ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের এমডি’র পদত্যাগ

বিএনএ ডেস্ক: পর্ষদের সঙ্গে দূরত্ব ও নানা অনিয়মের অভিযোগে পদত্যাগ করেছেন ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ব্যবস্থাপনা পরিচালক তারিক আমিন ভূঁইয়া।

আরো পড়ুন

ঢাকায় আসলেন বেলজিয়ামের রানি

আজও দূষিত শহরের তালিকায় শীর্ষে ঢাকা

তুরস্কে ভূমিকম্পে নিহত ১০,বাড়ছে মৃতের সংখ্যা

মঙ্গলবার (২৩ আগস্ট) রাতে প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান ইউনূসুর রহমানের কাছে ই-মেইলে পদত্যাগপত্র পাঠান তিনি। গণমাধ্যমে এ তথ্য নিশ্চিত করেন ইউনূসুর রহমান। এর আগে অবৈধভাবে পছন্দের লোকদের পদোন্নতি, স্বেচ্ছাচারিতা এবং ক্ষমতার অপব্যবহারসহ নানা অভিযোগ উঠে তার বিরুদ্ধে।

জানা গেছে, এমডি ও পরিচালনা পর্ষদের দূরত্বে দেশের বৃহত্তম শেয়ারবাজার ডিএসইতে অচলাবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। সম্প্রতি প্রতিষ্ঠানে পছন্দের কর্মকর্তাদের গণপদোন্নতি দেয়া হলে জরুরি বৈঠক করে সোমবার তা আটকে দেয় পরিচালনা পর্ষদ। কিন্তু পর্ষদের সিদ্ধান্তকে পাত্তা না দিয়ে মঙ্গলবার সকালে পদোন্নতির ঘোষণা দেন তারিক আমিন।

বোর্ড সূত্র বলছে, এমডিকে নিয়ে চরম বিপাকে ছিলেন তারা। কোনো এক অদৃশ্য কারণে কাউকে তোয়াক্কা করছেন না এ কর্মকর্তা। ফলে চাকরিতে যোগদানের এক বছর পার হলেও তার কনফারমেশন (চুক্তি চূড়ান্তকরণ) দিচ্ছে না পর্ষদ।

জানা গেছে, ডিএসইর ৯৫ জন কর্মকর্তাকে পদোন্নতি দেয়ার জন্য সোমবার চিঠি ইস্যু করা হয়। এরমধ্যে ডিজিএম থেকে সিনিয়র জিএম পর্যায়ের কর্মকর্তা রয়েছেন। কিন্তু নিয়ম অনুসারে জিএম এবং এর ওপরে পদোন্নতির জন্য এনআরসির (নমিনেশন অ্যান্ড রিমিউনারেশন কমিটি) অনুমোদন লাগে। এই অনুমোদন না থাকায় সোমবার রাতে অনুষ্ঠিত পর্ষদের সভায় জিএম ও সিনিয়র জিএমদের পদোন্নতি বাতিল করতে বলা হয়। কিন্তু তা বাতিল না করে মঙ্গলবার সকালেই জিএম পদোন্নতির ঘোষণা দেওয়া হয়। বিষয়টি ভালোভাবে নেয়নি পর্ষদ।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে বোর্ডের একাধিক কর্মকর্তা বলেন, তারিক আমিন ভূঁইয়া যোগদানের পর এক্সচেঞ্জের বোর্ডের অনুমোদন ছাড়াই নিজস্ব বলয় তৈরি করেন। আস্থাভাজন কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে তৈরি করেন আলাদা একটি কাঠামো। এতে একদিকে কাজটি যেমন বেআইনি, অপরদিকে বাজারের ক্ষতি হচ্ছে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, গত ১৮ আগস্ট থেকে ২০ আগস্ট পর্যন্ত ৫০ জনের একটি টিম নিয়ে সাভারের ব্র্যাক সিডিএমে যান তারিক আমিন ভূঁইয়া। এখানে ডিএসই থেকে প্রায় ৩০ লাখ টাকা খরচ করা হয়। সূত্র বলছে, ছুটি কাটাতে আগামী সপ্তাহে অস্ট্রেলিয়াতে যাচ্ছেন এমডি। এর আগেই পছন্দের কর্মকর্তাদের দ্রুত প্রমোশন দিলেন তিনি।

বিএনএ/এ আর