Bnanews24.com
টপ নিউজ ভাষা সৈনিক পরিচিতি সব খবর

ভাষা সৈনিক(১০) আবদুল গাফফার চৌধুরী

ভাষা সৈনিক আবদুল গাফফার চৌধুরী

সাংবাদিক, সাহিত্যিক, কলামিস্ট ও ভাষাসৈনিক আবদুল গাফফার চৌধুরী ১৯৩৪ সালের ১২ ডিসেম্বর বরিশালের উলানিয়ায় জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতার নাম-ওয়াহেদ রেজা চৌধুরী এবং মাতার নাম- জাকিয়া চৌধুরী। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভ করেন। তাঁর বিখ্যাত কয়েকটি গ্রন্থ হলো, কৃষ্ণপক্ষ (১৯৫৯), সম্রাটের ছবি (১৯৫৯), চন্দ্রদ্বীপের উপাখ্যান (১৯৬০), নীল যমুনা (১৯৬৪), ধীরে বহে বুড়িগঙ্গা (১৯৯৪)। তিনি একুশে পদক, স্বাধীনতা পদক, বাংলা একাডেমী পুরস্কার, ইউনেস্কো পুরস্কার, বঙ্গবন্ধু পুরস্কারসহ দেশ বিদেশের আরও অনেক পুরস্কার ও সম্মাননা লাভ করেন। আবদুল গাফফার চৌধুরী অমর একুশের ইতিহাসে কিংবদন্তি একটি নাম।

১৯৫২ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি ভাষা শহীদদের স্মরণে ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি’ এই ঐতিহাসিক গানটি লিখেছিলেন আবদুল গাফফার চৌধুরী। এটি প্রথমে গান হিসেবে লেখা হয়নি, লেখা হয়েছিল কবিতা হিসেবে। গেন্ডারিয়ার ধুপখোলা মাঠে যুবলীগের একটি অনুষ্ঠানে সর্বপ্রথম এই কবিতাটি আবৃত্তি করা হয়।

পরবর্তীকালে কবিতাটিতে সুরারোপ করেন আবদুল লতিফ। ১৯৫৩ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় ঢাকা কলেজের ছাত্রছাত্রীদের উদ্যোগে তৎকালীন ব্রিটানিয়া সিনেমা হলে আবদুল লতিফের সুরে সর্বপ্রথম গানটি গাওয়া হয়। পরে আলতাফ মাহমুদের সুরে গানটি ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করে এবং একুশের প্রভাতফেরির গান হিসেবে স্বীকৃতি পায়। একুশের এই অমর সংগীতের স্রষ্টা আবদুল গাফফার চৌধুরী বলেন : ‘…পরে জানলাম যে এই লাশ হচ্ছে শহীদ রফিক উদ্দিনের। এই লাশটি দেখার সময়ে আমার মনে কবিতা লেখার জন্য একটি ভাবের উদয় হয়েছিল। ভাবটি এসেছিল কবিতা লেখার জন্য, গান রচনার জন্য নয়। আমি লিখতে জানি না, আমি সুরকারও নই, গীতিকারও নই।

সূত্র: যারা অমর ভাষা সংগ্রামে, লেখক: এমআর মাহবুব

সম্পাদনায়: মনির ফয়সাল

পড়ুন আগের পর্ব: ভাষা সৈনিক(৯) আবদুল মতিন পর্ব : ০২