ছাগলনাইয়ায় শেখ রাসেলের জন্মদিন উদযাপিত

 ছাগলনাইয়া(ফেনী) :  শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ পুত্র শহীদ শেখ রাসেলের ৫৯তম জন্মদিন(মঙ্গলবার ১৮ অক্টোবর) উদযাপিত হয়েছে। এ বছর দ্বিতীয়বারের মত এই দিনকে ‘শেখ রাসেল দিবস’ হিসেবে উদযাপন করা হয়।

ফেনীর ছাগলনাইয়ায় স্বেচ্ছাসেবি ও অলাভজনক সংগঠন সুলতান আহমদ ফাউন্ডেশনের পক্ষে থেকে দিনব্যাপী নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন ফেনী জেলা আ’লীগের নির্বাহী সদস্য ও ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান মজুমদার।

সুলতান আহম্মেদ ফাউন্ডেশন,অনুষ্ঠানে  প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সরকার বিভাগের উপপরিচালক ড. মোহাম্মদ মঞ্জুরুল ইসলাম। 
অনুষ্ঠানে  প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সরকার বিভাগের উপপরিচালক ড. মোহাম্মদ মঞ্জুরুল ইসলাম।

ছাগলনাইয়া উপজেলার মহামায়া ইউনিয়নের উত্তর যশপুর রৌশন ফকির দরগাহ মাদ্রাসা প্রাঙনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, স্থানীয় সরকার বিভাগ ফেনীর উপ-পরিচালক ( ডিডি এলজি) ড. মোহাম্মদ মঞ্জুরুল ইসলাম।

বিশিষ্ট শিল্পপতি মিজানুর রহমান মজুমদারের সভাপতিত্বে ও মহামায়া ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন পাটোয়ারীর সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের সদস্য কাজী ওমর ফারুক, মহামায়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান শাহজাহান মিনু, সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান গরীবশাহ্ হোসেন চৌধুরী বাদশাহ, রাধানগর ইউপি চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন মজুমদার, ঘোপাল ইউপি চেয়ারম্যান মো.সেলিম,বিশিষ্ট লেখক, কবি ও সাংবাদিক সেলিম আখতার পিয়াল ও সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশন ফেনী জেলা শাখার সভাপতি শহীদ উল্লাহ ভূঁইয়া প্রমূখ।

সুলতান আহম্মেদ ফাউন্ডেশনের
শেখ রাসেলের জন্মদিনে  সুলতান আহম্মেদ ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে ৫ লক্ষাধিক টাকার আর্থিক অনুদান বিতরণ করা হয়

শেখ রাসেল দিবসে শেখ রাসেল এর ৫৯ তম শুভ জন্মদিন উপলক্ষে সুলতান আহমদ ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে ছাগলনাইয়ার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য কুইজ প্রতিযোগিতা,পুরস্কার বিতরণ করা হয়। কুইজে চতুর্থ শ্রেণি থেকে ৮ম শ্রেণির ছাত্রছাত্রীরা অংশ নেয়।এতে প্রথম দ্বিতীয় ও তৃতিয়সহ ১৫টি পুরস্কারসহ ১০০ বই দেয়া হয় নম্বরের ক্রমানুসারে।

এছাড়াও বিভিন্ন মসজিদ মাদ্রাসাসহ অসহায় ও দুঃস্থদের পাঁচ লক্ষাধিক টাকা বিতরণ করেন সংগঠন এর চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান মজুমদার। অনুষ্ঠান শেষে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের নিয়ে কেক কেটে জন্মদিন উদযাপন হয় এবং দোয়া মাহফিল ও মুনাজাতের পর সকলকে তবারুক বিতরণ করা হয়।

 

সুলতান আহম্মেদ ফাউন্ডেশন
সুলতান আহম্মেদ ফাউন্ডেশন

 

প্রধান অতিথি ড. মঞ্জুরুল ইসলাম বলেন, ১০ বছরের জীবনে শেখ রাসেলের মধ্যে যেই অসাধারণ ব্যক্তিত্ব ও গুনাবলি ছিলো তার মাঝে মানুষের যেই সুন্দরতম দিক ছিলো ছোট শেখ রাসেল তা হচ্ছে অভাবনীয় সুন্দর। তাঁর মাঝে যেই সৌন্দর্য ছিলো তা নতুন প্রজন্মের কাছে ও বাংলাদেশের মানুষের মাঝে পৌঁছানোর জন্য প্রতিবছর ১৮ অক্টোবর শেখ রাসেলের জন্মদিন পালন করা হয়।১৯৬৪ সালের ১৮ অক্টোবর শেখ রাসেলের জন্ম হয়েছিলো মাত্র ১০ বছর পর ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট দুষ্কৃতকারীরা পরিবারের সাথে তাকেও হত্যা করে। আমরা মহান সৃষ্টিকর্তার নিকট প্রার্থনা করি তিনি যেন ওপারে জন্নাতুল ফেরদাউসে সুখে থাকেন। শেখ রাসেল বঙ্গবন্ধুকে বেশি দিন কাছে পাননি কারন তিনি দীর্ঘদিন এই দেশের জন্য বার বার কারাভোগ করেছেন এই দেশের মানুষকে একটি সুন্দর স্বাধীন দেশ উপহার দিতে বঙ্গবন্ধুর এই আত্মত্যাগ।এই ছোট শিশু শেখ রাসেলের মহামানিতত্যাগ পৃথিবী যতদিন থাকবে ততদিন চির স্মরনীয় হয়ে থাকবে।আজ যদি তিনি বেঁচে থাকতেন তাহলে বঙ্গবন্ধুর এই দেশ বিনির্মাণে বড় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতো। আমরা যাকে হারিয়েছি কিন্তু কিছু হারোনো হারানো নয় সেই হারানো অনেক বেশি বেঁচে থাকা বাংলাদেশ যতদিন বেঁচে থাকবে পৃথিবীর বুকে ততদিন শেখ রাসেল থাকবে বাঙালির বুকে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শেখ রাসেলের জন্মদিন উপলক্ষে ৫ হাজার এবং পূর্বে আরও ৮ হাজার ল্যাব উদ্বোধন করেছেন যাতে করে শিশু কিশোররা এই ফোর্থ জেনারেশন যুগে তারা তাদের যোগ্যভাবে আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্সকে সাথে নিয়ে দেশকে আরো এগিয়ে নিয়ে যেতে পারে।

সভাপতির বক্তব্য আ’লীগ নেতা মিজানুর রহমান মজুমদার বলেন, এই ছোট শিশু রাসেলের এই মহান আত্মত্যাগ থেকে আমাদের বর্তমানে করনীয় হচ্ছে সমাজে যারা জ্ঞানপিপাসু আছে তাদের জানিয়ে দেয়া যে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে দেশ উন্নত হচ্ছে দেশের উন্নতির সাথে আমাদেরও উন্নতি হতে হবে। আমাদের ছেলে মেয়েদের জ্ঞানী হতে হবে জানতে হবে এই জন্য আমাদের ছেলে মেয়েদের সুশিক্ষিত হতে হবে।তাহলে তাঁরা এই উন্নয়নের সাথে আমাদের দেশকে এগিয়ে নিতে পারবে ।

তিনি আরও বলেন, রাসেল বেঁচে থাকলে সেও তার বাবার মত বাংলাদেশ ও বাঙালী জাতির জন্য নিজেকে বিলিয়ে দিত। আজকে শেখ রাসেলের জন্মদিনে আমরা তার রুহের মাগফেরাত কামনা করছি। একই সাথে ১৫ আগস্টের সকল শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানাচ্ছি। মহান আল্লাহতায়ালা জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু ও শেখ রাসেলসহ সকল শহীদকে জান্নাত যেন দান করেন। পাশাপাশি বঙ্গবন্ধুর কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করছি।

সুলতান আহম্মেদ ফাউন্ডেশনের এই অনুষ্ঠানে ফেনী জেলা পরিষদের নব নির্বাচিত সদস্যবৃন্দ,মেয়র, ছাগলনাইয়া উপজেলার প্রায় সকল ইউপি চেয়ারম্যান, সদস্য, স্থানীয় এবং জেলার আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

বিএনএনিউজ, এবিএম নিজাম উদ্দিন, এসজিএন