bnanews24.com

পাপিয়া ও তার সেক্সগার্লদের সঙ্গে কে এই শিল্পপতি?(ভিডিও)

ঢাকা: নরসিংদী জেলা যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক শামিমা নূর পাপিয়া ও তার স্বামীর সুনির্দিষ্ট কোনো পেশা নেই। তবু তিনি কোটি টাকার মালিক। ঢাকায় একাধিক গাড়ি বাড়ি ছাড়াও রয়েছে বিপুল সম্পদ। বহু লোকের সঙ্গে রয়েছে পার্টনারশীপ ব্যবসা। আইনশৃংখলা বাহিনীর তদন্তে বেরিয়ে এসেছে নানা অজানা তথ্য।

 

২২ ফেব্রুয়ারি গোপনে দেশত্যাগের সময় নরসিংদী জেলা যুব মহিলা লীগের সেক্রেটারি শামিমা নূর পাপিয়াকে তিন সহযোগীসহ আটক করে র‌্যাব। তার বিরুদ্ধে অবৈধ অস্ত্র ও মাদকের ব্যবসা, অর্থ পাচারসহ অনৈতিক কর্মকাণ্ডের অভিযোগ রয়েছে।

পাপিয়ার স্বামী ও তার অবৈধ আয়ের হিসাবরক্ষক মফিজুর রহমান ওরফে সুমন চৌধুরী ওরফে মতি সুমন, পাপিয়ার ব্যক্তিগত সহকারী শেখ তায়্যিবা ও সাব্বির খন্দকার। তাদের কাছে পাওয়া গেছে সাতটি পাসপোর্ট, বাংলাদেশি দুই লাখ ১২ হাজার ২৭০ টাকা, ২৫ হাজার ৬০০ জাল টাকা, ৩১০ ভারতীয় রুপি, ৪২০ শ্রীলঙ্কান মুদ্রা, ১১ হাজার ৯১ মার্কিন ডলার ও সাতটি মোবাইল ফোন।

আরো পড়ুন : সেই পাপিয়া ও তার সেক্সগার্লদের ওয়ারটার ডান্স

হোটেল ওয়েস্টিনের ২১তলার প্রেসিডেন্ট কক্ষটি গত নভেম্বর মাসে ভাড়া নেন পাপিয়া।  গত তিন মাসে  প্রায় ৮৮ লাখ টাকা ওই কক্ষের ভাড়া পরিশোধ করেছেন তিনি। ১৯তলায় একটি বার রয়েছে, যেটি  পুরোটাই বুক করে নিতেন পাপিয়া। সেখানে প্রতিদিন আড়াই লাখ টাকা মদের বিল পরিশোধ করতেন। সব মিলিয়ে দেখা যায়, গত তিন মাসে হোটেল কর্তৃপক্ষকে প্রায় তিন কোটি টাকা বিল পরিশোধ করেছেন তিনি।

সাতজন উঠতি বয়সী তরুণীর সঙ্গে র‌্যাবের কথা বলা সম্ভব হয়েছে, যাদের মাসে ৩০ হাজার টাকা করে দিতেন পাপিয়া। বিনিময়ে তাদের ব্যবহার করা হতো। কেউ রাজি না হলে তাদের লাঠি দিয়ে পেটাতেন পাপিয়া। আবার কোনো মেয়ের আপত্তিকর ছবি বড়লোক কাস্টমারদের মুঠোফোনে পাঠিয়ে দিয়ে আগ্রহ তৈরি করতেন।

ফার্মগেট এলাকার ২৮ নম্বর ইন্দিরা রোডে অবস্থিত রওশন’স ডমিনো রিলিভো নামক বিলাসবহুল ভবনে দুটি ফ্ল্যাটে অভিযান চালিয়ে একটি বিদেশি পিস্তল, দুটি পিস্তলের ম্যাগজিন, ২০ রাউন্ড পিস্তলের গুলি, পাঁচ বোতল বিদেশি মদ ও নগদ ৫৮ লাখ ৪১ হাজার টাকা, পাঁচটি পাসপোর্ট, তিনটি চেক, বিদেশি মুদ্রা, বিভিন্ন ব্যাংকের ১০টি ভিসা ও এটিএম কার্ড জব্দ করে র‌্যাব।

পাপিয়া সমাজ সেবার নামে নরসিংদী এলাকায় অসহায় নারীদের আর্থিক দূর্বলতার সুযোগ নিয়ে তাদেরকে অনৈতিক কাজে লিপ্ত করতেন। এজন্য অধিকাংশ সময় নরসিংদী ও রাজধানীর বিভিন্ন বিলাসবহুল হোটেলে অবস্থান করে অনৈতিক কাজে নারী সরবরাহ করে আসছিলেন।

গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে পাপিয়ার ব্যাপারে অনুসন্ধান করছিল র‌্যাবের একটি দল। বিষয়টি আঁচ করতে পেরে শনিবার  তড়িঘড়ি করে দেশত্যাগের চেষ্টা চালান তিনি। তবে শেষ রক্ষা হয়নি তার। সহযোগীসহ র‌্যাবের হাতে ধরা পড়েন পাপিয়া।

পাপিয়া ও তার সেক্সগার্লদের সঙ্গে কে এই শিল্পপতি?

নরসিংদী জেলা যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক শামিমা নূর পাপিয়া চক্রের কাছে প্রতারণার শিকার অনেক ব্যবসায়ি ও শিল্পপতি। অনেকে নিজের ইজ্জত সম্মানের ভয়ে চক্রটির চাহিদা মতো টাকা দিয়ে বলেছে, ছেড়ে দে মা কেঁদে বাচি। এ ছাড়া তাদের কাছে কোন উপায় ছিল না।

 

 

আরও পড়ুন

পুলিশ কর্মকর্তার পিস্তলে ছেলের আত্মহত্যা

RumoChy Chy

উখিয়ায় ৮ লাখ পিস ইয়াবাসহ যুবক আটক

Osman Goni

২০ কোটি টাকা আত্মসাৎ: ৪ শিল্পপতির বিরুদ্ধে মামলা

bnanews24