29 C
আবহাওয়া
৭:০২ পূর্বাহ্ণ - জুলাই ১৬, ২০২৪
Bnanews24.com
Home » চট্টগ্রামে শিপইয়ার্ডে বিস্ফোরণে শ্রমিক নিহত, আহত ৩

চট্টগ্রামে শিপইয়ার্ডে বিস্ফোরণে শ্রমিক নিহত, আহত ৩

চট্টগ্রামে শিপইয়ার্ডে বিস্ফোরণে শ্রমিক নিহত, আহত ৩

বিএনএ,চট্টগ্রাম: চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে জাহাজ কাটার সময় গ্যাস বিস্ফোরণে রিপন চাকমা (২৫) নামে এক শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আরও তিনজন আহত হয়েছেন।

শনিবার (১৯ জুন) দুপুর ১ টার দিকে সীতাকুণ্ড উপজেলার ভাটিয়ারী মাদামবিবি হাট এলাকায় এস.এন. শিপইয়ার্ডে এ দুর্ঘটনা ঘটে।বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চমেক হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই হামিদ।

নিহত রিপন চাকমা খাগড়াছড়ি দীঘিনালা এলাকার কালা চাঁদ মিয়া চাকমার ছেলে। সে এস.এন.শিপইয়ার্ডে কাটার হেলপার হিসেবে কাজ করেন।

আহতরা হলো- লক্ষীপুর জেলার কমলনগর এলাকার বাসিন্দা ইয়ার্ডের ফিটারম্যান মো. সোহেল(২৯), নওগাঁ জেলার চন্দা থানার বাসিন্দা রকেট হোসেন(২৪) ও ফিটারম্যান মো. মিন্টু (৪১) ঢাকা মিরপুর এলাকার বাসিন্দা। আহতরা চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ২৪ ও ২৮ নং ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

স্থানীয় সূত্র জানা যায়, সীতাকুণ্ড উপজেলার ভাটিয়ারী ইউনিয়নের মাদামবিবিরহাট সাগর উপকুল এলাকায় লিয়াকত আলী চৌধুরী মালিকানাধীন এস.এন কর্পোরেশন শিপইয়ার্ডে ভাঙার জন্য নিয়ে আসা জাহাজ কাটার সময় বিকট শব্দে বয়লার বিস্ফোরণ ঘটে। বিস্ফোরণে কর্মরত ফিটারম্যান ও কাটারম্যানরা গুরুতর আহত হয়ে ছিটকে পড়ে। পরে অন্য শ্রমিকরা উদ্ধার করে তাদের চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করলে কর্তব্যরত চিকিৎসক রিপন চাকমাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। এছাড়া আশংকাজনক আহত তিনজনই চমেকে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

হতাহতদের চমেক হাসপাতালে আনয়নকারী মো. বেলাল বলেন, মাদামবিবি হাট এলাকায় একটি শিপইয়ার্ডে জাহাজ ভাঙার কাজ করছিলাম আমরা। এসময় ইঞ্জিন ভাঙতে গিয়ে ভিতরে থাকা গ্যাস বিস্ফোরিত হয়। এতে চারজন শ্রমিক আহত হন। আমরা দ্রুত তাদের উদ্ধার করে চমেক হাসপাতালে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক রিপন চাকমাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ বিষয়ে সীতাকুণ্ড মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত (ওসি) মো.আবুল কালাম আজাদ বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। বিস্ফোরণ স্থান থেকে উদ্ধার করে ৪ শ্রমিককে চমেক হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক একজনকে মৃত ঘোষণা করেন। ধারণা করছি কোনো দাহ্য পদার্থ থেকেই এই বিস্ফোরণ। তবে কি ধরণের দাহ্য পদার্থ তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

চমেক হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই হামিদ বলেন, শিপইয়ার্ডে কাজ করার সময় বিস্ফোরণে আহত চারজনকে হাসপাতালে আনা হয়। তাদের মধ্যে একজনকে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। অন্য তিনজনের মধ্যে একজন ২৪ নম্বর ওয়ার্ডে এবং বাকি ২ জন ২৮ নম্বর নিউরো সার্জারি ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। চিকিৎসক জানিয়েছেন তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

বিএনএনিউজ/মনির

Loading


শিরোনাম বিএনএ