অবৈধভাবে সরকারি গাছ বিক্রি করে দিলেন ইউপি চেয়ারম্যান

বিএনএ,গোপালগঞ্জ:গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলায় রাতইল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বি.এম হারুন-আর রশীদ পিনু বিশ্বাসের বিরুদ্ধে অবৈধভাবে দুটি সরকারী গাছ বিক্রয় করে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে ।

আরো পড়ুন

বিমানের নতুন এমডি শফিউল আজিম

কাতার ফুটবল বিশ্বকাপে সেমিতে যাওয়ার লড়াই

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার রাতইল বাজারের পশ্চিম পাশে নদীর পাড় ধরে অধিকাংশ সরকারি খাস জমি।এ সরকারি জমির উপর থাকা একটি তালগাছ ও একটি রেইনট্রি গাছ চেয়ারম্যান ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য আনিসুজ্জামান মুন্না মোল্লা কাছে বিক্রি করেন। পরে ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য আনিসুজ্জামান মুন্না মোল্লা গাছ দুটি কেটে নিয়ে যান।

এ ব্যাপারে ইউপি সদস্য আনিসুজ্জামান মুন্না মোল্লা বলেন,২২ হাজার টাকায় একটি তালগাছ ও একটি রেইনট্রি গাছ চেয়ারম্যানের কাছ থেকে কিনেছেন। এটি সরকারি জমির গাছ কি-না তা জানা নেই। তবে ওখানকার নদীর পাড়ের অধিকাংশ জমি খাস বলে জানান তিনি।

তারাইল ইউনিয়ন উপ-সহকারী ভূমি কর্মকর্তা শংকর কুমার বাড়ৈ বলেন, উপজেলার রাতইল ইউনিয়নে সরকারি জায়গার গাছ কাটা হচ্ছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে সেখানে উপস্থিত হয়ে গাছ কাটতে বাঁধা দেয়া হয়। পরে সহকারী কমিশনার (ভূমি) কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলে চৌকিদার লুৎফার শেখের জিম্মায় গাছ দু’টি রেখে আসেন।পরবর্তীতে জানা যায় কাউকে কিছু না জানিয়ে গাছ দুটি কেটে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এ বিষয়ে একটি প্রতিবেদন ইউএনওর কাছে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

কাশিয়ানী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রথীন্দ্র নাথ রায় বলেন, সরকারী গাছ কেটে নেয়ার বিষয়ে তারাইল ভুমি অফিস থেকে একটি প্রতিবেদন পাওয়া গেছে। অনুমতি ছাড়া সরকারি জমির এ গাছ ইউপি চেয়ারম্যান কিভাবে বিক্রয় করলেন আর ইউপি মেম্বার তা কিভাবে কিনলেন এ ব্যাপারে তদন্ত করা হবে। বদন্ত শেষে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

এ বিষয়ে চেয়ারম্যান বি.এম হারুন আর রশীদ পিনু বিশ্বাসের সঙ্গে মুঠোফোনে একাধিকবার চেষ্টা করা হয়। কিন্তু তিনি ফোন ধরেননি।

বিএনএনিউজ/আরকেসি