সেপটি ট্যাংক থেকে শিশুর মরদেহ উদ্ধার,ঘাতক গ্রেফতার

বিএনএ,চাঁপাইনবাবগঞ্জ: চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার মসজিদপাড়া থেকে নিখোঁজের ২দিন পর ৩ বছরের শিশু রোহানের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সেইসঙ্গে ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে নয়ন নামে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

আরো পড়ুন

গণতন্ত্র মুক্তি দিবস আজ

চাঁপাইনবাবগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাহবুব আলম খান পিপিএম সাংবাদিকদের জানান, গত ৩১ ডিসেম্বর থেকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার মসজিদপাড়া মহল্লার নির্মাণ শ্রমিক সুজন আলীর ছেলে রোহান নিখোঁজ হয়।এ ঘটনায় রোহানের পরিবার সদর থানায় অভিযোগ দাখিল করে।পরে পুলিশ সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে শনিবার রাতে রোহানের মরদেহ হাসপাতালের খোলা সেপটিক ট্যাংক থেকে উদ্ধার করে।

এরপর রাতে গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল পৌর এলাকার আরামবাগ মহল্লার বাড়ি থেকে ঘটনার সঙ্গে জড়িত কিশোর গ্রেফতার করে। গ্রেফতার হওয়া নয়ন (১৪) পৌর এলাকার আরামবাগ মহল্লার মৃত বাবুর ছেলে। তবে কী কারণে এই হত্যাকাণ্ড এ বিষয়ে এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি বলে জানান পুলিশ সুপার।

রোববার(৩ জানুয়ারি)এক প্রেস ব্রিফিং এ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাহবুব আলম খান জানান,রোহানের মরদেহ উদ্ধারের পর হাসপাতালের সিসি ফুটেজ দেখে অপহরনকারী কিশোর নয়নকে চিহ্নিত করার পর রাতেই পুলিশের একাধিক টিম বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালায়। পরে তার নিজ বাড়ি থেকে  তাকে গ্রেফতার করে গোয়েন্দা পুলিশের একটি টিম। এ ঘটনায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর মডেল থানায় নিয়মিত মামলা দায়ের করা হয়েছে। মুলত ভিক্ষাবৃত্তির জন্য রোহানকে অপহরন করা হয়।

তবে এ ঘটনায় আরও কেউ জড়িত কিনা, সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জানান, এবিষয়ে তদন্ত ও জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। তদন্ত শেষেই এ হত্যাকাণ্ডের আসল কারণ বেরিয়ে আসবে।

উল্লেখ্য, গত ৩১ ডিসেম্বর/২০ নিখোঁজ হয় শিশু রোহান। পরে তার পরিবার থানায় নিখোঁজ ডায়েরীর পরই মাঠে নামে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী। এরপর গতকাল সন্ধ্যায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালের লাশ কাটা ঘরের পেছনের একটি সেপটিক ট্যাংকি থেকে রোহানের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

বিএনএনিউজ/রঞ্জু,আরকেসি