চট্টগ্রামে দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের গোলাগুলিতে নিহত ১

বিএনএ,চট্টগ্রাম: চট্টগ্রামের ২৮ নম্বর পাঠানটুলি ওয়ার্ডের দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সর্থকদের মধ্যে গোলাগুলিতে একজন নিহত ও তিনজন আহত হয়েছে। মঙ্গলবার (১২ জানুয়ারি) রাত ৮ টার দিকে পাঠানটুলি ওয়ার্ডের মগপুকুর পাড় এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন, নগর পুলিশের উপকমিশনার (পশ্চিম) ফারুক উল হক।

আরো পড়ুন

বিমানের নতুন এমডি শফিউল আজিম

কাতার ফুটবল বিশ্বকাপে সেমিতে যাওয়ার লড়াই

জানা যায়, নিহতের নাম আজগর আলী বাবুল (৫৫) এবং মাহবুব নামে এক যুবককে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
চট্টগ্রামের ২৮ নম্বর পাঠানটুলি ওয়ার্ডের দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সর্থকদের মধ্যে গোলাগুলি

চমেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির নায়েক আমির হোসেন জানান, সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ মাহবুব নামের একজনকে প্রথমে চমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে তাঁকে একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। মাহবুবের উরুতে গুলি লাগে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, পাঠানটুলি ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী নজরুল ইসলাম বাহাদুর এবং বিদ্রোহী আবদুল কাদেরের সমর্থকদের মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এসময় দুই পক্ষই গোলাগুলিতে অংশ নেয়। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ সময় কয়েকজন আহত হয়।

হতাহত দুইজনকে নিজের কর্মী দাবি করেছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী বাহাদুর।

এ বিষয়ে নজরুল ইসলাম বাহাদুর বলেন, আজকে আমার ওই এলাকায়  জনসংযোগ ছিল। আমি জনসংযোগ করে রেজাউল করিম ভাইয়ের নির্বাচনী কার্যালয়ে গিয়েছিলাম, সেখান থেকে নজিরভাণ্ডার লেইনে যাওয়ার কথা ছিল। এ সময় কাদেরের নেতৃত্বে তার অনুসারীরা এসে হামলা চালায়।

তিনি বলেন, আমাকে বাঁচাতে গিয়ে  বাবুল ও মাহবু্ব গুলিবিদ্ধ হয়েছেন।

উপপুলিশ কমিশনার ফারুক জানান, পাঠানটুলি ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগের সমর্থিত প্রার্থী নজরুল ইসলাম বাহাদুর এবং বিদ্রোহী আবদুল কাদেরের সমর্থকদের মধ্যে রাতের দিকে সংঘর্ষ ও গোলাগুলি শুরু হয়। একপর্যায়ে দু’জন গুলিবিদ্ধ হলে একজন মারা যান। পরিস্থিতি এখন শান্ত রয়েছে। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এ বিষয়ে বক্তব্যের জন্য বিদ্রোহী প্রার্থী আব্দুল কাদেরের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

উল্লেখ, চসিক নির্বাচনে ২৮ নম্বর পাঠানটুলি ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন নজরুল ইসলাম বাহাদুর। সদ্য সাবেক কাউন্সিলর আবদুল কাদের একই দলের বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তাঁকে দল সমর্থন দেয়নি। এ নিয়ে গত ফেব্রুয়ারিতে নির্বাচনের প্রথম তফসিল ঘোষণার পর থেকে দুই প্রার্থীর মধ্যে দ্বন্দ্ব চলে আসছিল।

বাহাদুর প্রয়াত মেয়র এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরীর এবং আবদুল কাদের সাবেক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের অনুসারী হিসেবে পরিচিত। আগামী ২৭ জানুয়ারি সিটি করপোরেশন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

বিএনএনিউজ/মনির