জার্মানির লেপার্ড ট্যাংক পেল না ইউক্রেন

বিএনএ বিশ্ব ডেস্ব: জার্মানির লেপার্ড-২ ট্যাংক শেষ পর্যন্ত পেল না ইউক্রেন। যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্ররা গত শুক্রবারের বৈঠকে জার্মান লেপার্ড-২ ট্যাংক কিয়েভে সরবরাহ করার প্রশ্নে একমত হতে ব্যর্থ হন।

আরো পড়ুন

পাঠ্যপুস্তকের ভুল খুঁজতে দুই কমিটি

জানুয়ারির ২৭ দিনে প্রাবাসী আয় ১৬৭ কোটি ডলার

বিবিসি জানায়, জার্মানির রামস্টেইন বিমান ঘাঁটিতে প্রায় ৫০টি দেশের প্রতিরক্ষামন্ত্রীরা শুক্রবার বৈঠক করেন। এতে ইউক্রেনকে আরও সাঁজোয়া যান, আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা এবং গোলাবারুদ সরবরাহ করার ব্যাপারে সমঝোতা হয়। তবে ইউক্রেনের মূল চাওয়া ছিল জার্মানির অত্যাধুনিক লেপার্ড-২ ট্যাংক। সেটিই তারা পেল না। রামস্ট্রেইনের বৈঠকের মূল উদ্দেশ্যই ছিল ইউক্রেনকে লেপার্ড-২ ট্যাংক দিতে জার্মানির ওপর চাপ সৃষ্টি করা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত কোনো সিদ্ধান্তেই পৌঁছাতে পারেননি প্রতিরক্ষামন্ত্রীরা।

রাশিয়ার টি-৯০ ট্যাংকের বিরুদ্ধে লড়তে লেপার্ড বেশ কার্যকর। জার্মানির প্রতিরক্ষামন্ত্রী বরিস পিস্টোরিয়াস বলেন, লেপার্ড ট্যাংক সরবরাহ করা নিয়ে মতবিভেদ তৈরি হওয়ায় তা নিয়ে কোনো সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা সম্ভব হয়নি। এ ছাড়া বার্লিন অন্যদের কিয়েভে লেপার্ড ট্যাংক সরবরাহ করতে বাধা তৈরি করেছে- এমন অভিযোগও বরিস অস্বীকার করেন। পোল্যান্ড এবং ফিনল্যান্ড তাদের সংগ্রহে থাকা জার্মান লেপার্ড ট্যাংক কিয়েভকে দিতে আগ্রহী ছিল। তবে জার্মানির রপ্তানি আইনানুযায়ী, বার্লিন সবুজ সংকেত না দিলে কোনো দেশ লেপার্ড ট্যাংক অন্য কাউকে দিতে পারবে না।

এদিকে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি সামরিক সহায়তার জন্য তার ন্যাটো মিত্রদের প্রশংসা করেছেন। সেই সঙ্গে তিনি বলেন, অত্যাধুনিক ট্যাংক পেতে তারা সংগ্রাম চালিয়ে যাবেন। তিনি বলেন, প্রতিটি দিনই আমরা এটি স্পষ্ট করে তুলব, ট্যাংকের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতেই হবে। এর কোনো বিকল্প নেই। ইউক্রেনের বর্তমান ট্যাংকগুলো বেশির ভাগই পুরোনো সোভিয়েত আমলের। রাশিয়ার শক্তিশালী সমরাস্ত্র মোকাবিলায় এগুলো তেমন সুবিধা করতে পারছে না। ইউরোপের দেশগুলোতে ২ হাজারের বেশি জার্মানির প্রস্তুক করা লেপার্ড ট্যাংক রয়েছে। জেলেনস্কির ধারণা, রাশিয়াকে পরাস্ত করতে কিয়েভের এ রকম ৩০০ ট্যাংকই যথেষ্ট হবে।

কিয়েভে লিপার্ড ট্যাংক সরবরাহ প্রশ্নে বেশ চাপে রয়েছে জার্মানি। এই ট্যাংক কিয়েভে পাঠালে রাশিয়ার সঙ্গে যুদ্ধের উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ার শঙ্কা রয়েছে। এর আগে ক্রেমলিন হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছে, পশ্চিমা ট্যাংক ইউক্রেনের বিপদই বাড়াবে। রুশ বাহিনীর অগ্রযাত্রা আটকাতে এসব ট্যাংক কিছুই করতে পারবে না।

বিএনএনিউজ২৪/ এমএইচ