৯৯৯ এ ফোন, আত্মহত্যার স্ট্যাটাস দেয়া তরুণীকে উদ্ধার

বিএনএ, ঢাকা : পুলিশ পরিচালিত জাতীয় জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯ এ ফোন কলে রাজধানীর রূপনগর থেকে ফেসবুকে আত্মহত্যার স্ট্যাটাস দেয়া এক তরুণীকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বুধবার ৯৯৯ জানিয়েছে, মঙ্গলবার রাত সাড়ে নয়টায় রাজধানীর যাত্রাবাড়ী থেকে একজন ফোন করে জানান, তিনি একজন সাংবাদিক এবং একটি ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ায় কাজ করেন। তার সাবেক সহকর্মী এক তরুণী যিনি একই টিভি চ্যানেলে সংবাদকর্মীর কাজ করতেন, তিনি ফেসবুকে একাধিক স্ট্যাটাস দিয়েছেন যে, তিনি আত্মহত্যা করতে যাচ্ছেন। বন্ধুদের তিনি বিদায় জানিয়েছেন এবং তার মৃতদেহ নেয়ার জন্য মিরপুরের রূপনগর যাওয়ার জন্য বলেছেন।
কলার জানান, তার সাবেক তরুণী সহকর্মী বর্তমানে রূপনগরের একটি আবাসিক এলাকায় তার স্বামীর বাসায় আছেন। কলার ৯৯৯ কে তার সহকর্মীকে উদ্ধারের ব্যবস্থা নেয়ার জন্য অনুরোধ জানান।

৯৯৯ তাৎক্ষণিকভাবে কলারের সাথে রূপনগর থানার ডিউটি অফিসারের কথা বলিয়ে দেয়। সংবাদ পেয়ে থানা পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে যায়।পরে থানার এসআই এনামুল ৯৯৯ কে ফোনে জানান, তিনি ঘটনাস্থলে আছেন। তরুণী তার জিম্মায় আছেন। তিনি তাকে বোঝানোর চেষ্টা করছিলেন। এরপর ৯৯৯ থেকে তরুণীর সাথে ফোনে কথা বলা হলে কান্নায় ভেঙ্গে পড়ে তরুণী জানান, তিনি বিকেলে ঝিনাইদহ থেকে তার স্বামীর বাসা রূপনগরে এসে পৌঁছেছেন। কিন্তু বাসায় ঢুকতে গিয়ে দেখেন তার স্বামী যিনি একজন মেরিন ইঞ্জিনিয়ার, বর্তমানে ঢাকার বাইরে আছেন। তার স্বামী বাসার দারোয়ানকে বলে দিয়েছেন তাকে যেনো বাসায় ঢুকতে না দেয়া হয়।

তরুণী জানান, কয়েকশো কিলো পথ পাড়ি দিয়ে এসে তিনি বাসায় ঢুকতে পারছেন না, রাস্তায় দাঁড়িয়ে আছেন। তিনি আরও জানান,  তার স্বামীর কারণে মিডিয়ার চাকরি ছেড়ে দিয়েছেন এবং তার স্বামী তাকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করেন। হতাশাগ্রস্থ হয়ে তিনি আত্মহত্যার চিন্তা করেছেন এবং ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছেন।
৯৯৯ আরও জানায়, ৯৯৯ তরুণীকে তার প্রয়োজনীয় সকল আইনী সহায়তার আশ্বাস দেয় এবং আত্মহত্যার পদক্ষেপ না নেয়ার জন্য অনুরোধ জানায়।
এসআই এনামুল ৯৯৯কে জানান, তিনি তরুণীকে রূপনগরে তার এক বান্ধবীর বাসায় পৌঁছে দেন, তরুণীর স্বামীর সাথে তিনি ফোনে কথা বলেছেন এবং স্বামী তাকে জানিয়েছেন ঢাকায় ফিরে তিনি বিষয়টি মীমাংসা করে নেবেন।

 

বিএনএ/এসকে, ওজি