ব্রাউজিং শ্রেণী

রোহিঙ্গা

রোহিঙ্গা ( রুয়াইংগা): এদের আরাকানী ভারতীয়ও বলা হয়ে থাকে। রোহিঙ্গা হলো পশ্চিম মায়ানমারের রাখাইন রাজ্যের একটি রাষ্ট্রবিহীন ইন্দো-আর্য জনগোষ্ঠী। ২০১৬-১৭ মায়ানমারের রোহিঙ্গাদের উপর নির্যাতনের পূর্বে অনুমানিক ১ মিলিয়ন রোহিঙ্গা মায়ানমারে বসবাস করত।[ অধিকাংশ রোহিঙ্গা ইসলাম ধর্মের অনুসারি যদিও কিছু সংখ্যক হিন্দু ধর্মের অনুসারিও রয়েছে। ২০১৩ সালে জাতিসংঘ রোহিঙ্গাদের বিশ্বের অন্যতম নিগৃহীত সংখ্যালঘু জনগোষ্ঠী হিসেবে উল্লেখ করেছে।[ ১৯৮২ সালের বার্মিজ নাগরিকত্ব আইন অনুসারে তাদের নাগরিকত্ব অস্বীকার করা হয়েছে।

মিয়ানমার(সাবেক বার্মা) সরকার

রোহিঙ্গারা বলে আসছেন তারা পশ্চিম মায়ানমারে অনেক আগে থেকে বসবাস করে আসছেন। তাদের বংশধররা প্রাক-উপনিবেশিক ও উপনিবেশিক আমল থেকে আরাকানের বাসিন্দা ছিল। বিংশ শতাব্দীর শেষের দিকে নির্যাতন শুরু হওয়ার পূর্ব পর্যন্ত রোহিঙ্গারা আইনপ্রণেতা ও সংসদ সদস্য হিসেবে মায়ানমারের সংসদে প্রতিনিধিত্ব করেছেন। পূর্বে যদিও মায়ানমার রোহিঙ্গাদের গ্রহণ করত কিন্তু হঠাৎই মায়ানমারের সরকারি মনোভাব বদলে যায় এবং রোহিঙ্গাদের ব্যাপারে মায়ানমার সরকারের অফিসিয়াল মন্তব্য হলো তারা জাতীয় জনগোষ্ঠী নয় বরং তারা বাংলাদেশ থেকে আসা অবৈধ অভিবাসী। মায়ানমারের সরকার তখন থেকে “রোহিঙ্গা” শব্দটি ব্যবহার বন্ধ করে তাদের বাঙ্গালী বলে সম্বোধন করে। রোহিঙ্গাদের অধিকার আন্দোলনের বিভিন্ন সংগঠন বিশেষ করে আরাকান রোহিঙ্গা জাতীয় সংস্থা তাদেরকে মায়ানমারের মধ্যে জাতিসত্ত্বার পরিচয় দেওয়ার দাবী করে আসছে।

আরাকান(রাখাইন ) 

জাতিসংঘের তদন্তের প্রতিবেদন অনুসারে রোহিঙ্গারা মায়ানমারের ভিতরে অতি-জাতীয়তাবাদী বৌদ্ধদের দ্বারা ঘৃণা এবং ধর্মীয় অসহিষ্ণুতার শিকার হচ্ছে। একই সাথে মায়ানমারের সশস্ত্র বাহিনী কর্তৃক বিচারবহির্ভূত হত্যা, অবৈধ গ্রেফতার, নির্যাতন, ধর্ষণ এবং অপব্যবহারের শিকার হওয়ার পাশাপাশি তাদের জোরপূর্বক শ্রমে বাধ্য করছেন। জাতিসংঘের মতানুসারে, রোহিঙ্গাদের উপর চলা এ নির্যাতনকে মানবতা বিরোধী অপরাধ হিসেবে বলা যেতে পারে।

রোহিঙ্গা শরণার্থী সংকট

২০১৫ সালের রোহিঙ্গা শরণার্থী সংকট এবং ২০১৬ ও ২০১৭ সালের সেনাবাহিনীর অভিযানের পূর্বে মায়ানমারে ১.১ থেকে ১.৩ মিলিয়ন রোহিঙ্গা বাস করতেন। যাদের অধিকাংশের বাসস্থান ছিল মুলত ৮০-৯৮% রোহিঙ্গা অধ্যুষিত রাখাইন(আরাকান) রাজ্যে।. ৯ লক্ষেরও বেশি রোহিঙ্গা শরণার্থী হিসেবে দক্ষিণ-পূর্বের পার্শ্ববর্তী বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছে। এছাড়া অন্যান্য প্রতিবেশী দেশসহ বেশ কিছু মুসলিম দেশে পালিয়ে গিয়েছে।১০০,০০০-এর বেশি রোহিঙ্গা অভ্যন্তরীণভাবে বাস্তুচুত হয়ে মায়ানমারের সেনাবাহিনী নিয়ন্ত্রিত ক্যাম্পে রয়েছে।

২৫ আগস্ট ২০১৭ সালে রোহিঙ্গা বিদ্রোহীদের হামলায় ১২ জন নিরাপত্তা কর্মী নিহত হওয়ার পর মায়ানমারের সেনাবাহিনী রোহিঙ্গাদের বিরোদ্ধে “ক্লিয়ারেন্স অপারেশন” শুরু করে। এই অপারেশনে ৪০০-৩০০০ রোহিঙ্গা নিহত হন, অনেক রোহিঙ্গা আহত, নির্যাতন ও ধর্ষণের শিকার হন। তাদের বাড়ি পুড়িয়ে দেওয়া হয় এবং ৯ লাখের এর বেশি রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়।

হিউম্যান রাইটস ওয়াচের তথ্যমতে, ১৯৮২ সালের আইনে “রোহিঙ্গাদের জাতীয়তা অর্জনের সম্ভাবনা কার্যকরভাবে প্রত্যাখ্যান করা হয়েছে। ৮ম শতাব্দী পর্যন্ত রোহিঙ্গাদের ইতিহাসের সন্ধান পাওয়া সত্ত্বেও, মিয়ানমার(বার্মার) আইন এই সংখ্যালঘু নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠীকে তাদের জাতীয় নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠী হিসেবে স্বীকৃতি দিতে অস্বীকার করছে।”

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বাড়ছে সহিংসতা, বাড়ছে উদ্বেগ

বিএনএ,কক্সবাজার: কক্সবাজারের ৩৩ টি রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বাসিন্দারা উদ্বেগ, উৎকন্ঠা ও অজানা আতংকে ভয়াবহ অস্থির সময় পার করছেন। গত সাড়ে পাঁচ বছরে খুন হয়েছে ১৩৮ জন। শুধুমাত্র গত পাঁচ মাসে খুন হয় ৩৯ জন। অপহরণের শিকার হয়েছেন ২৪ জন। যাদেরকে মোটা…
বিস্তারিত পড়ুন ...

শিগগিরই রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে বেইজিংয়ের আশাবাদ: রাষ্ট্রদূত

বিএনএ: বাংলাদেশে নবনিযুক্ত চীনা রাষ্ট্রদূত ইয়াও ওয়েন বলেছেন, রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে তাদের স্বদেশে ফেরত পাঠানো প্রয়োজন এবং বেইজিং আশা করছে বাস্তচ্যুতদের প্রত্যাবাসন শিগগিরই শুরু হবে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়,…
বিস্তারিত পড়ুন ...

নো ম্যানসল্যান্ডের সাড়ে চার হাজার রোহিঙ্গা খোলা আকাশের নিচে

বিএনএ, কক্সবাজার: বাংলাদেশ মায়ানমার তুমব্রু সীমান্তের নো ম্যানসল্যান্ডের সাড়ে চার হাজার রোহিঙ্গা এখন খোলা আকাশের নীচে। ২০১৭ সালে আগস্ট মাসে মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর চালানো অভিযানের সময় ঘরবাড়ি হারিয়ে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুম-তুমব্রু…
বিস্তারিত পড়ুন ...

মিয়ানমারকে চাপে ফেলতে ব্যর্থতায় সাগরে ডুবে যাচ্ছে শতশত রোহিঙ্গারা

যদিও আসিয়ানের কিছু সদস্য এবং অন্যান্য আঞ্চলিক সরকার সমুদ্রে উদ্বাস্তুদের পরিত্যাগ না করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে, এটি অনেকটা মুখের কথা
বিস্তারিত পড়ুন ...

টেকনাফে ইয়াবাসহ রোহিঙ্গা আটক

কক্সবাজার প্রতিনিধি: কক্সবাজারের টেকনাফে ৯০ হাজার ইয়াবাসহ শামসুল আলম নামে এক রোহিঙ্গাকে আটক করেছে র‌্যাব-১৫। সোমবার(৯ জানুয়ারি) রাতে উপজেলার হ্নীলা ইউপির লেদা রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে তাকে আটক করা হয়। আটককৃত শামসুল লেদা ২৪ নম্বর রোহিঙ্গা…
বিস্তারিত পড়ুন ...

প্রতিদিন গড়ে ১২৫ শিশু জন্ম নিচ্ছে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে

এইচ এম ফরিদুল আলম শাহীন, কক্সবাজার: জেলার ৩৩ টি রোহিঙ্গা শিবিরে ৫ বছরে ১ লাখ ৫৮ হাজার জন্ম নেওয়া শিশুর নিবন্ধন করা হয়েছে। বিভিন্ন এনজিও সংস্থার দেয়া তথ্যে বলা হচ্ছে প্রকৃত অর্থে গত পাঁচ বছরে জন্ম নেয়া শিশুর সংখ্যা প্রায় আড়াই লাখ । ৫৮ শতাংশ…
বিস্তারিত পড়ুন ...

ইয়াঙ্গুনের কাছে মিললো ১৩ রোহিঙ্গা কিশোরের মরদেহ

মিয়ানমার সেনাবাহিনীর জাতিগত নির্মূল অভিযানের কারণে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে মিয়ানমারের ১২ লাখের বেশি রোহিঙ্গা   রাখাইন প্রদেশ ( আরাকান)ছেড়ে পালিয়েছে। তারা কয়েক দশক ধরে তাদের চলাফেরার স্বাধীনতা এবং অন্যান্য মৌলিক অধিকারের ওপর বিধিনিষেধের…
বিস্তারিত পড়ুন ...

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ বন্ধে ইইউ’র পদক্ষেপ চান প্রধানমন্ত্রী

বিএনএ ডেস্ক: রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে গোটা বিশ্বকে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এই যুদ্ধ বন্ধে পদক্ষেপ নিতে ইউরোপীয় ইউনিয়ন-এর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বৃহস্পতিবার (১০ নভেম্বর) ইউরোপীয় ইউনিয়নের কমিশন ফর হোম…
বিস্তারিত পড়ুন ...

ভাসানচরের রোহিঙ্গাদের জন্য ইইউ’র ৩ মিলিয়ন ইউরো সহায়তা ঘোষণা

ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের সহায়তায় ৩ মিলিয়ন ইউরো সহায়তা ঘোষণা করেছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)। বাংলাদেশ সফররত ইউরোপীয় ইউনিয়নের স্বরাষ্ট্র বিষয়ক কমিশনার ইয়ালভা জোহানসন ১০ নভেম্বর রাজধানীর গুলশানে বাংলাদেশে নিযুক্ত ইউরোপিয়ান কমিশন ডেলিগেশন প্রধানের…
বিস্তারিত পড়ুন ...