28 C
আবহাওয়া
৫:১৭ পূর্বাহ্ণ - এপ্রিল ১৩, ২০২৪
Bnanews24.com
Home » নারীর সাথে অশ্লীল ভিডিও চ্যাট ভাইরাল, বরখাস্ত শিক্ষক

নারীর সাথে অশ্লীল ভিডিও চ্যাট ভাইরাল, বরখাস্ত শিক্ষক


বিএনএ, ময়মনসিংহ : ময়মনসিংহের গফরগাঁও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম (ফেসবুক) অশ্লীল ভিডিও চ্যাট ভাইরাল হওয়ার ঘটনায় মো. আল আবেদীন ওরফে আকরাম মাষ্টার নামে এক শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।
মো. আল আবেদীন ওরফে আকরাম মাষ্টার উপজেলার বড়বাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক।

বৃহস্পতিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম তোতা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, গত ১১ ফেব্রুয়ারি বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভায় অভিযুক্ত সহকারী শিক্ষকের সাথে নারীর অনৈতিক ও অশ্লীল ভিডিও ভাইরাল হওয়ার ঘটনায় শিক্ষককে সাময়িক বহিষ্কার হয়েছে। সে নির্দোষ প্রমাণে ব্যর্থ হলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে তার বিরুদ্ধে।

সাময়িক বরখাস্তের চিঠি সূত্রে জানা যায়, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মো. আল আবেদীন ওরফে আকরাম মাষ্টারের অশ্লীল ভিডিও চ্যাট ভাইরাল হয়। এতে বিদ্যালয়ের অভিভাবক, শিক্ষক, কর্মচারী ও এলাকাবাসীর মধ্যে বিদ্যালয় সম্বন্ধে বিরূপ আলোচনা ও সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে। যা বিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হচ্ছে। বিদ্যালয়ের মঙ্গল ও শৃঙ্খলা রক্ষার্থে ওই শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

বিদ্যালয়ের অভিভাবক সদস্য ও উস্থি ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক উজ্জল মিয়া বলেন, যেহেতু শিক্ষকের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি অশ্লীল ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। তাই বিদ্যালয়ের শৃঙ্খলা, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের দাবীর প্রেক্ষিতে মো. আল আবেদীন ওরফে আকরাম মাষ্টারকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, বিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি রক্ষার্থে আমরা বদ্ধ পরিকর। শুধু শিক্ষক আকরাম মাষ্টার নয় কমিটির যদি কেউ এরকম ঘটনা ঘটায় তার বিরুদ্ধেও আমরা ব্যবস্থা নিব।

অভিযুক্ত সহকারী শিক্ষক মো. আল আবেদীন ওরফে আকরাম মাষ্টার বলেন, এটি আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র। একটি মহল আমার বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। আমি তাদের বিরুদ্ধে মামলা করেছি বলে লাইন কেটে দেন।

বড়বাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মমতাজ আক্তার বলেন, স্কুলের সুনাম ও শিক্ষার্থীদের প্রতিবাদের কারণেই ওই শিক্ষককে সাময়িক বহিস্কার করা হয়েছে। ঘটনা তদন্ত করে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. রফিকুল ইসলাম ভূইয়া বলেন, সাময়িক বরখাস্তের চিঠি পেয়েছি। ঘটনাটি খুবই দুঃখ জনক। প্রাতিষ্ঠানিক দায়িত্বে থেকে কেউ এমন কর্মকাণ্ড করলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এই ঘটনা অধিকতর তদন্ত করে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি নারীর সাথে অশ্লীল ভিডিও চ্যাট সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে (ফেসবুক) ছড়িয়ে পড়ে। ভিডিওটি বড়বাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মো. আল আবেদীন ওরফে আকরাম মাষ্টারের বলে অভিযোগ উঠেছে। পরে তাকে বিদ্যালয় থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

বিএনএনিউজ/হামিমুর রহমান/এইচ.এম/এইচমুন্নী

Loading


শিরোনাম বিএনএ