28 C
আবহাওয়া
৫:৩৮ পূর্বাহ্ণ - এপ্রিল ১৩, ২০২৪
Bnanews24.com
Home » চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় বাইডেন-জয়া দম্পতির নতুন তিন অতিথি

চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় বাইডেন-জয়া দম্পতির নতুন তিন অতিথি

চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় বাইডেন-জয়া দম্পতির নতুন তিন অতিথি

বিএনএ, চট্টগ্রাম: চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানার বাঘ দম্পতি জো বাইডেন ও জয়া তিনটি শাবকের জন্ম দিয়েছে।  শুক্রবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানার বাঘ জো বাইডেন ও বাঘিনী জয়ার ঘরে এই তিন বাঘ শাবক জন্মগ্রহণ করে। এ তিনটিসহ চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় বাঘের সংখ্যা দাঁড়ালো ১৭টিতে।

বর্তমানে তারা মায়ের সঙ্গে আছে। সপ্তাহখানেক পর লিঙ্গ নির্ধারণ করা যাবে। তিনটিই হলুদ ডোরাকাটা। অন্যদিকে জয়ার জন্ম হয় ২০১৮ সালের জুলাই মাসে। বাইডেন বড় হওয়ার পর জয়ার সঙ্গে তাকে একই খাঁচায় রাখা হয়। এরপর শুক্রবার তাদের ঘরে আসে তিনটি শাবক।

এ নিয়ে চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় গত আট বছরে ১৯টি বাঘের জন্ম হলো। এর মধ্যে দুটি ঢাকা চিড়িয়াখানায় পাঠানো হয়। বর্তমানে বাঘের সংখ্যা ১৭। এর মধ্যে পাঁচটি সাদা বাঘ রয়েছে। চিড়িয়াখানায় ২০১৬ সালে আফ্রিকা থেকে আমদানি করা রাজ-পরী নামের এক জোড়া বাঘের বংশবিস্তারের মধ্য দিয়ে বাঘের সংখ্যা বাড়তে থাকে।

এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানার ডেপুটি কিউরেটর ও চিকিৎসক শাহাদাত হোসেন শুভ।

চট্টগ্রামের পশুপ্রেমীদের কাছে বেশ আলোচিত একটি নাম ‘জো বাইডেন’। রাজ-পরীর ঘরে ২০২০ সালের ডিসেম্বরে জন্ম নেওয়া বাঘটির নাম রাখা হয়েছিল আমেরিকার প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের নামে। জন্মের পর মা পরী বাইডেনকে দুধ দিত না। অবহেলা করত। পরে চিড়িয়াখানার ভারপ্রাপ্ত কিউরেটর শাহদাত হোসেন ও অন্যদের যত্নে বাইডেন আস্তে আস্তে বড় হয়ে ওঠে।

চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় বাইডেন-জয়া দম্পতির নতুন তিন অতিথি
চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানা

শাহদাত হোসেন বলেন, মানুষের হাতে লালনপালন হয়ে পুনরায় বাঘ পরিবারের সঙ্গে একত্রিত হওয়ার মাধ্যমে বংশবিস্তার করার চক্র একটি বিরল ঘটনা, যার সম্পূর্ণ কৃতিত্ব বাঘ জো বাইডেনের। যে বাঘিনী জয়ার ঘরে জো বাইডেনের তিন শাবক জন্ম নিয়েছে, তার ঘরেই ২০২০ সালের ১৪ নভেম্বর জন্ম নিয়েছিল জো বাইডেন। ওই সময়েও জো বাইডেনসহ তিনটি শাবকের জন্ম দিয়েছিল জয়া।

তবে শাবকগুলোকে মা দুধ খেতে না দেওয়ায় পরদিন একটি এবং ১৮ নভেম্বর আরও একটি শাবক মারা যায়। জীবিত থাকা একমাত্র শাবকটিকে মায়ের কাছ থেকে সরিয়ে নিয়ে আলাদা করে কোয়ারেন্টিন সেন্টারে রাখা হয়। জন্মের পর মাতৃস্নেহবঞ্চিত এই বাঘ বেড়ে উঠেছিল মানুষের আদর যত্নেই। সেখানে তাকে হাতে ধরে খাওয়ানো হয় ফিডারের দুধ। সেই সময় কোয়ারেন্টিন সেন্টারে মানুষের বাচ্চার মতোই খেলনা দিয়ে খেলাধুলা করছিল শাবকটি।

এবারও জয়ার ঘরে জন্ম নেওয়া বাঘ শাবকগুলো মাতৃস্নেহবঞ্চিত হওয়ার সম্ভাবনা আছে কি-না, জানতে জাইলে চিকিৎসক বলেন, জো বাইডেনের পর জয়া আরও তিনটি শাবক জন্ম দিয়েছিল। সেই শাবকগুলোকে স্বাভাবিকভাবেই লালনপালন করেছিল জয়া। কাজেই এবারও ভিন্ন কিছু হবে বলে মনে করছি না। পরিস্থিতি স্বাভাবিক আছে।

প্যারিস জলবায়ু পরিবর্তন চুক্তিতে স্বাক্ষর করায় আমেরিকার প্রেসিডেন্টের সম্মানার্থে বাঘটির নাম রাখা হয় জো বাইডেন। এসব ছবি ও তথ্য সংবাদমাধ্যমে প্রচারিত হলে ব্যাপক পরিচিতি পায় জো বাইডেন। ১৯৮৯ সালে যাত্রা করা চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় বর্তমানে ৭০ প্রজাতির ৫২০টি পশুপাখি রয়েছে।

বিএনএনিউজ/ বাবর মুনাফ

Loading


শিরোনাম বিএনএ