28 C
আবহাওয়া
৮:০১ পূর্বাহ্ণ - জুন ৯, ২০২৩
Bnanews24.com
Home » শ্রীলঙ্কার সর্বশেষ পরিস্থিতি যা জানা যাচ্ছে

শ্রীলঙ্কার সর্বশেষ পরিস্থিতি যা জানা যাচ্ছে


বিএনএ, বিশ্বডেস্ক : বৈদেশিক মুদ্রার সংকটের কারণে শ্রীলঙ্কায় বিদ্যুৎ সংকট চলছে অনেক দিন ধরে। পাশাপাশি জ্বালানি তেল পাওয়া যাচ্ছে না। খাদ্য ও প্রয়োজনীয় ওষুধ আমদানি করতে পারছে না দ্বীপরাষ্ট্রটি। এমন সংকটে বিক্ষুব্ধ দেশটির জনগণ।

রাষ্ট্রপতি গোতাবায়া রাজাপাকশের পদত্যাগের দাবিতে কলম্বোতে বিক্ষোভ করছে সরকার বিরোধীরা। শুক্রবার অনির্দিষ্টকালের কারফিউ জারি করে প্রশাসন। তবে সে কারফিউ উপেক্ষা করে প্রেসিডেন্টের বাসভবনের সামনে জড়ো হয় বিক্ষোভকারীরা। বিক্ষোভকারীদের নিয়ন্ত্রণ করতে কলম্বো শহরে রাষ্ট্রপতি ভবনের সামনে শুন্যে কয়েক রাউন্ড গুলিও চালিয়েছে শ্রীলঙ্কার সেনাবাহিনী। দফায় দফায় চালানো হচ্ছে জলকামান। তবে এতে তেমন প্রভাব পড়েনি। উল্টা প্রতিবাদীদের উপর গুলি চালানো হয়েছে এমন গুজব ছড়িয়ে পড়তে আরও ভিড় বাড়ছে কলম্বো শহরের প্রাণকেন্দ্রে।

বাস ভবন ছেড়ে পালালেন রাষ্ট্রপতি :

বিক্ষোভের মুখে রাষ্ট্রপতি ভবন থেকে পালালেন রাজাপক্ষ। সরকারের প্রতিরক্ষা বিভাগের একটি সূত্র জানায়, প্রেসিডেন্টকে নিরাপত্তার জন্য সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। সূত্র আরও জানায়, বিক্ষুদ্ধ জনতাকে ছত্রভঙ্গ করতে ফাঁকা গুলিবর্ষণ করে নিরাপত্তাকর্মীরা। কিন্তু তাদের রোধ করা যায় নি। বিক্ষোভকারীরা প্রেসিডেন্টের বাসভবনে ঢুকে পড়ে।

বিক্ষোভকে বেআইনি বলতে অনীহা প্রকাশ তিন বিচারকের
অন্তত তিন জন বিচারক শনিবারের বিক্ষোভকে বেআইনি ঘোষণা করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন। এর পরপরই প্রদেশগুলো থেকে রাজধানী কলম্বোতে আরও সেনা আনা হয়েছে। ২০ হাজার সেনা ও পুলিশের সমন্বয়ে চালানো হয় অভিযান। তবে তারপরও বিক্ষোভকারীরা জড়ো হচ্ছেন প্রেসিডেন্টের বাস ভবনের সামনে। তারা বলছেন, প্রেসিডেন্ট পদত্যাগ না করা পর্যন্ত ফিরবেন না।

খাদ্যের তীব্র সংকট
শ্রীলঙ্কায় গত কয়েক মাস ধরেই তীব্র খাদ্য সংকট তৈরি হয়েছে। ফুরিয়ে গিয়েছে জ্বালানিও। ফলে সারা দেশের যাত্রী পরিবহণ থেকে পণ্য পরিবহণ কার্যত স্তব্ধ। সেইসঙ্গে পণ্য আমদানিও বন্ধ করে দিয়েছে শ্রীলঙ্কা সরকার। সব মিলিয়ে দ্বীপরাষ্ট্রটিতে যেন দুর্ভিক্ষের পরিস্থিতি।

মিলছে না জ্বালানি:

বিদেশি ঋণের বোঝায় ভেঙে পড়েছে শ্রীলঙ্কার অর্থনীতি। সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে দেশের জ্বালানি ব্যবস্থা। শ্রীলঙ্কায় বিদেশি মুদ্রার অভাবের জন্য অন্য দেশ থেকে তেল কিনতে পারছে না তারা। ফলে তেলের অভাবে বিপাকে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। প্রতিটি পেট্রল পাম্পে তেল কিনতে লম্বা লাইনে দাঁড়িয়েছেন শ্রীলঙ্কাবাসী। দীর্ঘক্ষণ লাইনে দাঁড়িয়ে অন্তত দশ জনের মৃত্যু হয়েছে। দেশের সমস্ত স্কুল কলেজ বন্ধ রাখা হয়েছে। বাড়িতে বসেই অফিসের কাজ করছেন আমজনতা।

ভেঙ্গে পড়েছে পরিবহন ব্যবস্থা
ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে পরিবহণ ব্যবস্থা। আগের তুলনায় মাত্র ১০ শতাংশ পাবলিক বাস চালানো হচ্ছে । একই হাল ট্যাক্সিরও। ফলে দরকারের সময় যানবাহন পাচ্ছেন না সাধারণ মানুষ। দোকানপাটও বন্ধ রাখতে হচ্ছে।

স্থগিত হলো পাকিস্তানের অনুশীলন
দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে পাকিস্তান দলের বর্তমান অবস্থান শ্রীলঙ্কার রাজধানী কলম্বো। সেখানেই স্বাগতিকদের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে নিজেদের প্রস্তুত করছে বাবর আজম বাহিনী। কিন্তু শ্রীলঙ্কায় চলমান অর্থনৈতিক দুরাবস্থা তৈরি করেছে সরকার বিরোধী আন্দোলন। আন্দোলন ঠেকাতে দেওয়া কারফিউয়ের কারণে অনুশীলন করতে পারছে না পাকিস্তান দল। বিষয়টি নিশ্চিত করেছে দেশটির বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যম।
পাকিস্তানের মিডিয়া ম্যানেজার আহসান ইফতেখার নাগি বলেন, কলম্বোর পি সারা ওভালে পাকিস্তানের অনুশীলন সেশন বাতিল করা হয়েছে। শুক্রবার রাতে দেওয়া কারফিউয়ের কারণে এই অনুশীলন সেশন বাতিল করা হয়েছে।

শ্রীলঙ্কার সমস্যা সহজে মিটছে না বলে বলা হচ্ছে। ২০২৩ সালেও এই সঙ্কট জারি থাকবে বলে পার্লামেন্টে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমাসিঙ্ঘে।

বিএনএনিউজ/এইচ.এম।

Total Viewed and Shared : 110 


শিরোনাম বিএনএ