২০২০ সালে বলিউডের ১০ সেরা অভিনেতা ও সেরা ১০ নায়িকা

এক নজরে ফিরে দেখা ২০২০ বিনোদন সব খবর

বিএনএ, বিনোদন ডেস্ক : করোনা মহামাহির কারণে বলিউডের ইন্ডাস্ট্রিতে তেমন সুবাতাস না বইলেও ২০২০ সালের বছর জুড়ে আলোচনায় ছিল বি-টাউন। এবার নতুন সিনেমা মুক্তির চাইতে ‘স্বজন পোষণ’ আর ‘মাদক’ ইস্যুতে আলোচনায় ছিলো বলিউড। তবে এ বছর বলিউডে মুক্তি পেয়েছে ৯২টি সিনেমা। মুক্তির অপেক্ষায় আছে আর ৪টি। এরই মধ্যে ২০২০ সালের বলিউডে সেরা দশ অভিনেতার তালিকায় যাদের নাম প্রকাশ করেছে বলিইনসাইড তাদের বিবরণ দেওয়া গেল……

অমিতাভ বচ্চন: বি-টাউনের সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং সফল অভিনেতা অমিতাভ বচ্চন। ভক্তরা তাকে ‘বিগ বি’ বলেও ডাকে। সেরা দশ অভিনেতার তালিকায় এক নম্বরে আছেন তিনি। অভিনয়ের পাশপাশি উপস্থাপনা এবং গায়ক হিসেবেও দেখা গিয়েছিল তাকে। ক্যারিয়ারে স্বীকৃতি হিসেবে অনেক সম্মাননা পেয়েছেন তিনি। ১৯৪২ সালে জন্ম নেওয়া এ অভিনেতা বলিউডে পা রাখেন ১৯৬৯ সালে। ‘সাত হিন্দুস্তানি’ শিরোনামের সিনেমায় প্রথম অভিনয় করেন তিনি।

শাহরুখ খান: বলিউড বাদশা শাহরুখ খান দীর্ঘদিন সেরাদের তালিকার এক নম্বরে ছিলেন। বহু সিট সিনেমা উপহার দিয়ে নিজের অবস্থান ধরে রেখেছেন তিনি। তিনি ভক্তদের কাছে ‘কিং অব বলিউড’ এবং ‘কিং অব রোমান্স’ নামেও পরিচিতি। ২ নভেম্বর ১৯৬৬ সালে জন্ম গ্রহণ করা এ অভিনেতা কর্মজীবনে প্রবেশ করেন ১৯৮৮ সালে। টেলিভিশন ধারাবাহিক ‘দিল দরিয়া’ দিয়ে অভিনয় ক্যারিয়ার শুরু করেন শাহরুখ।

আমির খান: বলিউড ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে যাদের অবদান সবচেয়ে বেশি তাদের মধ্যে অন্যতম আমির খান। ১৯৭৩ সালে শিশুশিল্পী হিসেবে অভিনয় ক্যারিয়ার শুরু করেন আমির। তিনি একাধারে একজন অভিনেতা, প্রযোজক, পরিচালক, চিত্রনাট্যকার ও টেলিভিশন উপস্থাপক। ৫৫ বছর বয়সী এ অভিনেতা ৪৬টি সিনেমায় অভিনয় করেছেন। নেপথ্য গায়ক হিসেবে কণ্ঠ দিয়েছেন পাঁচটি সিনেমায়। প্রযোজনা করেছেন সাতটি সিনেমা আর পরিচালনা করেছেন তিনটি সিনেমা।

অক্ষয় কুমার: ৫৩ বছর বয়সী অভিনেতা অক্ষয় কুমার আছেন ২০২০ সালের সেরা দশ অভিনেতার তালিকায় চার নম্বরে। ১৯৮৭ সালে অভিনয় ক্যারিয়ার শুরু করেছেন অক্ষয়। এখন পর্যন্ত অভিনয় করেছেন প্রায় শতাধিক সিনেমায়। অক্ষয়ের প্রকৃত নাম রাজিব হরি ওম ভাটিয়া।
সালমান খান: তালিকার পাঁচ নম্বরে আছেন সালমান খান। ১৯৮৮ সালে প্রথম সিনেমায় অভিনয় করেন সালমান। বলিউডের শক্তিমান অভিনেতাদের মধ্যে অন্যতম তিনি। ভক্তরা তাকে ভালোবেসে ‘বলিউড ভাইজান’, ‘সাল্লু ভাই’ এবং ‘বলিউড সুলতান’ বলেও ডাকেন। বলিউডের জনপ্রিয় এ অভিনেতার আসল নাম আবদুর রশিদ সালিম সালমান খান।

অজয় দেবগান: অজয় দেবগান একজন ভারতীয় অভিনেতা, পরিচালক এবং প্রযোজক। ১৯৯১ সালে অভিষেক হয় তার। প্রথম সিনেমা ‘ফুল অউর কাঁটে’-তে অভিনয় করে ফিল্মফেয়ার পুরস্কার জিতে নেন তিনি। অভিনয়ের স্বীকৃতি হিসেবে ২০১৬ সালে ভারত সরকার কর্তৃক ‘পদ্মশ্রী’ সম্মাননা পেয়েছেন তিনি। ৫১ বছর বয়সী এ অভিনেতার জন্ম ২ এপ্রিল ১৯৬৯। সেরা দশ অভিনেতার তালিকায় ছয় নম্বরে আছেন তিনি।

ইরফান খান: তালিকার সাত নম্বরে আছেন প্রয়াত অভিনেতা ইরফান খান। ১৯৮৫ সালে অভিনয় ক্যারিয়ার শুরু করেন ইরফান। ‘সালাম বম্বে’ সিনেমায় প্রথম অভিনয় করেন তিনি। সবশেষ তাকে দেখা যায় ২০২০ সালে ‘আংরেজি মিডিয়াম’ সিনেমায়। ২০১১ সালে পদ্মশ্রী পুরস্কার পেয়েছিলেন ইরফান। ২৯ এপ্রিল ২০২০ সালে না ফেরার দেশে চলে যান তিনি।

রণবীর কাপুর: তালিকার সবশেষে আছেন রণবীর কাপুর। ৩৮ বছর বয়সী এ অভিনেতা জন্মগ্রহণ করেন ১৯৮২ সালে। স্টারকিড হিসেবে যারা পরিচিত তাদের মধ্যে রণবীর অন্যতম। ঋষি কাপুরের ছেলে রণবীর সিনেমায় পা রাখেন ২০০৭ সালে। ‘সাওয়ারিয়া’ সিনেমায় ‘রাজ’ চরিত্রে প্রথম অভিনয় করেন তিনি।

হৃত্বিক রোশান: পরিচিত অভিনেতা হৃত্বিক রোশান আছেন তালিকার আট নম্বরে। ১৯৮০ সালে অভিনয় ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন হৃত্তিক। ‘কাহো না পেয়ার হ্যায়’ সিনেমায় অভিনয় করে ভাগ্য বদলে যায় তার। সিনেমাটি বক্স অফিসে ব্যাপক সাড়া ফেলেছিল। তারপর আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি হৃত্বিককে। ২০১৯ সালে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক একটি এজেন্সির জরিপে বিশ্বের সবচেয়ে হ্যান্ডসাম পুরুষের খেতাব অর্জন করেন তিনি। ১৯৭৪ সালের ১০ জানুয়ারি জন্মগ্রহণ করেন তিনি।

রণবীর সিং: ৩৫ বছর বয়সী এ অভিনেতা এ সময়ে দারুণ জনপ্রিয় বি-টাউনে। ২০১০ সালে ‘ব্যান্ড বাজা বারাত’ সিনেমায় অভিনয় করে অভিষেক হয় তার। প্রথম সিনেমায় অভিনয় করে তিনিও ফিল্মফেয়ার পুরস্কার জিতে নেন। বর্তামানে বলিউডে সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক নেওয়া নায়কদের মধ্যে তিনি অন্যতম।

তবে করোনা মহামারির কারণে এবার নতুন মুখের আগমন খুব একটা হয়নি বলিপাড়ায়। পুরাতন নায়িকাদের দখলেই ছিল মাঠ। সম্প্রতি ২০২০ সালের বলিউডের সেরা ১০ নায়িকার তালিকা প্রকাশ করেছে বলিইনসাইড।

দীপিকা পাড়ুকোন: এই মুহূর্তে বি-টাউনের সেরা নায়িকা দীপিকা পাড়ুকোন। এ ব্যাপারে কারও সন্দেহ নেই। তাই তালিকার এক নম্বরে আছে তার নাম। ১৯৮৬ সালের ৫ জানুয়ারি জন্মগ্রহণ করেন দীপিকা। ২০০৬ সালে ‘ঐশ্বরিয়া’ সিনেমায় অভিনয় করে অভিষেক ঘটে তার। তিনি পরিচিতি পান ২০০৭ সালে ‘ওম শান্তি ওম’ সিনেমায় অভিনয় করে।

ক্যাটরিনা কাইফ: তালিকার দ্বিতীয় অবস্থানে আছেন ক্যাটরিনা কাইফ। বলিউডের পাশাপাশি তেলেগু এবং মালায়ালাম ইন্ডাস্ট্রিতেও সমান পরিচিত তিনি। ১৪ বছর বয়সে মডেলিংয়ের মাধ্যমে শোবিজ দুনিয়ায় আগমন ঘটে তার। বড় পর্দায় ২০০৩ সালে অভিষেক হলেও বলিউডে পা রাখেন ২০০৫ সালে। সালমান খানের বিপরীতে ‘ম্যায়নে পেয়ার কউন কিয়া’ সিনেমায় দেখা যায় তাকে। তারপর ক্যাটরিনাকে আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। ৩৭ বছর বয়সী এ অভিনেত্রী জন্মগ্রহণ করেন ১৯৮৩ সালের ১৬ জুলাই।

আনুশকা শর্মা: নামই তার পরিচয়। নতুন করে তাকে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার কিছু নেই। অভিনয় দক্ষতা দিয়ে খুব অল্প সময়ে বি-টাউনের সেরা হয়ে উঠেছেন আনুশকা। সুন্দরী এ নায়িকার বয়স ৩২। ১৯৮৮ সালের ১ মে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। মডেলিং থেকে সিনেমায় এসেছেন আনুশকা। তার প্রথম সিনেমা ‘রব নে বানা দি জোড়ি’। ২০০৮ সালে মুক্তি পায় এটি। প্রথম সিনেমা দিয়েই মাত করেন আনুশকা। তালিকার তিন নম্বরে আছেন তিনি।

প্রিয়াঙ্কা চোপড়া: সাবেক বিশ্বসুন্দরী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। চলতি বছর সেরা ১০ নায়িকার তালিকায় চার নম্বরে তার অবস্থান। বলিউডের পাশাপাশি হলিউডের সিনেমাতেও কাজ করছেন প্রিয়াঙ্কা। অভিনয়ের পাশাপাশি গায়িকা হিসেবেও নাম কুড়িয়েছেন তিনি। অনেক হিট সিনেমা আছে তার ঝুলিতে। ৩৮ বছর বয়সী এ নায়িকা জন্মগ্রহণ করেছেন ১৯৮২ সালের ১৮ জুলাই।

শ্রদ্ধা কাপুর: ৩১ বছর বয়সী এ নায়িকা জন্মগ্রহণ করেন ১৯৮৯ সালের ৩ মার্চ। বলিউডে তার আত্মপ্রকাশ ২০১০ সালে ‘টীন পাটি’ সিনেমার মাধ্যমে। বর্তমানে ‘স্ট্রিট ড্যান্সার’ শিরোনামের একটি সিনেমায় অভিনয় করছেন তিনি। শ্রদ্ধা কাপুর বলিউডের সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক নেওয়া নায়িকাদের মধ্যে অন্যতম। পরপর হিট সিনেমা উপহার দিয়ে নিজের অবস্থান ধরে রেখেছেন শ্রদ্ধা। সেরা ১০ নায়িকার তালিকা ৫ নম্বরে তার অবস্থান।

আলিয়া ভাট: স্টার কিড হিসেবেই বেশি পরিচিত আলিয়া। পরিচালক মহেশ ভাটের মেয়ে। করণ জোহরের হাত ধরে বলিউডে পা রাখেন আলিয়া। ‘স্টুডেন্ট অব দ্য ইয়ার’ তার অভিনীত প্রথম সিনেমা। ক্যারিয়ারে বেশকিছু ব্লকবাস্টার সিনেমা উপহার দিয়েছেন ২৭ বছর বয়সী আলিয়া।

কঙ্গনা রানাওয়াত: এই মুহূর্তে বলিউডের সবচেয়ে আলোচিত অভিনেত্রী কঙ্গনা। বিভিন্ন ইস্যুতে কিছুদিন পর পর খবরের শিরোনামে আসে তার নাম। ভারতের চলমান কৃষক আন্দোলন নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করায় এই মুহূর্তে সমালোচিত তিনি। ১৯৮৭ সালের ২৩ মার্চ জন্ম কঙ্গনার। বলিউডের সর্বোচ্চ পারিশ্রমিকের নায়িকাদের মধ্যে অন্যতম তিনি। ২০০৬ সালে মডেলিং দিয়ে ক্যারিয়ার শুরু করার পর মোট ৩বার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন কঙ্গনা। তালিকার সাত নম্বরে আছেন তিনি।

কৃতি শ্যানন: সেরা ১০ নায়িকার তালিকায় আট নম্বরে আছেন কৃতি শ্যানন। মডেলিংয়ের মাধ্যমে মিডিয়ায় অভিষেক তার। প্রথম সিনেমায় অভিনয় করেন ২০১৪ সালে। ৩০ বছর বয়সী এ নায়িকা ১০ বছর ক্যারিয়ারে কাজ করেছেন খুব কম সিনেমায়। হিন্দি ও তেলেগু ভাষায় সবমিলিয়ে ১৪টি সিনেমায় দেখা গেছে তাকে।

জ্যাকুলিন ফার্নান্দেজ: বি-টাউনের অন্যতম সুন্দরী অভিনেত্রী জ্যাকুলিন ফার্নান্দেজ। মন ভোলানো হাসির জন্য সহজেই তরুণদের হৃদয়ে জায়গা করে নেন তিনি। ২০০৬ সালে বলিউডে পা রাখেন জ্যাকুলিন। ‘আলাদিন’ সিনেমায় জেসমিন চরিত্রে দেখা গেছে তাকে।

কারিনা কাপুর খান: তালিকার সবচেয়ে শেষে আছেন এ অভিনেত্রী। বলিউডের সবচেয়ে মুগ্ধকারী অভিনেত্রী হিসেবে পরিচিত তিনি। শুরুর দিকে ধীরগতিতে খেলে, এখন লম্বা রেসের ঘোড়ায় পরিণত হয়েছেন কারিনা। ২০০০ সালে ‘রিফিউজি’ সিনেমায় অভিষেক হয় কারিনার। ৪০ বছর বয়সে এসেও সমান আবেদনময়ী এ অভিনেত্রী।

বিএনএনিউজ/জেবি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *