মমেক হাসপাতাল থেকে ছোটমনি নিবাসে সেই নবজাতক

বিএনএ, ময়মনসিংহ: ময়মনসিংহের ত্রিশালে ট্রাক চাপায় মায়ের পেট ফেটে সড়কে জন্ম নেওয়া সেই নবজাতককে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল (মমেক) থেকে আজিমপুর ছোটমনি নিবাসে পাঠানো হয়েছে। শিশুটিকে লালন পালনে পরিবারের সামর্থ্য না থাকায় জন্মের ১৪ দিন পর চিকিৎসা শেষে শুক্রবার সকালে শিশুটিকে হস্তান্তর করে চিকিৎসকরা। গত ১৬ জুলাই ত্রিশালে একটি সড়ক দুর্ঘটনায় মা, বাবা এবং বোন মারা গেলেও অলৌকিক ভাবে ভুমিষ্ঠ হয় এই নবজাতক।

আরো পড়ুন

বিমানের নতুন এমডি শফিউল আজিম

কাতার ফুটবল বিশ্বকাপে সেমিতে যাওয়ার লড়াই

গত ১৬ জুলাই আলট্রাসোনগ্রাম করতে এসে ট্রাকের চাকায় পৃষ্ট হয়ে প্রাণ হারান ত্রিশাল উপজেলার রাইমনি গ্রামের জাহাঙ্গীর আলম (৪০), তার অস্তঃসত্ত্বা স্ত্রী রত্না আক্তার (৩০), মেয়ে সানজিদা আক্তারকে (৬)। এসময় ট্রাক চাপায় রত্নার পেট ফেটে কন্যাশিশুর জন্ম হয়। পরে শিশুটিকে উদ্ধার করে প্রথমে বাংলাদেশ কমিউনিটি বেজড মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও পরে শহরের লাবীব হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শিশুটির শারীরিক অবস্থা অবনতি হওয়ায় ১৮ জুলাই রাতে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের এনআইসিউ বিভাগে ভর্তি করা হয়। পরে সেখানে শিশুটির চিকিৎসার জন্য পাঁচ সদস্যের মেডিকেল টিম গঠন করা হয়। শিশুটির জন্ডিস, শ্বাসকষ্ট এবং রক্তস্বল্পতা ভালো হওয়ায় ছুটি দেয় চিকিৎসকরা। তবে ডান হাত এবং পায়ের ভাঙা ভালো হতে আরো দুই সপ্তাহ সময় লাগবে। শিশুটির পরিচর্যা করতে পেরে আল্পুত চিকিৎসকরা।

বিএনএ/ হামিমুর রহমান , ওজি