29 C
আবহাওয়া
৩:০৩ অপরাহ্ণ - জুন ২০, ২০২৪
Bnanews24.com
Home » এশিয়া কাপ: আফগানিস্তানকে ১০৬ রানের টার্গেট দিয়েছে শ্রীলঙ্কা

এশিয়া কাপ: আফগানিস্তানকে ১০৬ রানের টার্গেট দিয়েছে শ্রীলঙ্কা

আফগানিস্তানকে ১০৬ রানের টার্গেট দিয়েছে শ্রীলঙ্কা

বিএনএ ডেস্ক: এশিয়া কাপের উদ্বোধনী ম্যাচে আফগানিস্তানকে ১০৬ রানের টার্গেট দিয়েছে শ্রীলঙ্কা। নির্ধারিত ২০ ওভারের ২ বল হাতে থাকতেই সব উইকেট হারিয়ে ১০৫ রান সংগ্রহ করে দলটি।

শনিবার (২৭ আগস্ট) রাতে দুবাই স্পোর্টস সিটিতে টস জিতে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নেন আফগান অধিনায়ক মোহাম্মদ নবী। ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতেই আফগানিস্তানের বোলারদের তোপের মুখে পড়ে লঙ্কান ব্যাটাররা। দলীয় ৫ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে তারা।

শ্রীলঙ্কার হয়ে উদ্বোধনী ব্যাটার হিসেবে মাঠে নামেন পাথুম নিসাঙ্কা ও কুশল মেন্ডিস। প্রথম ওভারেই দলীয় ৩ রানের মাথায় আউট হন কুশল মেন্ডিস। ৪ বল থেকে ২ রান করে ফিরে যান তিনি। ওয়ান ডাউনে নেমে প্রথম ওভারের শেষ বলে শূণ্য রানে ফিরে যান চারিথ আসালাঙ্কা। দুটি উইকেটই শিকার করেন ফজল হক ফারুকী। দ্বিতীয় ওভারে নাভিন-উল হকের শিকারে পরিণত হন পাথুম নিসাঙ্কা। ৭ বলে ৩ রান করে ফিরে যান তিনি।

এরপর দানুশকা গুনাথিলাকা ও ভানুকা রাজাপাকসের ব্যাটে ভর করে কিছুটা চাপ সামাল দেয় শ্রীলঙ্কা। তবে দলীয় ৪৯ রানের মুজিব উর রহমানের বলে ১৭ বলে ১৭ রান করে ফিরে যান মাথায় দানুশকা গুনাথিলাকা। আবার ছন্দ হারায় শ্রীলঙ্কা। এরপর ভানুকা রাজাপাকসে ২৯ বলে ৩৮ ও চামিকা করুণারত্নে ৩৮ বলে ৩১ রানের ইনিংস ছাড়া আর কোন ব্যাটার দুই অংকের ঘরে পৌঁছাতে পারেন নি।

আফগানিস্তানের পক্ষে ফজল হক ফারুকী ১১ রান দিয়ে ৩টি এবং মুজিব উর রহমান ও মোহাম্মদ নবী দুটি করে উইকেট শিকার করেন। একটি উইকেট পান নাভিন-উল হক।

উদ্বোধনী ম্যাচ দিয়ে অভিষেক ঘটেছে দুই শ্রীলঙ্কান তরুণের। একাদশে প্রথমবারের মতো খেলছে দিলশান মধুশঙ্কা ও মাথিশা পাথিরানা।

শ্রীলঙ্কা একাদশ
দানুশকা গুনাথিলাকা, পাথুম নিসাঙ্কা, কুশল মেন্ডিস (উইকেটরক্ষক), চারিথ আসালাঙ্কা, ভানুকা রাজাপাকসে, দাসুন শানাকা (অধিনায়ক), ওয়ানিন্দু হাসরাঙ্গা, চামিকা করুণারত্নে, মহেশ থেকশানা, দিলশান মাদুশঙ্কা ও মাথিশা পাথিরানা।

আফগান একাদশ
হজরতুল্লাহ জাজাই, রহমানুল্লাহ গুরবাজ (উইকেটরক্ষক), ইব্রাহিম জাদরান, করিম জানাত, নাজিবুল্লাহ জাদরান, মোহাম্মদ নবী (অধিনায়ক), রশিদ খান, আজমাতুল্লাহ ওমরজাই, নাভিন-উল হক, মুজিব উর রহমান ও ফজল হক ফারুকী।

বিএনএ/এ আর

Loading


শিরোনাম বিএনএ