Bnanews24.com
Home » তালেবান সরকারের ১০০দিন
আন্তর্জাতিক আফগানিস্তান টপ নিউজ সব খবর

তালেবান সরকারের ১০০দিন

নিয়মিত সেনাবাহিনী গঠন করবে তালেবান

বিএনএ, বিশ্বডেস্ক: আফগানিস্তানের কাবুল দখলের ১০০ দিন পূর্ণ করলো তালেবান সরকার। চলতি বছরের ১৫ আগস্ট কাবুল দখলে নেয় তালেবান। বর্তমানে যুদ্ধ বিধ্বস্ত দেশটিতে নানান সংকট আরো তীব্র হয়েছে। তাইতো দেশটির অর্থনৈতিক সংকটের ব্যাপারে আবারো হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছে জাতিসংঘ।

সংস্থাটি জানানিয়েছে, অর্থনৈতিক ও ব্যাংকিং ব্যবস্থা পতনের দ্বারপ্রান্তে রয়েছে আফগানিস্তান। এই পরিস্থিতিতে, দেশটিকে প্রায় ৩ কোটি ডলার সহায়তার আশ্বাস দিয়েছে পাকিস্তান। এছাড়া আফগানিস্তানের সঙ্গে সম্পর্ক আরও শক্তিশালী করার লক্ষ্যে ‘আফগানিস্তান ইন্টার মিনিস্ট্রিয়াল কোঅর্ডিনেশন সেল’ (এআইসিসি) নামে একটি নতুন দপ্তর খুলেছে পাকিস্তান।

গত তিন মাস ধরে তালেবানের দখলে আফগানিস্তান। আশরাফ ঘানি সরকারকে উচ্ছেদ করে চলতি বছরের আগস্টে তালেবান শাসকগোষ্ঠী ফের আফগানিস্তানে নিজেদের আধিপত্য কায়েম করে। কিন্তু এই সরকারকে যুক্তরাষ্ট্র-ব্রিটেন-সহ বেশির ভাগ দেশই এখনো স্বীকৃতি দেয়নি। এমনকি অর্থ ও ত্রাণ সহায়তাও বন্ধ করে দিয়েছে আর্ন্তজাতিক সম্প্রদায় । কব্জা করে রেখেছে আফগানিস্তানের সম্পদও। এই পরিস্থিতিতে বিদেশি সাহায্যের উপর নির্ভরশীল আফগানিস্তান ক্রমে দরিদ্র থেকে দরিদ্রতর হচ্ছে।

আফগানিস্তানের অর্থনৈতিক সংকটের ব্যাপারে হুঁশিয়ারি দিয়ে জাতিসংঘ বলেছে, দেশটির অর্থনৈতিক ও ব্যাংকিং ব্যবস্থা পতনের দ্বারপ্রান্তে রয়েছে। নিউইয়র্কের স্থানীয় সময় সোমবার জাতিসংঘ মহাসচিবের মুখপাত্র স্টিফেন দুজারিক এ হুঁশিয়ারি দেন। তিনি বলেন, জাতিসংঘের উন্নয়ন কর্মসূচি ঘোষণা করেছে যে, আফগানিস্তানের ক্রেডিট মার্কেটে অনাদায়ী ঋণের পরিমাণ ২০২০ সালে যেখানে ছিল শতকরা ২০ ভাগ তা চলতি বছরে ৫৭ শতাংশে এসে দাঁড়িয়েছে।

জাতিংসঘের আশঙ্কা, এভাবে চলতে থাকলে কাবুলিওয়ালার দেশে অচিরেই দুর্ভিক্ষ দেখা দেবে। বিশেষ করে দেশটির ব্যাংকিং খাতে বিরাট ধস নেমেছে। জানা গেছে, দেশটির ক্রেডিট মার্কেটে অনাদায়ী ঋণের পরিমাণ এক বছরে ২০ থেকে ৫৭ শতাংশে এসে দাঁড়িয়েছে।

তবে আফগানিস্তানের এমন দুর্বিসহ পরিস্থিতিতে এগিয়ে এসেছে পাকিস্তানসহ কয়েকটি দেশ। যুদ্ধ বিধ্বস্ত দেশটিকে চিকিৎসা, খাদ্যসহ নানান মানবিক চাহিদা মেটানোর জন্য ২ কোটি ৮০ লাখ ডলার এই অর্থ দিচ্ছে প্রতিবেশী পাকিস্তান। এছাড়া পাকিস্তানের মধ্য দিয়ে ভারতীয় সহায়তা আফগানিস্তানে প্রবেশের অনুমোদন দিয়েছে ইমরান খানের সরকার।

বিএনএ/এমএফ