মালয়েশিয়ার নতুন প্রধানমন্ত্রী আনোয়ার ইব্রাহিম

মালয়েশিয়ার নতুন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিতে যাচ্ছেন ৭৫ বছর বয়সি রাজনীতিক আনোয়ার ইব্রাহিম।দেশটির ১০ম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে বৃহস্পতিবার(২৪নভেম্বর) স্থানীয় সময় বিকেল ৫টায় আনোয়ার ইব্রাহিম শপথ গ্রহণ করবেন। তিনি দেশটির পাতাকান হারাপান জোটের নেতা ও সাবেক উপপ্রধানমন্ত্রী। আনোয়ার ইব্রাহীম ছয় সন্তানের জনক এবং তার স্ত্রী ওয়ান আজিজাহ ওয়ান ইসমাইলীও দেশটির সাবেক উপ্রধানমন্ত্রী।

আনোয়ার ইব্রাহীম একজন ইসলামপন্থী নেতা (যিনি মুসলিম ইয়ুথ মুভমেন্ট অব মালয়েশিয়ার সহযোগী প্রতিষ্ঠাতা ও ২য় সভাপতি) হওয়ার পরেও ১৯৮২ সালে প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদের উদারপন্থী দল ইউনাইটেড মালয় ন্যাশনাল অরগনাইজেশন এ যোগ দেন এবং সংস্কৃতি মন্ত্রীর দায়িত্ব লাভ করেন। ১৯৮৩ সালে যুব ও ক্রীড়ামন্ত্রী, ১৯৮৪ সালে কৃষি মন্ত্রী এবং ১৯৮৬ সালে শিক্ষা মন্ত্রী হন। ১৯৯৩-১৯৯৮ সাল পর্যন্ত মালয়েশিয়ার উপ-প্রধানমন্ত্রী ছিলেন।

১৯৪৭ সালের ২০ এপ্রিল  তিনি দেশটির বুকিত মারটাজাম,পেনাংয়ে জন্ম গ্রহণ করেন।

আনোয়ার ইব্রাহিমের এক সময়ে গুরু ছিলেন মাহাথির মোহাম্মদ। গুরু শিষ্যের আপ্রাণ চেষ্টায় ১৯৮১ সালে ক্ষমতায় আসে দল ইউনাইটেড মালায়স ন্যাশনাল অর্গানাইজেশন। প্রধানমন্ত্রী হন মাহাথির মোহাম্মদ। কিন্তু ধীরে ধীরে দলের মধ্যে শক্তিশালী হয়ে ওঠে আনোয়ার ইব্রাহিম।

মাহাথিরের পরে দলে বড় ফ্যাক্টর হয়ে ওঠেন তিনি। ১৯৯৮ সালে আনোয়ারকে উপ-প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে বরখাস্ত করেন মাহাথির। পরে তাঁর বিরুদ্ধে আনা হয় সমকামিতা ও দুর্নীতির অভিযোগ। নেয়া হয় কারাগারে। গুরু-শিষ্যের এই বিচ্ছেদ থেকে শুরু হয় আনোয়ার ইব্রাহিমের একক সংগ্রামী জীবন। প্রায় ২০ বছর সংগ্রাম করে নিজের রাজনৈতিক ভিত্তি গড়ে তোলেন আনোয়ার ইব্রাহিম।

সদ্য অনুষ্ঠিত মালয়েশিয়ার নির্বাচনে কোনো দলই সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করতে পারে নি।আনোয়ার ইব্রাহীমের পাকাতান হারাপান (পিএইচ বা অ্যালায়েন্স অব হোপ) ২২২ সদস্যবিশিষ্ট পার্লামেন্টে ৮২টি আসন, মহিউদ্দিন ইয়াসিনের মালয়ভিত্তিক পেরিকাতান ন্যাশনাল বা ন্যাশনাল অ্যালায়েন্স ৭৩টি আসন এবং  প্রধানমন্ত্রী ইসমাইল সাবরি ইয়াকুবের ইউনাইটেড মালয়স ন্যাশনাল অর্গ্যানাইজেশন (ইউএমএনও) পার্টি পেয়েছে মাত্র ৩০টি আসন।

বিএনএনিউজ২৪,এসজিএন