31 C
আবহাওয়া
১:৪৯ পূর্বাহ্ণ - এপ্রিল ২৫, ২০২৪
Bnanews24.com
Home » দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা দিনাজপুরে

দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা দিনাজপুরে

দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা দিনাজপুরে

বিএনএ, দিনাজপুর: মাঘ মাসের প্রথম দিন রোববার (১৪ জানুয়ারি)। কথায় বলে ‘মাঘের শীত বাঘের গায়’। তবে মাঘ মাস আসার আগেই শীতে কাবু সারা দেশ। পৌষের শেষ দিক থেকেই দেশজুড়ে বইছে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ। যে কারণে কনকনে ঠান্ডায় জবুথুবু অবস্থা। আর মাঘের প্রথম দিনের উত্তরের জেলাগুলোতে ঠান্ডার প্রকোট যেন আরও বেড়েছে।

আবহাওয়া অফিস বলছে, আজ সকাল ৯টায় দেশের মধ্যে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে দিনাজপুরে, ৮ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা সকাল ৬টায় ছিল ৮ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। চলতি বছরে এটি জেলার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা। সে হিসেবে টানা দ্বিতীয় দিনের মতো দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে দিনাজপুরে।

দিনাজপুরে গত কয়েকদিন ধরে দেখা মিলছে না সূর্যের। শনিবার রাত থেকে শুরু করে সকাল ১১টা পর্যন্ত বৃষ্টির মতো পড়ছে শিশির। এ সময় বাতাসে আর্দ্রতা ছিল ৯৭ ভাগ। সূর্যের দেখা মেলায় মৃদু শৈত্যপ্রবাহ আরও কঠিন হয়ে দাঁড়িয়েছে। জনজীবন বিপর্যস্ত। ঘর থেকে রাস্তায় পারতপক্ষে কেউ বের হচ্ছেন না। তবে বিপাকে পড়েছেন খেটে খাওয়া মানুষ। এই ৮ ডিগ্রির ঘরের তাপমাত্রায়ও বাইরে বের হতে হচ্ছে তাদের।

শরীর উষ্ণ রাখতে অনেককে আগুন জ্বালিয়ে তা পোহাতে দেখা গেছে। অনেকে শীত থেকে রক্ষায় চটের বস্তা বা পুরাতন কাপড় জড়িয়ে দিয়েছেন তাদের গৃহপালিত পশুদের। এদিকে শীত বৃদ্ধি পাওয়ায় বিক্রি বেড়েছে পুরাতন মোটা কাপড় জামা কাপড়ের দোকানে। ব্যস্ত সময় পার করছেন হাতমোজা বা পা মোজা বিক্রেতারাও।

আবহাওয়া অফিস বলছে, চলমান মৃদু শৈত্যপ্রবাহ এই অঞ্চলে আরো কয়েকদিন স্থায়ী হতে পারে।

আবহাওয়া অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার (৯ জানুয়ারি) দিনাজপুরে ১৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস, বুধবার (১০ জানুয়ারি) ১১ দশমিক ৭ ডিগ্রি, বৃহস্পতিবার (১১ জানুয়ারি) ১১ ডিগ্রি এবং শুক্রবার (১২ জানুয়ারি) ১০ ডিগ্রি , ১৩ জানুয়ারি মৌসুমের সর্বনিম্ন ৮ দশমিক ৮ ডিগ্রি এবং রোববার (১৪ জানুয়ারি) সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে।

দিনাজপুর আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগারের আবহাওয়া সহকারী কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান আসাদ বলেন, চলতি মাসের মাঝামাঝি সময়ে এ অঞ্চলের ওপর দিয়ে যে মৃদু শৈত্যপ্রবাহের পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছিল সেটি বর্তমানে বিরাজ করছে। যা আরও কয়েকদিন স্থায়ী হতে পারে। তারপর ধীরে ধীরে তাপমাত্রা বৃদ্ধি পাবে।

বিএনএনিউজ/ বিএম

Loading


শিরোনাম বিএনএ