Bnanews24.com
এক নজরে খেলা ফুটবল সব খবর

পিএসজি’র কাছে হেরে গেল বায়ার্ন মিউনিখ

পিএসজি’র কাছে হেরে গেল বায়ার্ন মিউনিখ

বিএনএ ক্রীড়া ডেস্ক: উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগে চ্যাম্পিয়ন বায়ার্ন মিউনিখকে হারিয়ে প্রতিশোধ নিলো পিএসজি।বুধবার(৭ এপ্রিল) রাতে আলিয়াঞ্জ অ্যারেনায় অনুষ্ঠিত মাচে জার্মান জায়ান্টদের ৩-২ গোলে হারিয়ে আসরটির সেমিফাইনালের পথে এগিয়ে গেল পিএসজি।

ম্যাচের মাত্র ৩ মিনিটেই এগিয়ে যায় ফরাসি জায়ান্টরা। ডি-বক্সের মুখে ডিফেন্ডারদের ঘিরে থাকা অবস্থায় ডান দিকে বল বাড়ান নেইমার। সেখান থেকে জোরালো শটে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন এমবাপ্পে। বায়ার্ন গোলরক্ষক ম্যানুয়েল ন্যুয়ারের ঊরুতে লেগে বল ঠিকানা খুঁজে নেয় ।
এমবাপ্পে

এরপর দুটি ভালো সুযোগ পায় বায়ার্ন। তবে লেয়ন গোরেটস্কার হেড ঠেকানোর পর বাঁজামাঁ পাভার্দের জোরালো শটও ঝাঁপিয়ে রুখে দেন গোলরক্ষক কেইলর নাভাস।২৮ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করে পিএসজি। এই গোলেও নেইমারের দারুণ অবদান আছে। এই ব্রাজিলিয়ানের উঁচু করে বাড়ানো বল বাঁ পায়ে নিয়ন্ত্রণে নিয়ে পেনাল্টি স্পটের কাছ থেকে ডান পায়ের শটে ঠিকানা খুঁজে নেন ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডার মার্কিনিয়োস।

৩৭ মিনিটে ব্যবধান কমায় বায়ার্ন। সাবেক দলের জালে বল পাঠান চুপো মোটিং। ফরাসি ডিফেন্ডার পাভার্দের ডান দিক থেকে বাড়ানো ক্রসে লাফিয়ে জোরালো হেডে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন ক্যামেরুনের এই ফরোয়ার্ড। গত অক্টোবরে পিএসজি থেকে বায়ার্নে যোগ দেন তিনি।

দ্বিতীয়ার্ধে বেশিক্ষণ ব্যবধান ধরে রাখতে পারেনি পিএসজি। ৬০ মিনিটে ডান দিক থেকে জশুয়া কিমিচের ফ্রি কিকে চোখের পলকে এগিয়ে গিয়ে লাফিয়ে হেডে স্কোরলাইন ২-২ করেন মুলার। তবে ৬৮ মিনিটে আবারও দলকে এগিয়ে নেন এমবাপ্পে। আনহেল দি মারিয়ার পাস ডি-বক্সে পেয়ে জায়গা বানিয়ে কাছের পোস্ট দিয়ে বল জালে পাঠান ফ্রান্সের বিশ্বকাপ জয়ী তারকা।

শেষ ১০ মিনিটে প্রচণ্ড চাপ বাড়ায় বায়ার্ন। দুই মিনিটের ব্যবধানে দারুণ দুটি সুযোগও পায় তারা। কিন্তু আর সমতায় ফিরতে পারেনি তারা। ৮৬ মিনিটে দাভিদ আলাবার কোনাকুনি শট পোস্ট ঘেঁষে বেরিয়ে গেলে হারের হতাশায় মাঠ ছাড়ে দলটি।

এই হারে উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমিফাইনালে ওঠা জার্মান জায়ান্টদের জন্য কঠিন হয়ে গেল। সেমিফাইনালের টিকিট পেতে হলে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নদের দুই গোলের ব্যবধানে জিততে হবে। কারণ পিএসজির হাতে আছে মহামূল্যবান তিনটি অ্যাওয়ে গোল। সেইসঙ্গে প্যারিসে গিয়ে ফিরতি লেগটা তাদের খেলতে হবে!

বায়ার্নের জন্য দুঃসংবাদ হলো ওই ম্যাচেও লেভানডফস্কিকে পাবে না তারা। আগামি সপ্তাহে দ্বিতীয় লেগের আগে হাঁটুর চোট থেকে সেরে উঠতে পারবেন না তিনি। দলকে দুঃসংবাদটা তিনি নিজেই দিয়েছেন। কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে, লেভাকে ছাড়া হেরে যাওয়া বায়ার্ন মিউনিখ পিএসজির মাঠে জিততে পারবে তো? প্রতিপক্ষের দলের আক্রমণভাগ যে ঘরের মাঠে আরও ভয়ঙ্কর! এমন একটা ম্যাচে লেভাকে তাদের খুব দরকার ছিল ।

বুধবার রাতে বায়ার্ন মিউনিখের হারটা দর্শক হিসেবে দেখেছেন লেভানডফস্কি। এদিন আক্রমণভাগের আরেক সারথি সার্জি জিন্যাব্রিও দর্শক সারিতে ছিলেন। তিনিও ইনজুরিতে ভুগছেন। ফিরতি লেগে জিন্যাব্রিকে পাওয়া যাবে কিনা তাও অনিশ্চিত। দুজনের একজনকেও না পাওয়া গেলে দ্বিতীয় ম্যাচে অগ্নিপরীক্ষা দিতে হবে বায়ার্নকে।

এর আগে গত বছর অগাস্টে ২০১৯-২০ আসরের ফাইনালে পিএসজিকে ১-০ গোলে হারিয়ে শিরোপা উৎসব করেছিল বায়ার্ন।

বিএনএনিউজ/আরকেসি