33 C
আবহাওয়া
৫:২০ অপরাহ্ণ - জুলাই ১৫, ২০২৪
Bnanews24.com
Home » রাবিতে সংঘর্ষ: বহিরাগতদের প্রবেশে কঠোর নিষেধাজ্ঞা

রাবিতে সংঘর্ষ: বহিরাগতদের প্রবেশে কঠোর নিষেধাজ্ঞা


বিএনএ, রাবি: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) ক্যাম্পাসের অভ্যন্তরে বহিরাগতদের প্রবেশ ঠেকাতে কঠোর হচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। সোমবার (১৩ মার্চ) এই নিষেধাজ্ঞা জারি করতে মাইকিং করবে রাবি প্রশাসন। শিক্ষার্থীদের চলাচলের ক্ষেত্রেও  দেখাতে হবে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচয় পত্র।

সোমবার (১৩ মার্চ) দুপুর দেড়টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের কনফারেন্স রুমে এক সংবাদ সম্মেলনকালে এসব কথা বলেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. গোলাম সাব্বির সাত্তার। তিনি বলেন, “আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের বহিরাগতদের বেশি দৌরাত্ম বেড়ে গেছে। আজ ক্যাম্পাসে মাইকিং করে বহিরাগতদের প্রবেশে কঠোর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হবে। সন্ধ্যার পর থেকে কোনো বহিরাগত ক্যাম্পাসে প্রবেশ করতে পারবে না। শিক্ষার্থীদের চলাচলের ক্ষেত্রেও তাদের আইডি কার্ড দেখাতে হবে। শিক্ষার্থীদেরকে আইডি কার্ড সাথে নিয়ে চলাচল করতে হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের অতিরিক্ত গেইট থাকার এই সমস্যাগুলো সৃষ্টি হচ্ছে। আমরা গেইটের সংখ্যা কমিয়ে আনার জন্য কাজ করছি।”

আগামীকাল মঙ্গলবার থেকে নিয়মিত পরিসরে ক্লাস-পরীক্ষা চালু থাকবে জানিয়ে উপাচার্য বলেন, “আগামীকাল থেকে সবকিছু স্বাভাবিক চলবে। সংঘর্ষের ঘটনার প্রেক্ষিতে ক্লাস-পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছিল। বিভাগগুলো একাডেমিক কার্যক্রমের বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিবেন।

গতকালে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ মিছিল ও রেললাইনে আগুন জালিয়ে রাস্তা অবরোধের বিষয়ে তিনি বলেন, “গতকাল শিক্ষার্থীদের সকাল থেকে যে আন্দোলন হয়, প্রথম দিকে আমাদের শিক্ষার্থীরাই ছিল। শিক্ষার্থীদের যেকোনো আন্দোলন অত্যন্ত স্বাভাবিক একটি বিষয়। কিন্তু সহিংসতা, জ্বালাও-পোড়াও কার্যক্রমে বহিরাগতরা যুক্ত ছিল বলে আমার কাছে তথ্য আছে। এর কারণেই পরিস্থিতি শিক্ষার্থীদের নিয়ন্ত্রণে ছিল না। শিক্ষার্থীদের সকল আন্দোলন শান্তিপূর্ণভাবেই হয়। একটি পর্যায়ে আমরা তাদের দাবিগুলো পূরণ করবো।”

অনাবসিক শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার বিষয়ে অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার বলেন, “আমরা কাজ করছি। আগামীকাল মেস মালিক সমিতির সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বসবে। আমরা চাই মেস মালিকদের সাথে আমাদের অনাবাসিক শিক্ষার্থীদের একটি সখ্যতা গড়ে উঠুক। বিশ্ববিদ্যালয় কোনো বিচ্ছিন্ন দ্বীপ নয়। এটি যেহেতু পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়, আমরা চাই সকলের সাথে আমাদের একটি মেলবন্ধন থাকুক।”

সাংবাদিকদের ওপর হামলার নিন্দা জানিয়ে তিনি বলেন, “সাংবাদিকদের উপর যে হামলা করা হয়েছে তার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। সাংবাদিকদের কাজের স্বাধীনতা রয়েছে। তারা যেকোনো জায়গায় ভিডিও ধারণ করতে পারে। এমন ন্যাক্কারজনক ঘটনার তীব্র নিন্দা জানান তিনি।”

গত শনিবার (১১ মার্চ) সন্ধ্যায় বাসের ভাড়া নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের এক শিক্ষার্থীর সঙ্গে কথা-কাটাকাটির জের ধরে শিক্ষার্থীদের সাথে স্থানীয়দের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। রাতভর দফায় দফায় চলে সংঘর্ষ। এতে অন্তত ২৫০ জন শিক্ষার্থী আহত হয়েছে। এদের মধ্যে প্রায় শতাধিক শিক্ষার্থী এখনো রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ভর্তি আছেন।

বিএনএ/সাকিব, এমএফ

Loading


শিরোনাম বিএনএ