27 C
আবহাওয়া
৬:৫২ অপরাহ্ণ - ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২৪
Bnanews24.com
Home » পরকীয়া প্রেমের জেরে কন্যা খুন, প্রেমিকা হাজতে

পরকীয়া প্রেমের জেরে কন্যা খুন, প্রেমিকা হাজতে

খুন

বিএনএ, চট্টগ্রাম:  পরকীয়া প্রেমের জেরে প্রেমিকার ৭বছরের কন্যা হোছনে আরা আক্তার এলমাকে খুন করে পালিয়েছে মোঃ মনির(৩০) নামে অভিযুক্ত একব্যক্তি।ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে নিহত এলমার মা  বিউটি আক্তার(২৫) কে বন্দর থানা পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে।

বিলম্বে প্রাপ্ত খবরে প্রকাশ, গত১৫ অক্টোবর বিকেলে  বন্দর থানাধীন কলসীদিঘীরপাড়স্থ বালুর মাঠ সংলগ্ন জালাল কলোনীতে এই হত্যাকাণ্ড ঘটে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বন্দর থানার এসআই আরিফ গফুর বিএনএনিউজকে জানান, সোমবার আদালতের মাধ্যমে নিহতের মা বিউটি আক্তার(২৫) কে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। অন্যদিকে নিহত হোছনে আরা আক্তার এলমা(৭)র মরদেহ চট্টগ্রামে ময়না তদন্ত শেষে দাফনের জন্য তার স্বজনরা বাগেরহাট নিয়ে যান।

মামলা সূত্রে জানা যায়, বিউটি আক্তার(২৫)এর সাথে ৯ বৎসর পূর্বে জনৈক মোঃ হাছানের বিয়ে হয়। বিয়ের পর তাদের সংসারে হোছনে আরা আক্তার এলমা(৭) জন্মগ্রহণ করে। স্বামীর সহিত বনিবনা না হওয়ায় তারা দীর্ঘদিন আলাদা থাকেন। বিগত এক বৎসর পূর্বে আসামী রিক্সাচালক মনিরের সাথে পরকিয়া প্রেমে জড়িয়ে পড়ে বিউটি ।

এক পর্যায়ে বাগেরহাট সদর থানা ও জেলার  বাসিন্দা উত্তর কন্ডোলা গ্রামের আয়েবালী হাওলাদারের মেয়ে বিউটি আক্তার মেয়ে এলমা(৭)’কে নিয়ে চট্টগ্রাম শহরে আসে এবং সিইপিজেডস্থ একটি গার্মেন্টসে চাকুরী নেয় । মনির আগে থেকে চট্টগ্রামে রিক্সা চালাত।

আসামীদ্বয় একে অপরকে বিবাহ করবে মর্মে মনস্থ করে স্বামী স্ত্রী পরিচয়ে বন্দর থানাধীন বিভিন্ন এলাকায় বসবাস করতো। এলমা তাদের বিবাহের পথে বাধা হওয়ায় তারা উভয়ে এলমা(৭)’কে মেরে ফেলার সিদ্ধান্ত নেয়। এর প্রেক্ষিতে  এলমাকে উভয়ে প্রায় সময় শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করিতে থাকে।

মামলার বাদী মোঃ ওমর আলী মোল্লা জানান, গত ১৫ অক্টোবর ২০২২ আসামী বিউটি আক্তার গার্মেন্টসে চলে গেলে দুপুরে ২নং আসামী মনির ভাত খাওয়ার জন্য বাসায় যান।  সে সময়ে  আসামী মনির রুমের দরজা বন্ধ করে পূর্ব পরিকল্পনামত ভিকটিম হোছনে আরা আক্তার এলমা(৭)’কে অমানবিক শারীরিক নির্যাতন করে গলাটিপে হত্যা করে।

পরবর্তীতে ১নং আসামী বিউটি সন্ধ্যায় বাসায় ফিরে তার প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র নিয়ে পালাবার চেষ্টাকালে বাসার ইনচার্জ তাকে আটক করে বন্দর থানা পুলিশকে খবর দেন।

বর্তমানে প্রেমিক মোঃ মনির পলাতক। সেও বাগেরহাটের  দক্ষিন কন্ডোলা গ্রামের মৃত আমির আলী মোল্লার পুত্র। মামলার বাদী মোঃ ওমর আলী মোল্লা(৩১) এবং আসামী বিউটি আক্তার ও মনির তিনজনই পরস্পর আত্মীয়।

বিএনএনিউজ২৪, এফ এ, জিএন

 

 

Loading


শিরোনাম বিএনএ