33 C
আবহাওয়া
১০:২৭ অপরাহ্ণ - জুন ৫, ২০২৩
Bnanews24.com
Home » কোভিডে মৃত্যু : মীরসরাইয়ে মুক্তিযোদ্ধার মরদেহ দাফনে বাঁধা,দেয়া হয় নি গার্ড অব অনার

কোভিডে মৃত্যু : মীরসরাইয়ে মুক্তিযোদ্ধার মরদেহ দাফনে বাঁধা,দেয়া হয় নি গার্ড অব অনার

কোভিডে মৃত্যু : মীরসরাইয়ে মুক্তিযোদ্ধার মরদেহ দাফনে বাঁধা,দেয়া হয় নি গার্ড অব অনার

বিএনএ,মিরসরাই (চট্টগ্রাম): করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে কোভিড-১৯ রোগে মৃত্যুবরণকরা মিরসরাইয়ের বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃসাজেদ উল্ল্যাহ’র মরদেহ দাফনে বাঁধা দিয়েছে তাঁর গ্রামের বাসিন্দারা।রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় গার্ড অব অনার ছাড়া করা হয়েছে দাফন। জানাযায় উপস্থিত ছিলেন না প্রশাসনের কোনকর্মকর্তা।গ্রামবাসীর বাঁধা দেওয়ার পরবর্তীতে স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা শেষ বিদায়ের বন্ধু’র সদস্যরা মরদেহেরে গোসল ও দাফনের ব্যবস্থা করেন।

জানা গেছে, মিরসরাইয়ের করের হাট ইউনিয়নের পশ্চিম জোয়ার গ্রামের আবদুর রশীদ মুহুরী বাড়ীর বীর মুক্তিযোদ্ধা মো.সাজেদ উল্ল্যাহ গত ৩০ জুলাই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন। তাঁর গেজেট নং ৫০৮৩, লালবইনং ০২০৩০৪১২০৯। চট্টগ্রাম ইন্টারন্যাশনাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত মঙ্গলবার (৩ আগষ্ট) দিবাগত রাতে তিনি ইন্তেকাল করেন।

বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. সাজেদ উল্ল্যাহ’র স্ত্রী লুৎফুর নাহার (৬৫) ও তার পরিবারের ৫ সদস্যও বর্তমানে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত।মৃত্যুর পর তাঁর ২ ছেলে চট্টগ্রাম থেকে লাশ দাফন কাফনের জন্য বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার চেষ্ঠা করলে বাড়ির লোকজন ও গ্রামীবাসীরা বাঁধা দেয়। পরবর্তীতে তাঁরা মিরসরাই সদরই উনিয়নের শেষ বিদায়ের বন্ধু সংগঠনের শরনাপন্নহন।এই সংগঠনের সাহায্যে মরদেহ গ্রামেরবাড়ি নেওয়ার পর স্থানিয় মসজিদের ইমাম জানাযা দেওয়ার জন্য আসেন নি।

করেরহাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এনায়েত হোসেন নয়ন বলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. সাজেদ উল্ল্যাহ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণকরায় তাঁর বাড়ীর লোকজন বিশেষ করে মাদক ব্যবসায়ী গালিব উল্লাহ মরদেহ দাফনে বাঁধা দেয়।

উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার কবির আহমেদ বলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা সাজেদ উল্ল্যাহ’র মরদেহ দাফনের জন্য সকাল ১০টায় সময় নির্ধারণ করার কথা বলা হলেও তাঁর পরিবারের লোকজন সকাল ৯টায় তাড়াহুড়া করে দাফন করে ফেলে। ফলে গার্ড অব অনার দেওয়া হয় নি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো.মিনহাজুর রহমান বলেন, মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকায় পরিবারের লোকজন তাড়াতাড়ি করে সকাল ৯টায় তার দাফন করে শহরে চলে যায়। সেজন্য রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় গার্ড অব অনার দেওয়া যায় নি।

বিএনএনিউজ,আশরাফউদ্দিন, এসজিএন

Total Viewed and Shared : 15 


শিরোনাম বিএনএ