ্বোধন করবেন। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (চউক)।

চট্টগ্রামে এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে উদ্বোধন মঙ্গলবার
উদ্বোধন উপলক্ষে সাজানো হয়েছে এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে

চউকের কর্মকর্তারা জানান, চট্টগ্রাম শাহ আমানত বিমানবন্দর থেকে নগরীর লালখান বাজার পর্যন্ত এক্সপ্রেসওয়ের দৈর্ঘ্য প্রায় ১৬ কিলোমিটার। ৫৪ ফুট প্রশস্ত ও চারলেনের এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়েতে থাকবে ১৪টি র‌্যাম্প। এরমধ্যে জিইসি মোড়ে একটি, টাইগারপাসে দুটি, আগ্রাবাদে চারটি, ফকিরহাটে একটি, নিমতলায় দুটি, সিইপিজেডে দুটি এবং কেইপিজেড এলাকায় থাকবে দুটি র‌্যাম্প। মূল ফ্লাইওভারের প্রায় ৮৫ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে। বাকি কাজগুলো চলছে। উদ্বোধনের কিছু দিনের মধ্যেই টাইগারপাস থেকে পতেঙ্গা পর্যন্ত মূল অংশ যানবাহন চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে।

তবে লালখান বাজার থেকে টাইগারপাস অংশের কাজ শেষ না হওয়ায় এটি এখনই খুলে দেওয়া হচ্ছে না। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে বাকি কাজ সমাপ্ত করা যাবে।

আরও পড়ুন: তফসিলের পর সেনা মোতায়েন চেয়ে আইনি নোটিশ

নগরীর যানজট নিরসনের লক্ষ্যে ২০১৭ সালের ১১ জুলাই একনেক সভায় এ প্রকল্প অনুমোদন করা হয়। প্রথমে প্রকল্পের ব্যয় ৩ হাজার ২৫০ কোটি ৮৩ লাখ টাকা ধরা হয়। তিন বছরের মধ্যে অর্থাৎ ২০১৭ সালের জুলাই থেকে ২০২০ সালের জুন পর্যন্ত প্রকল্পের কাজ শতভাগ শেষ হওয়ার কথা থাকলেও তা হয়নি। দ্বিতীয় দফায় ২০২২ সালের জুন পর্যন্ত সময় বাড়ানো হয়। মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই তৃতীয় দফায় ২০২৪ সালের জুন পর্যন্ত সময় বাড়ানোর প্রস্তব করা হয়। এ দফায় সময় বেড়েছে এক বছর। অর্থাৎ ২০২৩ সালের জুনে কাজ শেষ হওয়ার কথা ছিল।

আরও পড়ুন: চট্টগ্রামে মাদক মামলায় দুইজনের ১৪ বছরের কারাদণ্ড

প্রকল্প পরিচালক ও চউকের নির্বাহী প্রকৌশলী মাহফুজুর রহমান বলেন, উদ্বোধনের পর যান চলাচলের জন্য পুরোপুরি খুলে দেওয়া হবে না। পুরো কাজ শেষ হতে আর কিছু দিন সময় লাগবে। পতেঙ্গা টানেলের মুখ থেকে টাইগারপাস পর্যন্ত গাড়ি চলাচলের জন্য প্রস্তুত এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে।

বিএনএনিউজ/ বিএম

Loading


শিরোনাম বিএনএ