28 C
আবহাওয়া
১২:৩০ অপরাহ্ণ - জুন ১৪, ২০২৪
Bnanews24.com
Home » ‘প্রকৃত ইসলামি শাসন’ চায় তালেবান

‘প্রকৃত ইসলামি শাসন’ চায় তালেবান

মোল্লা আবদুল ঘানি বারাদার

বিএনএ, ঢাকা : আফগানিস্তানে শান্তি আলোচনার ব্যাপারে নিজেদের অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করেছে তালেবান।  তারা আফগানিস্তানে ‘প্রকৃত ইসলামি ব্যবস্থা’ প্রতিষ্ঠা করতে চায়।

ডনের খবরে বলা হয়, তালেবানরা আফগান সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য ও ধর্মীয় বিধানের আলোকে নারীদের তাঁদের প্রাপ্য অধিকার দেবে।

কাতারে তালেবানের রাজনৈতিক অফিসের প্রধান মোল্লা আবদুল ঘানি বারাদার বলেন,  “আফগানিস্তান সংক্রান্ত যাবতীয় ইস্যুর সর্বোত্তম সমাধান হলো একটি ‘প্রকৃত ইসলামি ব্যবস্থা’। আলোচনায় আমাদের অংশগ্রহণ ও সেখানে আমাদের পক্ষে যে সমর্থন এসেছে সেটি স্পষ্টতই এই ইঙ্গিত দেয় যে আমরা পারস্পরিক বোঝাপড়ায় বিশ্বাসী।”

কাতারের দোহায় আফগান সরকারের প্রতিনিধিদের সঙ্গে তালেবান নেতাদের আলোচনা বেশ ধীর গতিতে অগ্রসর হচ্ছে। অন্য দিকে ১১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে বিদেশি সেনা প্রত্যাহারের আগে দেশজুড়ে সহিংসতাও বেড়েছে। এমন পরিস্থিতিতেই রোববার তালেবানের পক্ষ থেকে এই বিবৃতি এসেছে।

এ দিকে ১১ সেপ্টেম্বর আফগানিস্তান থেকে মার্কিন ও ন্যাটো সেনারা চলে যাওয়ার পর কাবুলের পরিস্থিতি কী দাঁড়াবে সেটি নিয়ে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের উদ্বেগ তৈরি হয়েছে। বিশেষ করে বিমানবন্দর ও বিদেশি দূতাবাসগুলোর নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বেগ বাড়ছে। এরই মধ্যে অস্ট্রেলিয়া কাবুলে তাদের দূতাবাস বন্ধ করে দিয়েছে।

অন্য দিকে কাবুল বিমানবন্দরের নিরাপত্তা ও পরিচালনার দায়িত্ব নেওয়ার আনুষ্ঠানিক প্রস্তাব দিয়েছে তুরস্ক। এ ব্যাপারে যুক্তরাষ্ট্রেরও সায় আছে বলে জানা গেছে। যদিও অপর বিবৃতিতে তালেবান তুরস্কের প্রস্তাবের বিরোধিতা করেছে।

তারা বলেছে, মার্কিন ও ন্যাটো বাহিনী প্রত্যাহারের পর আফগানিস্তানে সামরিক উপস্থিতি বজায় রাখার ‘কোনও আশা’ রাখা উচিত নয়। দূতাবাস ও বিমানবন্দরগুলোর নিরাপত্তা নিশ্চিত করা আফগানদেরই দায়িত্ব।

বিএনএ/ওজি

Loading


শিরোনাম বিএনএ