Bnanews24.com
Home » অধ্যক্ষকে হেনস্তা, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতিকে অব্যাহতি
আওয়ামী লীগ খুলনা বিভাগ টপ নিউজ রাজনীতি শিক্ষা সব খবর সারাদেশ

অধ্যক্ষকে হেনস্তা, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতিকে অব্যাহতি

অধ্যক্ষকে হেনস্তা, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতিকে অব্যাহতি

বিএনএ ডেস্ক: নড়াইল সদরের মির্জাপুর ইউনাইটেড ডিগ্রি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ স্বপন কুমার বিশ্বাসকে হেনস্তার ঘটনায় বিছালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আকতার হোসেন টিংকুকে দলীয় পদ থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে।

আকতার হোসেন টিংকু ওই কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক। ঘটনার পর দিন ১৯ জুন লাঞ্ছিত অধ্যক্ষ স্বপন কুমার বিশ্বাসকে সরিয়ে তাকে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের দায়িত্ব দেয়া হয়।

ওই ঘটনায় আকতার হোসেনকে তিন দিনের মধ্যে লিখিতভাবে কারণ দর্শাতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি ওই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মশিয়ার রহমানকে ভারপ্রাপ্ত সভাপতির দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৩০ জুন) রাতে নড়াইল সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অচিন কুমার চক্রবর্তী ও সাধারণ সম্পাদক মো. ওমর ফারুকের স্বাক্ষরিত এক পত্রের মাধ্যমে বিষয়টি জানানো হয়।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মির্জাপুর ইউনাইটেড ডিগ্রি কলেজ পরিচালনা পরিষদের সভাপতি অচিন কুমার চক্রবর্তী বলেন, অধ্যক্ষকে হেনস্তা করার ভিডিও ফুটেজ পর্যালোচনার পাশাপাশি বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় ও মিডিয়ার খবরে আকতার হোসেনকে জড়িত থাকার বিষয়ে সংবাদ প্রচার করা হচ্ছে। যে কারণে তিনি এর দায় এড়াতে পারেন না। এজন্য দলীয় পদ থেকে তাকে সাময়িক অব্যাহতি দেয়ার পাশাপাশি কারণ দর্শাতে বলা হয়েছে।

কারণ দর্শানো চিঠিতে বলা হয়, আপনি (আকতার হোসেন) ওই কলেজের শিক্ষক। ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, ঘটনার সময় আপনি সেখানে উপস্থিত ছিলেন। আপনার উপস্থিতিতে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষকে জুতার মালা পরানো হয়, যা নিন্দনীয় ও শিক্ষক সমাজকে হেয়প্রতিপন্ন করার শামিল। বিভিন্ন গণমাধ্যমে আপনাকে জড়িত করে সংবাদ প্রচার হচ্ছে। সে কারণে আপনি এ ঘটনার দায় এড়াতে পারেন না। সভাপতি হিসেবে যথাযথভাবে দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হন বলেও চিঠিতে উল্লেখ করা হয়।

চিঠির প্রেক্ষিতে আকতার হোসেন বলেন, হাজার হাজার লোক সেখানে বিক্ষোভ করছিলো, সেই পরিস্থিতি সামাল দিতে জেলা প্রশাসন ও পুলিশ হিমশিম খেয়েছে। সেখানে তার মতো নগন্য ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের একজন সভাপতির কী ভূমিকা থাকতে পারে? এরপরও বিষয়টি সামলাতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করার দাবি করেন তিনি।

আকতার হোসেন বলেন, ঘটনার পরদিন নড়াইল-১ আসনের এমপির উপস্থিতিতে তাকে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের মৌখিক দায়িত্ব দেয়া হয়। তারপর থেকে প্রতিপক্ষ ষড়যন্ত্রে শুরু করেছে বলে দাবি করেন তিনি।

বিএনএন/এ আর