28 C
আবহাওয়া
৫:২৮ পূর্বাহ্ণ - এপ্রিল ১৩, ২০২৪
Bnanews24.com
Home » টেকনাফ সমুদ্র এলাকায় ভেসে এল মৃত শুশুক ও কাছিম

টেকনাফ সমুদ্র এলাকায় ভেসে এল মৃত শুশুক ও কাছিম


বিএনএ, কক্সবাজার : কক্সবাজারের টেকনাফ সমুদ্রসৈকত এলাকায় মৃত অবস্থায় ভেসে এসেছে শুশুক এবং একটি অলিভ রিডলি মা কাছিম। শুশুকটির দৈর্ঘ্য ৪ ফিট ৯ ইঞ্চি এর ওজন প্রায় ৪৫ কেজি।এটি ইন্দোপ্যাসিফিক ফিনলেস প্রজাতির।

রোববার (৩ মার্চ) রাতে টেকনাফ সমুদ্র সৈকতের শামলাপুর চৌকিদারপাড়ায় মৃত সামুদ্রিক প্রাণীদুটি সমুদ্রের জোয়ারের তোড়ে ভেসে আসে।

রোববার (৩ মার্চ) সন্ধ্যায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশ সমুদ্র গবেষণা ইন্সটিটিউট (বোরি) এর জ্যেষ্ঠ বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা তরিকুল ইসলাম।

তিনি বলেন, টেকনাফের শামলাপুর এলাকায় একটি শুশুক ও কাছিম মৃত অবস্থায় ভেসে আসে। শুশুকের দৈর্ঘ্য ৪ ফিট ৯ ইঞ্চি এবং এর ওজন প্রায় ৪৫ কেজি৷ এটি ইন্দোপ্যাসিফিক ফিনলেস প্রজাতির। এছাড়া ভেসে আসা কাছিমটি অলিভ রিডলি প্রজাতির । সংবাদ পেয়ে বোরির একটি উদ্ধারকারী টিম মৃত শুশুক এবং কাছিমটি উদ্ধার করে বোরির ক্যাম্পাসে নিয়ে আসা হয়৷

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের সুগন্ধা পয়েন্টে আরও একটি মৃত শুশুক ভেসে এসেছিল। জানুয়ারি থেকে ৩ মার্চ পর্যন্ত কক্সবাজারের উপকূলীয় অঞ্চলে ভেসে এসেছে অন্তত ১০০ মৃত কাছিম।

বাংলাদেশ সমুদ্র গবেষণা ইনস্টিটিউট (বোরি) এর মহাপরিচালক অধ্যাপক ড. তৌহিদা রশীদ বলেন, প্রাণী গুলোর মৃত্যুর কারণ অনুসন্ধানে ফরেনসিক নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। ফরেনসিক রিপোর্ট পাওয়ার পরই মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে। প্রাণীগুলোর আবাসস্থলে কোনো বড় ধরনের সমস্যা হয়েছে কি না, তাও অনুসন্ধান করা হচ্ছে।

২০১২ সালের বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী (সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা) আইনে স্তন্যপায়ী ডলফিন, পরপইস ও সামুদ্রিক কচ্ছপ সংরক্ষিত প্রজাতি হিসেবে তালিকাভুক্ত। এগুলো শিকার করা, খাওয়া, অঙ্গ প্রত্যঙ্গ পরিবহন ও ক্রয় বিক্রয় করা দণ্ডনীয় অপরাধ।

বিএনএ/ এইচএম ফরিদুল আলম শাহীন, ওজি

Loading


শিরোনাম বিএনএ