Bnanews24.com
Home » বিএনপি জামায়াতের সাথে সখ্যতা ত্যাগ করুনঃ নিজাম হাজারী
ফেনী জেলার সংবাদ বৃৃৃৃৃৃৃৃৃৃৃৃৃৃৃৃৃহত্তর চট্টগ্রাম সব খবর

বিএনপি জামায়াতের সাথে সখ্যতা ত্যাগ করুনঃ নিজাম হাজারী

বিএনপি জামায়াতের সাথে সখ্যতা ত্যাগ করুনঃ নিজাম হাজারী

বিএনএ, ফেনীঃ ফেনী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক  নিজাম উদ্দিন হাজারী এমপি বলেছেন, ফেনী জেলায় ৬৫৪জন জনপ্রতিনিধির মধ্যে ৬৫১জনই আমাদের দলীয়। বিএনপি জামায়াতের সাথে যাদের সখ্যতা আছে তারা সখ্যতা ত্যাগ করুন। আমার দলের প্রত্যেকটি জনপ্রতিনিধি ও কর্মীর প্রতি আমার ভালোবাসা আছে, টান আছে। যদি কেউ সখ্যতা ত্যাগ করতে না পারেন তাহলে আমাকে ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হতে হবে।

বৃহস্পতিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) ফেনী জেলার সকল জনপ্রতিনিধির সাথে মতবিনিময় করেছে জেলা আওয়ামী লীগ। ফেনী গ্র্যান্ড সুলতান কনভেনশন হলে জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এডভোকেট হাফেজ আহম্মেদের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ফেনী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক  নিজাম উদ্দিন হাজারী এমপি। এসময় তিনি এ কথা বলেন।
বিএনপি জামায়াতের সাথে সখ্যতা ত্যাগ করুনঃ নিজাম হাজারী

নিজাম উদ্দিন হাজারী বলেন, আগামী নির্বাচণে যারা বিএনপি জামায়াতের সাথে সখ্যতা করে চলে তাদের বাদ দিয়ে তৃনমূলের সাথে যাদের যোগাযোগ আছে তাদের মনোনয়ন দেয়া হবে। জনপ্রতিনিধিরা  কে কার সাথে যোগাযোগ করে সবই আমার জানা আছে।

তিনি বলেন, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও সদস্য পদে আওয়ামী লীগ যাদের মনোনয়ন দিয়েছেন তাদের বাইরে কেউ মনোনয়ন জমা দিলে সে মনোনয়নে কোন জনপ্রতিনিধি প্রস্তাবক ও সমর্থক হিসেবে স্বাক্ষর করতে পারবেন না। যদি কেউ করেন তাহলে তাদের বিএনপি জামায়াতের এজেন্ট হিসেবে কাজ করছেন বলে ধরা হবে। যদি কেউ কোন প্রার্থীর পক্ষে মনোনয়নে প্রস্তাবক ও সমর্থক হিসেবে স্বাক্ষর করে থাকেন তাহলে নির্বাচন অফিসে গিয়ে আজই তা প্রত্যাহার করে নেন।

তিনি আরও বলেন, আপনারা জানেন, জেলা পরিষদের নির্বাচনে জনপ্রতিনিধি ছাড়া কেউ ভোট দেয়ার সুযোগ নেই। সুতরাং আপনারা এই ভুলটি করবেন না। সদস্য পদে ১৩১জন মনোনয়ন ক্রয় করেছিল। আপনারা আমাকে দায়িত্ব দিয়েছেন আমি পছন্দ করে দিতে। সবাইকে তো মনোননয়ন দেয়া সম্ভব নয়। আমি জানি সবাই আমাদের দলের ত্যাগী নেতাকর্মী। কিন্তু কিছু করার নেই। যাকে দিয়েছি তার সাথে থেকেই সবাই কাজ করুন। ইউপি নির্বাচনে যা হয়েছে তা শেষ।   ইউপি নির্বাচনেকে আপনাদের ভোট দিয়েছে কে ভোট দেয়নি তা সেসময় শেষ। সবাই একসাথে মিলে মিশে কাজ করতে হবে।

তিনি বলেন,  সামনের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে শেখ হাসিনা ছাড়া অন্য কারও কাছে ক্ষমতা চলে গেলে দেশ নিরাপদ থাকবে না। আমরা নিরাপদ থাকবোনা। সুতরাং শেখ হাসিনার নৌকাকে, বঙ্গবন্ধুর নৌকাকে জিতাতেই হবে।

জেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ও ফেনী সদর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান শহীদ উল্যাহ খোন্দকারের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন ফেনী সদর উপজেলার চেয়ারম্যান ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শুসেন চন্দ্র শীল, ফেনী পৌরসভার মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম স্বপন মিয়াজীসহ বিভিন্ন উপজেলার চেয়ারম্যান, ইউপি চেযারম্যান, পৌর কাউন্সিলরসহ দলীয় নেতৃবৃন্দ।

বিএনএ/নিজাম, এমএফ