Bnanews24.com
এক নজরে চট্টগ্রাম সব খবর

করোনার টিকা : শহরে আগ্রহ, গ্রামে অনীহা

দেশে টিকা নিয়েছেন প্রায় ৩০ লাখ মানুষ

বিএনএ, চট্টগ্রাম : চট্টগ্রাম নগরে করোনার টিকা গ্রহণে বেড়েছে আগ্রহ। প্রতিদিন লাইনে দাঁড়িয়ে হাজার হাজার মানুষ টিকা গ্রহণ করছেন। টিকা নিতে শহর থেকে গ্রামে ছুটছে সচেতন কিংবা বিত্তবানরা।শহরে নিবন্ধন করতে না পেরে অনেকে গ্রামে গিয়ে টিকা নিচ্ছেন। অন্যদিকে গ্রামের লোকদের রয়েছে অনীহা।শহরের মানুষ টিকা গ্রহণে যেভাবে আগ্রহী, সেইভাবে গ্রামের স্বল্প আয়ের মানুষ টিকা গ্রহণ করছেনা।

এ দিকে নগরীর কোনো কোনো কেন্দ্রে টিকা গ্রহণে অব্যবস্থাপনার কথা জানান টিকা গ্রহীতারা। আবু তাহের নামে এক ব্যক্তি টিকা নেয়ার জন্য পরিবার নিয়ে বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে যায়। সেখানে দেড় থেকে দুই ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে টিকা নিতে পারেননি বলে জানান তিনি। তাকে শনিবার যেতে বলা হয়েছে।

চট্টগ্রাম নগরীর সদরঘাট এলাকার বাসিন্দা হিজবুল্লাহ চৌধুরী, মনোয়ারা বেগম ও আকরাম উল্লাহ চৌধুরী নগরে নিবন্ধন করতে না পেরে আনোয়ারা উপজেলায় নিবন্ধন করেছেন। একইভাবে আগ্রাবাদ দাইয়াপাড়ার বাসিন্দা নুরুন্নাহার বেগম শহরে নিবন্ধন না পেয়ে করেছেন সীতাকুণ্ডে। এ বিষয়ে জানতে চাইলে চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি জানান, একদিনে নিবন্ধন হয়েছে ৪২ হাজার। এভাবে নিবন্ধনের সংখ্যা প্রতিদিন বাড়ছে। প্রতিটি কেন্দ্রের টার্গেট রয়েছে। রয়েছে ধারণ ক্ষমতা। শুধু নিবন্ধন দিলে হবে না। তাদের ভ্যাকসিন দিতে হবে। সেখানে রয়েছে লোকবলের বিষয়। এসব মিলে নিবন্ধন দেয়া হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, তারা চাইলে গ্রামে টিকা নিতে পারেন। গ্রামের লোকজন এখনও ওইভাবে টিকা নিতে আসছে না। ২/৩ শত টাকা খরচ করে উপজেলায় এসে টিকা নিচ্ছেন গ্রামের লোকজন। যার ফলে গ্রামে টিকা নেয়ার বিষয়ে আগ্রহ কম। গ্রামের মানুষের জন্য টিকা নেয়ার নিয়ম পরিবর্তনের চিন্তা করছি। প্রতিটি গ্রামে টিকা কেন্দ্র খোলার চিন্তা-ভাবনা রয়েছে। অন্যথায় গ্রামের লোকজনের মধ্যে টিকা নেয়ার অনীহা দীর্ঘ হবে।

বৃহস্পতিবার একদিনে চট্টগ্রামের ২৫টি কেন্দ্রে টিকা নিয়েছেন ২১ হাজার ৫২৮ জন। এর মধ্যে মহানগরের ১১টি কেন্দ্রে  ১০ হাজার ৯৬২ জন ও১৪ উপজেলায় ১০ হাজার ৫৬৬ জন। এ পর্যন্ত মহানগর ও উপজেলা মিলিয়ে চট্টগ্রামে করোনার টিকা নিয়েছেন ১ লাখ ৫১ হাজার ৬৪২ জন মানুষ।মহানগরে নিয়েছেন ৭৬ হাজার ৫০৭ জন এবং উপজেলা পর্যায়ে নিয়েছেন ৭৫ হাজার ১৩৫ জন। এদের মধ্যে ৯৮ হাজার ৯২১ জন পুরুষ ও ৫২ হাজার ৭২১ জন নারী।

চট্টগ্রামে এ পর্যন্ত অনলাইনে টিকার নিবন্ধন করেছেন ২ লাখ ৪০ হাজার ৬৫১ জন। যার মধ্যে মহানগরে ১ লাখ ২৯ হাজার ৬৬১ জন ও উপজেলা পর্যায়ে নিবন্ধন করেছেন ১ লাখ ১০ হাজার ৯৯০ জন।  ২৪ ঘণ্টায় নিবন্ধন করেছেন ৪১ হাজার ৯৩৫ জন। যার মধ্যে ২৪ হাজার ৭৪২ জন মহানগরের এবং ১৭ হাজার ১৯৩ জন উপজেলা পর্যায়ের বাসিন্দা।

ডা. সেখ ফজলে রাব্বি বলেন, চট্টগ্রামে ১ লাখ ৫১ হাজার ৬৪২ মানুষ করোনা টিকা গ্রহণ করেছেন। ৩১ জানুয়ারি চট্টগ্রামে করোনার টিকা এসেছে ৪ লাখ ৫৬ হাজার। চলতি মাসের শেষ সপ্তাহে চট্টগ্রামে আসবে টিকার দ্বিতীয় চালান। টিকার কোনো প্রকার ঘাটতি নেই। হৈ হুল্লোড় না করে সবাইকে ধৈর্য্য সহকারে টিকার নেয়ার আহ্বান জানান তিনি।

সারাদেশের ন্যায় গত ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে করোনার টিকাদান শুরু হয়েছে চট্টগ্রামে। প্রথম দিন মহানগর ও উপজেলা মিলিয়ে মাত্র ১ হাজার ৯০ জনকে টিকা দেয়া হয়েছিল। এরপর থেকে চট্টগ্রামে গড়ে দৈনিক প্রায় ২১/২২ হাজার মানুষ করোনার টিকা নিচ্ছেন।

বিএনএনিউজ/আমিন,ওজি