32 C
আবহাওয়া
১১:৫০ পূর্বাহ্ণ - মে ২৯, ২০২৩
Bnanews24.com
Home » করোনায় ১০ ট্রাক অস্ত্র মামলার আসামি আব্দুর রহিমের মৃত্যু

করোনায় ১০ ট্রাক অস্ত্র মামলার আসামি আব্দুর রহিমের মৃত্যু

করোনায় ১০ ট্রাক অস্ত্র মামলার আসামি আব্দুর রহিমের মৃত্যু

বিএনএ, ঢাকা : ১০ ট্রাক অস্ত্র মামলার অন্যতম আসামি ও জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থার (এনএসআই) সাবেক মহাপরিচালক কারাবন্দি ব্রিগেডিয়ার (অব.) আব্দুর রহিম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। রোববার (১৫ আগস্ট)  শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) তার মৃত্যু হয়। রাজধানীর শেরে বাংলা নগর থানা ও কারা অধিদপ্তর বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার মো. মাহাবুবুল ইসলাম বলেন, কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২–এ আবদুর রহিম ছিলেন। গত ২৯ জুলাই তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন। এরপর ঢাকা কেন্দ্রীয় কারা কর্তৃপক্ষের উদ্যোগে তাকে সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার মরদেহ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালের মর্গে রাখা আছে। ময়নাতদন্তের পর তাকে স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

২০০৪ সালের ১ এপ্রিল চট্টগ্রামের সিইউএফএল ঘাট থেকে ১০ ট্রাকভর্তি অস্ত্রের চালান আটক করা হয়। এ নিয়ে কর্ণফুলী থানায় অস্ত্র আইন ও বিশেষ ক্ষমতা আইনে দুটি মামলা হয়। সিআইডি পুলিশ দুটি মামলার তদন্ত শেষে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করলে বিচার শুরু করা হয়।

২০০৭ সালের ১৯ নভেম্বর মামলা দুটির অধিকতর তদন্ত  শেষে ২০১৮ সালের ৩০ জানুয়ারি চট্টগ্রাম মহানগর দায়রা জজ আদালত এবং বিশেষ ট্রাইব্যুনাল-১-এর বিচারক এস এম মজিবুর রহমান এ মামলার রায় ঘোষণা করেন।

রায়ে চোরাচালানের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ৫২ আসামির মধ্যে ১৪ জনকে মৃত্যুদণ্ড দেয়ার পাশাপাশি এদের পাঁচ লাখ টাকা করে জরিমানাও করা হয়। আর অস্ত্র আইনের মামলায় ৫০ জনের মধ্যে এই ১৪ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন আদালত।

দুটি মামলার মধ্যে একটিতে সাবেক শিল্পমন্ত্রী ও জামায়াতে ইসলামীর আমির মতিউর রহমান নিজামী, সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুত্ফুজ্জামান বাবর, জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থার (এনএসআই) মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) আবদুর রহিম, প্রতিরক্ষা গোয়েন্দা মহাপরিদপ্তরের (ডিজিএফআই) সাবেক মহাপরিচালক মেজর জেনারেল (অব.) রেজ্জাকুল হায়দার চৌধুরী ও ভারতের বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠন উলফার সামরিক কমান্ডার পরেশ বড়ুয়াসহ ১৪ জনকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেন আদালত। বর্তমানে এটি উচ্চ আদালতে বিচারাধীন রয়েছে।

বিএনএনিউজ২৪/আমিন

Total Viewed and Shared : 13 


শিরোনাম বিএনএ