23 C
আবহাওয়া
৬:১১ অপরাহ্ণ - ডিসেম্বর ১১, ২০২৩
Bnanews24.com
Home » ইসরায়েল ‘সন্ত্রাসী রাষ্ট্র’- এরদোয়ান

ইসরায়েল ‘সন্ত্রাসী রাষ্ট্র’- এরদোয়ান

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোয়ান

বিশ্বডেস্ক: তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোয়ান বুধবার ফিলিস্তিনি বেসামরিক নাগরিকদের লক্ষ্য করে নৃশংসতার জন্য ইসরায়েলি প্রশাসনের সমালোচনা করেছেন, প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহুকে ‘গোনার’ এবং ইসরায়েলকে ‘সন্ত্রাসী রাষ্ট্র’ হিসাবে চিহ্নিত করেছেন।

বুধবার(১৫ নভেম্বর) তুরস্কের রাজধানী আঙ্কারায় ক্ষমতাসীন জাস্টিস অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট পার্টির (একে পার্টি) পার্লামেন্টারি গ্রুপের বৈঠকে ভাষণ দেওয়ার সময় প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান বলেছেন, ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সংঘাতের মধ্যে ইসরায়েল “রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস” করছে।

“আমি এখানে পরিষ্কারভাবে বলছি: ইসরাইল একটি সন্ত্রাসী রাষ্ট্র,” উল্লেখ করে এরদোয়ান ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুকে উদ্দেশ্য করে বলেন,  “আপনার শেষ সন্নিকটে, যাইহোক, আপনার কাছে পারমাণবিক অস্ত্র থাকুক বা না থাকুক,” ।

তুরস্ক অবরুদ্ধ গাজায় আটকে পড়া ফিলিস্তিনিদের কষ্ট লাঘবের প্রচেষ্টার নেতৃত্ব দিচ্ছে, যেখানে ৭ অক্টোবর থেকে হাজার হাজার মানুষ নিহত হয়েছে। এরদোয়ান ইসরায়েলের সবচেয়ে সোচ্চার সমালোচক।

এরদোগান উল্লেখ করেন যে ইসরায়েল “একটি পুরো শহরকে তার জনগণসহ ধ্বংস করার” কৌশল অনুসরণ করছে এবং তিনি দুঃখ প্রকাশ করে বলেন আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কিছু সদস্য বিষয়টি এড়িয়ে চলছে  বিশেষ করে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।

প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোয়ান বলেন,  ইসরায়েলি সরকার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং পশ্চিমা দেশগুলির অটল সমর্থনে ৪০ দিন ধরে নিরলসভাবে গাজায় গণহত্যা চালিয়ে যাচ্ছে, ইচ্ছাকৃতভাবে স্কুল, উপাসনালয়, হাসপাতাল এবং বাজারকে লক্ষ্য করে বোমা ফেলছে।

তিনি উল্লেখ করেছেন যে এটি “রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসবাদ” এর অনুসরণে তাদের বাড়িঘর ছাড়তে বাধ্য করা লোকদেরকে ইচ্ছাকৃতভাবে বোমা মেরেছে। তিনি বলেন, “তারা হামাসকে সন্ত্রাসী গোষ্ঠী বলে। হামাস একটি রাজনৈতিক দল যারা নির্বাচনে জিতেছে। তারা নির্বাচনে জয়ী হওয়ার পর ইসরায়েল তাদের অধিকার থেকে বঞ্চিত করেছেন। ইসরাইল ও যুক্তরাষ্ট্র একসঙ্গে এটি করেছে,” তিনি বলেন।

“যুদ্ধ এমন একটি শব্দ নয় যা আমরা গাজায় যা ঘটছে তা বর্ণনা করতে ব্যবহার করতে পারি। এমনকি যুদ্ধেরও নীতি, আইন এবং সীমা রয়েছে,” তাইয়্যেপ এরদোয়ান বলেন। তিনি বলেন, ইসরাইল এখন পারমাণবিক বোমা দিয়ে ২০ লাখেরও বেশি বেসামরিক মানুষকে হত্যার কথা বলছে। ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষ সম্প্রতি ইসরায়েলের বিরুদ্ধে গাজায় পারমাণবিক বোমা ফেলার হুমকির বিষয়ে আন্তর্জাতিক পারমাণবিক শক্তি সংস্থার (আইএইএ) কাছে অভিযোগ দায়ের করেছে।

গত সপ্তাহে, ইসরায়েলি হেরিটেজ মিনিস্টার আমিচায় ইলিয়াহু, যিনি ডানপন্থী ওটজমা ইহুদিত পার্টির সদস্য, ইসরায়েলি মিডিয়াকে বলেছেন যে গাজায় “পারমাণবিক বোমা” ফেলা “একটি বিকল্প”। প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুর কার্যালয় বলেছে, ইলিয়াহুকে “পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত” সরকারী বৈঠক থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে। ইসরায়েল দীর্ঘদিন ধরে প্রকাশ্যে স্বীকার করতে অস্বীকৃতি জানিয়ে আসছে যে তাদের কাছে পারমাণবিক অস্ত্র আছে কিনা।

“আপনার কাছে পারমাণবিক বোমা আছে কি না? আমি নেতানিয়াহুকে এটি ঘোষণা করার জন্য চ্যালেঞ্জ জানাই, কিন্তু আমি মনে করি না যে তিনি পারবেন। আপনি যেভাবে পারেন মানুষকে হুমকি দিতে পারেন, কিন্তু নেতানিয়াহু এখন ক্ষমতার  শেষ কাছাকাছি,” তিনি বলেন।

প্রেসিডেন্ট এরপর গাজায় ইসরায়েলের হামলা সম্পর্কে একটি ভিডিও প্রদর্শন করেন। “আপনি এখানে গণহত্যার ঘটনা দেখতে পাচ্ছেন। আমরা এই মামলাটি আন্তর্জাতিক বিচার আদালতে নিয়ে যাওয়ার জন্য কাজ করব,” তিনি বলেন। তিনি যোগ করেছেন যে ইসরায়েলের মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধের মুখে যারা নীরব থাকে তারা “অপরাধীদের মতো সেই অপরাধে জড়িত”।

বিএনএনিউজ২৪,জিএন

Loading


শিরোনাম বিএনএ