ইতিহাস বিভাগ অনুমোদনের দাবিতে বশেমুরবিপ্রবিতে অবস্থান কর্মসূচি

বিএনএ, বশেমুরবিপ্রবি: ইতিহাস বিভাগ অনুমোদনের দাবিতে আবারো অবস্থান কর্মসূচি পালন করছে গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) শিক্ষার্থীরা। বুধবার (২৫ আগস্ট) বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের দ্বিতীয় তলায় অবস্থান নেয় বিভাগটির প্রায় অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থী।

আরো পড়ুন

ঢাকায় আসলেন বেলজিয়ামের রানি

তুরস্কে ভূমিকম্পে নিহত ১০,বাড়ছে মৃতের সংখ্যা

বেলজিয়ামের রাণী আজ ঢাকা আসছেন

অবস্থানরত ইতিহাস বিভাগ দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী শরিফুল ইসলাম সোহাগ বলেন, “৪ বছর যাবত আমাদের বিভাগটি অনুমোদনহীন ভাবে চলছে। ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরে সাবেক উপাচার্য ড. খোন্দকার নাসিরউদ্দিন পদত্যাগের পর থেকে আমরা অনুমোদনের দাবিতে আন্দোলন শুরু করি। এসময় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এবং বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) থেকে বারবার অনুমোদনের আশ্বাস প্রদান করা হলেও আজও তা কর্যকর করা হয়নি। এমনকি ইউজিসি কর্তৃক ইতিহাস বিভাগকে অনুমোদন প্রসঙ্গে একটি বিশেষজ্ঞ কমিটিও গঠন করা হয়। কিন্তু উক্ত কমিটি এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত কিছুই করেনি। ইউজিসির এমন কার্যক্রমে আমরা হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়েছি। আগামি ১৭ সেপ্টেম্বরের ভিতর অনুমোদন প্রদান না করলে আমরা আরো কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করব।”

ইতিহাস বিভাগের আরেক ৩য় বর্ষের শিক্ষার্থী কারিমুল হক বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এবং ইউজিসির কাছে প্রশ্ন রেখে বলেন, “একটি বিভাগ প্রায় দুইবছর আন্দোলন করে যাচ্ছে। দুই বছর সময় কি একটি বিভাগ অনুমোদনের জন্য যথেষ্ট সময় নয়? যেখানে অনলাইন কার্যক্রম চালিয়েও নতুন বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমোদন প্রদান করা হচ্ছে। আমরা দিন দিন অনেক বেশিই হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়ছি। ইতোপূর্বে বিশ্ববিদ্যালয়ের কালো অধ্যায়ে আত্মহত্যা ঘটনার ইতিহাস রয়েছে। তাই চাই না ভবিষ্যতে এমন ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটুক। ১৭ সেপ্টেম্বর অনুমোদন না হলে বিশ্ববিদ্যালয় নতুন এক ইতিহাস পরিবার দেখবে।”

বিষয়টি নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য ড. এ. কিউ. এম মাহবুবের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, “অনুমোদনের জন্য আমরা আবেদন পাঠিয়েছি তবে প্রতি উত্তর পায়নি। আমাদের পক্ষ থেকে যতটুকু করা সম্ভব আমরা করেছি।”

উল্লেখ, বশেমুরবিপ্রবির সাবেক উপাচার্য ড. খোন্দকার নাসিরউদ্দিন বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) থেকে অনুমোদন না নিয়েই বিশ্ববিদ্যালয়ে ইতিহাস বিভাগ খুলে শিক্ষার্থী ভর্তি করেন। বর্তমানে বিভাগটিতে ৪১৩ জন শিক্ষার্থী অধ্যয়নরত রয়েছেন।

বিএনএনিউজ/ফাহীসুল হক,মনির